ঘুম পেলেই কি যখন-তখন ঘুমিয়ে পড়বেন নাকি? উত্তরটা কিন্তু 'হ্যাঁ'! খুশি হলেন তো?

ঘুম পেলেই কি যখন-তখন ঘুমিয়ে পড়বেন নাকি? উত্তরটা কিন্তু 'হ্যাঁ'! খুশি হলেন তো?

ঘুমোতে (sleep) আমরা সবাই ভালবাসি, তবে যখন তখন ঘুমোলে কিন্তু কোনও লাভ নেই, বরং শরীরের নানা ক্ষতি হতে পারে। অনেকেই আছেন যাঁরা যখন-তখন যেখানে সেখানে দিব্যি ঘুমিয়ে পড়তে পারেন; আবার একদল আছেন, যাঁরা হয়তো রাতেই ঘুমোন, কিন্তু বিছানায় শরীরটা ঠেকানোর সঙ্গে-সঙ্গে বেশ নাক ডেকে ঘুম দিতে পারেন; আর একদল আছেন যাঁরা কোনও সময়েই ঠিকভাবে ঘুমোতে পারেন না। আবার আমরা একথাও শুনেছি যে, রাতের ঘুমটাই আসল, দিনের বেলার আবার ঘুম হয় নাকি? আচ্ছা বলুন তো, যারা নাইট ডিউটি করেন, তাঁরা তা হলে কখন ঘুমোবেন? আসল ব্যাপারটা হল, আপনি কখন ঘুমোচ্ছেন আর কতক্ষণ ঘুমোচ্ছেন – এই বিষয় দুটোই খুব গুরুত্বপূর্ণ। আপনিও এই ফাঁকে টুক করে জেনে নিন, আপনি ঠিকঠাক রুটিন (routine) মেনে ঘুমোচ্ছেন তো?

কোয়ালিটির উপর জোর দিন

বলা হয়, একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের দিনে আট ঘণ্টা মতো ঘুমানো উচিত, তবে আমাদের এই ব্যস্ত জীবনে অনেকেই সে সুযোগটা পাই না। এমন অনেকেই আছেন যাঁরা দিনে চার ঘণ্টা বা তারও কম সময় ঘুমান কিন্তু এনার্জি দেখবেন তাঁদের, আপনার আমার থেকে বেশি। প্রশ্ন জাগছে তো মনে, কীভাবে? কারণ তাঁরা কতক্ষণ ঘুমাচ্ছেন, তার উপর জোর না দিয়ে কেমন ঘুমাচ্ছেন, তার উপর জোর দেন। আপনি যদি আট ঘণ্টা ঘুমান, কিন্তু তাতে বারবার ওঠেন সে ঘুমের থেকে চার ঘণ্টার গাঢ় ঘুম অনেক বেশি ভাল, তাই না?

ক্লান্ত লাগলে টুক করে একটু ঘুমিয়ে নিন

অনেকসময় এমন পরিস্থিতি আসে, যখন আমাদের মাঝে-মাঝেই খুব ক্লান্ত লাগে, ঘুম পায়; কিন্তু তখন ‘ঘুমানোর সময় নয়’ বলে আমরা ঘুমাই না। এতে লাভের থেকে ক্ষতি বেশি হয়। আবার অনেকেই এমন আছেন, যাঁরা ঘুমে চোখ বন্ধ হয়ে এলেও বিছানায় শুয়ে ফোন নিয়ে খুটখুট করতেই থাকেন। হয়ত ভাবলেন যে, আজ রাত ১১টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়বেন, কিন্তু যখন ঘুমালেন তখন হয়তো সূর্যদেব পূব আকাশে উঁকি দিচ্ছেন! যখনই শরীরটা ক্লান্ত লাগবে, তখন অন্য কোনও কাজ না করে বরং একটু ঘুমিয়ে নিন। অনেকসময়ই কিন্তু ১৫ মিনিটের একটা ছোট্ট ন্যাপ শরীরের ক্লান্তি দূর করে দেয়।

সম্ভব হলে ভোরে উঠুন

আপনার যদি রাতে ঘুমানোর সুযোগ থাকে, তা হলে বেশি দেরি না করে সক্কাল-সক্কাল শুয়ে পড়ুন আর ভোর-ভোর ঘুম থেকে উঠে পড়ুন। কথায় আছে, “early to bed, early to rise, makes a man healthy, wealthy and wise”. এখানে ‘ম্যান’-এর কথা বলা হলেও কথাটি কিন্তু সকলের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। সকালের সূর্যের আলোতে ইউ ভি রশ্মির পরিমাণ কম থাকে এবং ভিটামিন ডি-এর পরিমাণ বেশি থাকে, তা ছাড়া সকালের আলো গায়ে লাগালে শরীরও বেশ ফুরফুরে হয়। সারাদিনের কাজকর্মের জন্য ভরপুর এনার্জি অনায়াসে পেয়ে যেতে পারেন।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!