পুজোয় তাক লাগাতে আজ থেকেই মেনে চলুন ৩০ দিনের এই বিশেষ হেয়ার কেয়ার রুটিন'

পুজোয় তাক লাগাতে আজ থেকেই মেনে চলুন ৩০ দিনের এই বিশেষ হেয়ার কেয়ার রুটিন'

দেখতে-দেখতে দুর্গাপুজো (Durga Puja) এসে গেল, আর মাত্র কয়েকটা দিনই হাতে রয়েছে মায়ের আগমনের। পুজোতে কী-কী করবেন, কেমন সাজবেন, কেমন পোশাক পরবেন, কোথায়-কোথায় ঠাকুর দেখতে যাবেন মোটামুটি সবই প্ল্যান করে ফেলেছেন নিশ্চয়ই? তা বেশ, কিন্তু এই এক মাসে চুলের যত্ন ঠিক কীভাবে নেবেন, তা ঠিক করেছেন কি? কারণ, আপনি যতই সেজেগুজে বেরোন না কেন, মাথায় যদি চুল না থাকে বা চুলের যদি বিশ্রী দশা হয়, তা হলে কিন্তু গোটা সাজটাই মাটি হয়ে যাবে! এই একটি মাস একটু চুলের যত্ন (30 days haircare routine) নিন, কীভাবে? বলে দিচ্ছি আমরা...

শ্যাম্পু করার আগে অবশ্যই তেল লাগান

শাটারস্টক

যদিও সারা বছরই চুলের যত্ন নেওয়া উচিত, কিন্তু আমরা সেটা করি না। পুজোর আগের এই ৩০ দিনে না হয় একটু চুলের যত্ন করলেন। আমরা অনেকেই চুলে তেল লাগাতে বড্ড বিরক্ত হই, চিপচিপ করে সেই জন্য! আবার অনেকেরই ধারণা থাকে, যেহেতু তাঁদের চুল ও স্ক্যাল্প তেলতেলে কাজেই আলাদা করে আর তাঁদের চুলে তেল লাগানোর কোনও প্রয়োজন নেই। এমন ধারণা যদি আপনার মাথাতেও থাকে, তা হলে এখনই তা ঝেড়ে ফেলুন। যখনই শ্যাম্পু করবেন, তার আগে চুলে তেল লাগান। চুলের গোড়ায় আঙুলের ডগার সাহায্যে আলতো করে মাসাজও করুন, এতে রক্তসঞ্চালন সঠিকভাবে হবে এবং চুলের গোড়া মজবুত হবে। এছাড়াও তেল চুলে পুষ্টি জোগায়, ফলে চুল ঝরেও যায় না। তবে বাজারচলতি যে-কোনও তেল না লাগিয়ে চেষ্টা করুন অরগানিক কোনও তেল ব্যবহার করার। তেমন হলে আপনি বাড়িতেও নিজের জন্য কাস্টমাইজড হেয়ার অয়েল তৈরি করে নিতে পারেন।

আপনার জন্য সঠিক শ্যাম্পু কোনটি?

হাতের সামনে যে শ্যাম্পু পেলেন সেটাই লাগিয়ে চুল ধুয়ে নিলেন, এমন করলে কীভাবে চুলের সঠিক যত্ন হবে শুনি? আপনার চুলের ধরন অনুযায়ী যদি শ্যাম্পু না বাছেন, তা হলে উপকারের চেয়ে অপকার বেশি হবে! রুক্ষ চুলের জন্য যে ধরনের শ্যাম্পু লাগবে, তা আবার যাঁদের চুল তেলতেলে তাঁদের জন্য জুতসই হবে না! সেরকমই যাঁদের খুশকির সমস্যা রয়েছে তাঁরা অ্যান্টি ড্যানড্রাফ শ্যাম্পু ব্যবহার করতে পারেন। আবার যাঁদের চুলে কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট করা রয়েছে, তাঁরা সেই হিসেবে শ্যাম্পু বাছুন। চুলে রং করা থাকলে প্রয়োজন কালার গার্ড শ্যাম্পুর। নিজের চুলের ধরন অনুযায়ী শ্যাম্পু বাছুন। তবে যে শ্যাম্পুই বাছুন না কেন, চেষ্টা করুন তা যেন সালফেট ফ্রি হয়!

শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার জরুরি

শাটারস্টক

শ্যাম্পু করার পর অতি অবশ্যই কন্ডিশনার ব্যবহার করুন, তা না হলে চুল রুক্ষ ও ফ্রিজি হয়ে যেতে পারে। চুল মোলায়েম রাখতে কন্ডিশনার দারুণ কাজ করে। তবে হ্যাঁ, বেশিরভাগ মানুষ যে ভুলটা করেন কন্ডিশনার ব্যবহারের ক্ষেত্রে তা হল, তাঁরা স্ক্যাল্পে কন্ডিশনার লাগিয়ে ফেলেন! আপনি সেই ভুলটা করবেন না, এতে চুলের গোড়া আলগা হয়ে যেতে পারে। কন্ডিশনার লাগাবেন শুধু চুলের গুছিতে...

সপ্তাহে অন্তত একবার হেয়ার মাস্ক

পুজোর জন্য রেডি হতে চুলে সপ্তাহে একদিন হেয়ার মাস্ক অবশ্যই ব্যবহার করুন। আপনি চাইলে বাজার থেকে কিনে হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন, আবার বাড়িতে নিজে তৈরি করেও হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। তবে যেটাই করবেন, চুলের ধরন অনুযায়ী করবেন।

আরও কিছু দরকারি টিপস

শাটারস্টক

  • খাওয়া-দাওয়ার দিকেও কিন্তু বিশেষ যত্ন নিতে হবে এসময়। বেশি করে মাছ, ডিম, সবুজ শাক-সবজি ও প্রচুর পরিমাণে জল খেতে হবে, যাতে শরীরের ভিতর থেকে টক্সিন বেরিয়ে যেতে পারে এবং চুল স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হয়ে ওঠে।
  • প্রতিদিন শ্যাম্পু করবেন না। একদিন অন্তর একদিন শ্যাম্পু করুন।
  • সম্ভব হলে ১৫ দিনে একবার হেয়ার স্পা করুন। সব সময়ে পার্লারে গিয়েই হেয়ার স্পা করাতে হবে তার কোনও মানে নেই, আপনি বাড়িতেও প্রাকৃতিক উপাদানের সাহায্যে হেয়ার স্পা করতে পারেন।
  • এই এক মাস চেষ্টা করুন হেয়ার স্টাইলিং টুলস ব্যবহার না করার, কারণ এতে চুল ড্যামেজ হবেই! যদি একান্তই ব্যবহার করতেই হয় তা হলে হিট প্রোটেক্টিং স্প্রে লাগিয়ে তারপরই চুল স্ট্রেট বা কার্ল করুন।
  • সম্ভব হলে কাঠের চিরুনি ব্যবহার করুন।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!