পিরিয়ডের সময় রক্তের রঙের পরিবর্তন দেখেই নাকি জানা যায় শরীরের হাল হকিকত

পিরিয়ডের সময় রক্তের রঙের পরিবর্তন দেখেই নাকি জানা যায় শরীরের হাল হকিকত

American Academy of Obstetricians and Gynecologists-এর প্রকাশ করা এক রিপোর্ট অনুসারে, পিরিয়ডের ব্যাপ্তি এবং সে সময়কার রক্তের রং দেখে শরীর সম্পর্কে অনেক তথ্যই জেনে ফেলা সম্ভব। বিশেষ করে কোনও জটিল রোগ শরীরে বাসা বেঁধেছে কিনা, তা পিরিয়ডের রক্ত দেখেই বুঝে ফেলা যায়। কিন্তু কীভাবে এমনটা সম্ভব? খেয়াল করলে দেখবেন, পিরিয়ডের রক্তের রং কোনও সময় গাঢ় লাল হয়, তো কখনও খয়েরি। এভাবে রক্তের (blood) রং বদলে যাওয়ার পিছনে কিছু শারীরিক কারণ দায়ী থাকে। তাই তো কী ধরনের রোগের কারণে রক্তের রং গাঢ় লাল, খয়েরি অথবা কালো হয়, সে সম্পর্কে জেনে নিলে হাতে সময় থাকতে থাকতেই অনেক রোগ সম্পর্কে জেনে ফেলা যে সম্ভব হবে।

আরো পড়ুনঃ অনিয়মিত ঋতুস্রাবের কারণ ও ঘরোয়া সমাধান

রক্তের রং কালো হওয়ার অর্থ

পিরিয়ডের (Period) রক্তের রং কালো হলে ভয় পাবেন না যেন! অনেক সময় জরায়ু থেকে রক্ত যখন একটু দেরি করে বেরোয়, তখন রক্তের রং এমন হয়। তাই কালচে রক্ত বেরনো মানেই আপনি অসুস্থ, এমনটা ভেবে নেওয়ার কোনও কারণ নেই। তবু চাইলে একবার গাইনোকলজিস্টের সঙ্গে এই নিয়ে আলোচনা করে নিতে পারেন।

রক্তে খয়েরি আভা থাকা কি বিপদের লক্ষণ?

জরায়ু থেকে রক্ত বেরতে যখন সময় নেয়, তখন রক্তের রং খয়েরি হয়। অনেক সময় পিরিয়ডের শুরু এবং শেষের দিনও রক্তে খয়েরি আভা থাকা, যা একেবারেই স্বাভাবিক ঘটনা নয়। এক্ষেত্রে আরও কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন। যেমন ধরুন, প্রেগন্যান্সির সময় যদি ব্লাড স্পটিং হয় এবং সেই রক্তের রং যদি খয়েরি হয়, তা হলে অবিলম্বে চিকিৎসকের পররামর্শ নেওয়া উচিত। কারণ, miscarriage-এর মতো ঘটনা ঘটলে অনেক সময় খয়েরি রঙের ব্লাড স্পটিং হয়ে থাকে।

গাঢ় লাল রং

পিরিয়ডের শেষের দিকে অনেক সময় রক্তের রং একটু বেশি রকমেরই গাঢ় হয়। এটা একেবারেই স্বাভাবিক ঘটনা। তবে প্রসবের পরে যদি মায়ের গাঢ় লাল রঙের রক্তপাত হয়, তা হলে যত শীঘ্র সম্ভব চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত। কারণ, cesarean section-এর পরে অনেক সময়ই Lochia নামে একটি রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাতে ডেলিভারির পরে প্রায় চব্বিশ ঘণ্টা পর্যন্ত এমন রক্তপাত হয়।

পিরিয়ডের সময় রক্তের রং উজ্জ্বল লাল রঙের হওয়াটা কি স্বাভাবিক ঘটনা?

পিরিয়ডের শুরুর দিন রক্তের রং উজ্জ্বল রঙের হলে চিন্তার কোনও কারণ নেই। কিন্তু টানা কয়েক দিন যদি এমন ঘটনা ঘটে, তা হলে গাইনোকলজিস্টের পরামর্শ নেওয়া একান্ত প্রয়োজন। কারণ, chlamydia এবং gonorrhea-এর মতো সংক্রমণের কারণে যেমন উজ্জ্বল লাল রঙের রক্তক্ষরণ হতে পারে, তেমনই fibroids-এর কারণেও কিন্তু এমন ঘটনা ঘটে থাকে। তাই এক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে দেরি করা ঠিক নয়।

রক্তে গোলাপি আভা

রক্ত যখন cervical fluid-এর সঙ্গে মিশে যায়, তখন রক্তের রং গোলাপি হয়। তাই এই নিয়ে চিন্তার কোনও কারণ নেই। তবে আরও একটি কারণেও পিরিয়ডের সময়কার রক্তে গোলাপি আভা থাকতে পারে। কী কারণে? শরীরে estrogen লেভেল কমে গেলে এমন ঘটনা ঘটে, যা বেজায় চিন্তার বিষয়। তাই টানা এক-দু'মাস যদি পিরিয়ডের রক্তের রং গোলাপি হয়, তা হলে চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করতে দেরি করবেন না যেন!

কমলা রক্ত

পিরিয়ডের সময়কার রক্তে যদি কমলা আভা থাকে, তা হলে জানবেন আপনি ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশন অথবা sexually transmitted infection-এ আক্রান্ত হয়েছেন। কারণ, এমন ধরনের রোগ ঘাড়ে চেপে বসলেই মূলত পিরিয়ডের সময় রক্তের রং এমন বদলে যায়। তবে চিন্তার কোনও কারণ নেই। কারণ, গাইনোকলজিস্টের পরামর্শ মতো ঠিক-ঠিক ওষুধ খেলে অল্প দিনেই এমন সংক্রমণের প্রকোপ কমে যায়।

কখন ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত?

১. দিন সাতেকের বেশি সময় ধরে পিরিয়ড হলে এবং সে সময় যদি ব্লাড ফ্লো অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যায়, তাহলে সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

২. পিরিয়ড সার্কেল ২৪ দিনের কম এবং ৩৮ দিনের বেশি হলে গাইনোকলজিস্টের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না যেন!

৩. টানা তিন মাস পিরিয়ড না হলেও চিন্তার বিষয়। তাই এক্ষেত্রেও একবার বিশেষজ্ঞের সঙ্গে আলোচনা করে নেওয়া উচিত।

৪. menopause-এর পরেও যদি পিরিয়ডের মতো রক্তক্ষরণ হতে থাকে, তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া মাস্ট!

কলকাতার নামী কয়েকজন গাইনোকোলজিস্টের নাম এবং তাঁদের ফোন নং

pixabay

১. ডাঃ সুবিদিতা চ্যাটার্জি (০৩৩-৪০৫-৮৫৯৫০)

২. ডাঃ সুদেষ্ণা সাহা (৯৮৩০২৪৫৯৯৩)

৩. ডাঃ জয়ন্ত কুমার গুপ্ত (৮০৪৮৮৮৫৮৬২)

৪. ডাঃ দীপালি গুপ্ত (০৮০১৭৯৯৯৬৬৬)

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এগুলোও আপনি পড়তে পারেন

PCOS এর লক্ষণ ও ঘরোয়া চিকিৎসা

কীভাবে মেনস্ট্রুয়াল কাপ ব্যবহার করবেন

মুড সুইংয়ের সমস্যা দূর করার উপায়

প্রতিটি মহিলার করানো প্রয়োজন এই মেডিক্যাল টেস্টগুলো

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!