বাস্তুর নিয়ম মেনে সাজিয়ে তুলুন গর্ভবতী মায়ের ঘর

বাস্তুর নিয়ম মেনে সাজিয়ে তুলুন গর্ভবতী মায়ের ঘর

একজন গর্ভবতী(pregnant) মাকে (women) অনেক নিয়ম মেনে চলতে হয়। কারণ তার মধ্যে সঞ্চারিত হচ্ছে অন্য একটি প্রাণ। মা যা খাবে সেই পুষ্টি পাবে তাঁর সন্তান। এমনকী মা যেরকম ভাবনা চিন্তা করেন বা যে ধরনের জীবনযাত্রার মধ্যে দিয়ে যান, বলা হয় সেগুলোরও প্রভাব পড়ে সন্তানের উপর। তাই একজন গর্ভবতী মায়ের সর্বাঙ্গীণ ভাল থাকা খুব দরকার। আর তার মধ্যে অবশ্যই যুক্ত করা উচিত একজন হবু মায়ের ঘর। হ্যাঁ, ঠিক শুনেছেন। একজন মা যে ঘরে বসছেন, থাকছেন বা ঘুমচ্ছেন, অনেক কিছু নির্ভর করে তার উপরেও। তাই বাস্তুর (vastu) নিয়ম মেনেই একজন হবু মায়ের ঘর সাজিয়ে দেওয়া উচিত। কীভাবে সেটা করবেন জেনে নিন এখনই। 

pixabay

১) একজন হবু মায়ের ঘরে বৈদ্যুতিন যন্ত্র বা ইলেকট্রিকাল যন্ত্র যতটা সম্ভব দূরে রাখবেন। প্রথমত বাস্তুর দিক বিচার করলেও এগুলো নেগেটিভ ভাইব বা নেগেটিভ তরঙ্গ নিয়ে আসে। এটা মা ও শিশু কারও জন্যই ভাল নয়। দ্বিতীয়ত এমনিতেও সারা বিশ্ব জুড়ে ইলেকট্রিকাল গ্যাজেটের কুপ্রভাব নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। ল্যাপটপ, মোবাইল, ট্যাব ইত্যাদি হবু মায়ের ঘরে রাখবেন না। 


২) হবু মায়ের উচিত দক্ষিণ পশ্চিম দিকে মাথা রেখে ঘুমানো। বাস্তু অনুযায়ী এই দিক একজন মায়ের পক্ষে সবচেয়ে ভাল। এই দিক থেকে পজিটিভ এনার্জি আসে। যা শিশুর পক্ষে খুব ভাল। তাছাড়া এই দিকে মাথা রেখে শুলে ঘুমও ভাল হয়। 

৩) হবু মায়ের ঘর যদি উত্তর পশ্চিমে হয় তাহলে সেটা এক্ষুনি পরিবর্তন করা দরকার। উত্তর পশ্চিম হল নরকের দ্বার। অন্তত হিন্দু শাস্ত্র তাই বলে। যদি এই মুহূর্তে ঘর পরিবর্তন করা সম্ভব না হয় তাহলে অন্তত এটা খেয়াল রাখা উচিত যে হবু মা যেন দক্ষিণ দিকে মাথা রেখে ঘুমোতে পারেন। 


৪) হবু মা যেখানে বসে খাচ্ছেন বা টিভি দেখছেন অথবা বাড়ির সবার সঙ্গে বসে গল্প করছেন সেটা কন দিকে সেই বিষয়েও সচেতন থাকা প্রয়োজন। খেয়াল রাখবেন উল্লিখিত কাজগুলি গর্ভবতী মা যেন দক্ষিণপূর্ব দিকে বসে না করেন। সেটা মায়ের স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল হবে না।


৫) যে ঘরে হবু মা থাকছেন সেখানে গাদা গুচ্ছের আসবাবপত্র রাখবেন না। এতে ভাল এনার্জি ঘরে ঢুকতে বাধাপ্রাপ্ত হবে। বিশেষ করে খেয়াল রাখতে হবে যে ব্রহ্মস্থানে অর্থাৎ ঘরের একদম কেন্দ্রে কোনও বড় টেবিল বা সোফা যেন না থাকে।  

pixabay

৬) সিঁড়ি। বাস্তু অনুযায়ী সিঁড়ি দিয়ে যেহেতু ওঠা নামা করা হয়, তাই এর সঙ্গে জীবনের ওঠাপড়ার একটা সম্পর্ক আছে। সিঁড়ির নীচের ঘরে কখনওই হবু মাকে থাকতে দেবেন না। সিঁড়ির ডান বা বাঁ দিকেও মাকে থাকতে দেবেন না। 


৭) হবু মায়ের ঘরে নৌকো, ঝড় বৃষ্টি ও ভৌতিক কোনও ছবি রাখবেন না। ঘরে ক্যাকটাস জাতীয় কোনও কাঁটাগাছ রাখবেন না। দেওয়ালে সুস্থ ও সুন্দর সন্তানের ছবি লাগাতে পারে। ধর্মীয় বই টেবিলে রাখতে পারেন। 


৮) বাস্তুতে দক্ষিণপূর্ব দিক হল অগ্নিকোণ। যদি সম্ভব হয় এখানে একটি বড় স্ট্যান্ড ল্যাম্প রাখতে পারেন। প্রতিদিন নিয়ম করে সেটা জ্বালিয়ে দেবেন। 


৯) কালো, খয়েরি ইত্যাদি ঘন রং হবু মায়ের ঘরের দেওয়ালে করাবেন না। এতে মা মানসিক অবসাদে ভুগতে পারেন। 


১০) গর্ভবতী মায়ের ঘরের দেওয়াল সবুজ, নীল, হলুদ বা সাদা এইগুল হলে ভাল হয়। এগুলি হাল্কা রং তাই এই রং পজিটিভ এনার্জি বিচ্ছুরিত করে দেবে। যা মা ও শিশুর পক্ষে ভাল। 

 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!