ত্বকের হারানো জেল্লা ফেরাতে কাঁচা দুধ ব্যবহার করুন নানা ভাবে in Bengali | POPxo

বিবর্ণ হয়ে যাওয়া ত্বকের ঔজ্জ্বল্য ফিরিয়ে আনতে নানা ভাবে সাহায্য করবে কাঁচা দুধ

বিবর্ণ হয়ে যাওয়া ত্বকের ঔজ্জ্বল্য ফিরিয়ে আনতে নানা ভাবে সাহায্য করবে কাঁচা দুধ

একমাত্র বাঙালিরা ছাড়া বোধ হয় আর কোনও ভারতীয় দুধ কাঁচা না জ্বাল দেওয়া, সেটা জানতে চায় না! আমরা কিন্তু কাঁচা দুধ, মানে, বাজার থেকে কিনে আনা প্যাকেটের দুধ কিংবা খাটাল থেকে নিয়ে আসা গোরুর দুধ, দুটো বাড়িতে ঢোকা অবধি মানা হবে কাঁচা বলে, আর একবার জ্বাল দেওয়া হয়ে গেলে সেটা খাওয়ার উপযুক্ত বলে ধরা হবে! মনে করে দেখবেন, পুজোতে কিন্তু জ্বাল দেওয়া দুধ ব্যবহার করা হয় না! কাঁচা দুধেই ঠাকুরকে স্নান করানো থেকে শুরু করে চরণামৃত তৈরি কিংবা সিন্নি মাখা, সবকিছু ওই দুধেই হয়। কাঁচা দুধে (raw milk) পুজোর কাজ করা ছাড়াও, এই ধরনের দুধ দিয়ে রূপচর্চাও কিন্তু দারুণ হয়। বিশেষত. আপনার ত্বক যদি দীর্ঘদিন ঠিক করে ঘষামাজার অভাবে বিবর্ণ, রুক্ষ, শুষ্ক হয়ে যায়, তা হলে এই ত্বকের হারানো জেল্লা (skin care) ফিরিয়ে আনতে কাঁচা দুধ ব্যবহার করতে পারেন নানা ভাবে (benefits)। সেই সম্বন্ধেই এখানে আমরা আলোচনা করছি...

 

১. টোনার হিসেবে

কাঁচা দুধে কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে তা মুখে-ঘাড়ে-গলায় ভাল করে লাগান। মিনিটদশেক রেখে ধুয়ে ফেলুন। যদি ত্বক তেলতেলে হয়, তা হলে অল্প গরম জলে ধোবেন। যদি ত্বক শুষ্ক হয়, তা হলে সাধারণ কলের জলেই ধোবেন। কাঁচা দুধ মুখের শিথিল মাংসপেশি দৃঢ় করে হারানো ইলাস্টিসিটি ফিরিয়ে আনে। 

২. ময়শ্চারাইজার হিসেবে

কাঁচা দুধ ত্বকের অনেক গভীরে প্রবেশ করে তাড়াতাড়ি এবং ত্বককে ভিতর থেকে পুষ্টি জোগায়। হাফ বাটি কাঁচা দুধে দু-তিন চামচ বেসন, কয়েক ফোঁটা মধু এবং গোলাপ জল মিশিয়ে ভাল করে ফেটিয়ে নিন। এই মিশ্রণটা মুখে-ঘাড়ে-গলায় মেখে মিনিটদশেক রেখে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন, ত্বক ভিতর থেকে নরম হয়ে উজ্জ্বল হয়ে উঠেছে!

৩. ত্বক পরিষ্কার করতে

pixabay
pixabay

ত্বকের ধুলোময়লা বের করে তাকে ঝকঝকে করে তুলতেও কাঁচা দুধের জুড়ি মেলা ভার! তিন চামচ গোটা মুগ ডাল ভাল করে মিক্সিতে গুঁড়ো করে নিন। এবার কাঁচা দুধের মধ্যে ওই গুঁড়োটা মিশিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করুন। সেটা মুখে কিছুক্ষণ রেখে শুকোতে দিন, তারপর ঘষে-ঘষে তুলে ফেলুন। একইসঙ্গে ত্বক পরিষ্কারও হবে আবার ত্বকে জমে থাকা মরা কোষও সরে যাবে। 

৪. ট্যান দূর করতে কাজে আসে

রোদে পুড়ে ত্বকে কালো ছোপ পড়েছে? এক বাটি কাঁচা দুধে গোটাছয়েক আমন্ড এবং কয়েকটা খেজুর ভিজিয়ে রাখুন সারা রাত। খেজুরের বিচি বের করে নেবেন। এবার সকালে উঠে স্নান করার আগে, এই মিশ্রণটা মিক্সিতে ভাল করে ব্লেন্ড করে নিন। তারপর মুখে-ঘাড়ে-গলায় ভাল করে লাগিয়ে মিনিটপনেরো রেখে ধুয়ে ফেলুন। মাসখানেক করে দেখুন, ট্যান দূরে পালাবে!

৫. ব্রণর ওষুধ হিসেবে অব্যর্থ

pixabay
pixabay

যাঁরা প্রায়ই ব্রণর সমস্যায় ভোগেন, তাঁরা কাঁচা দুধের পাদপদ্মে নিজেদের সঁপে দিন! জোকস অ্যাপার্ট, কাঁচা দুধ ও মুলতানি মাটি দিয়ে তৈরি একটা ফেস প্যাক বলে দেওয়া হল এখানে। সেটি রোজ লাগান, দেখবেন, ব্রণর সমস্যা থেকে কিছুদিনের মধ্যেই মুক্তি পাবেন। কাঁচা দুধ আর মুলতানি মাটি কাদা-কাদা করে গুলে নিন। তাতে কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে এই মিশ্রণটি সারা মুখে, বিশেষত যেখানে-যেখানে ব্রণ হয়েছে, সেখানে থুপে-থুপে লাগান। শুনতে নিরীহ হলেও, এই প্যাকটি খুবই উপকারী।

৬. ন্যাচারাল সানস্ক্রিন হিসেবে

আমরা যাঁরা নিয়মিত রোদে বেরোই, তাঁদের ভাল সানস্ক্রিনের খুবই প্রয়োজন। আর এই কাজে সাহায্য করতে পারে কাঁচা দুধ। রোদে বেরনোর আগে এবং রোদ থেকে ফিরে মুখে কাঁচা দুধ আর টক দইয়ের পেস্ট লাগান। এতে রোদে পোড়া ভাব তৎক্ষণাৎ পালাবে!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!