মহিলা ঢাকি ও পুরোহিতদের যোগ্য মর্যাদা দিতে তৈরি হল মঞ্চ 'বাংলার দুগ্গা'

মহিলা ঢাকি ও পুরোহিতদের যোগ্য মর্যাদা দিতে তৈরি হল মঞ্চ 'বাংলার  দুগ্গা'

অনেকদিন ধরেই এই প্রচেষ্টা চলছিল। অবশেষে পুরো বিষয়টি বাস্তবায়িত হল। বেশ কিছুদিন ধরেই দেখা যাচ্ছিল যে বিয়ে এবং অন্যান্য অনুষ্ঠানে পুরোহিতের ভূমিকায় মহিলাদের সংখ্যা বাড়ছে। অনেকেই নিজের মেয়ে বা ছেলের বিয়ে পুরোহিতদের (priests) দিয়ে করাচ্ছেন। বিভিন্ন পুজো কমিটিও আস্তে আস্তে সেই দিকে পা বাড়িয়ে দুর্গা পুজোর সময় মহিলা পুরোহিতদের আমন্ত্রণ জানাচ্ছেন। অবশ্য এই নিয়ে বিতর্কের ঝড়ও কম হয়নি। সনাতনী পুরোহিত মহল বলেছেন মেয়েরা পুজো করলে অমঙ্গল হয়। অথচ যুগ যুগ ধরে বাড়ির নিত্যপুজো থেকে শুরু করে লক্ষ্মীপুজো পর্যন্ত সব কিছু বাড়ির মহিলারাই করে এসেছেন। পুজোর সময় যাবতীয় যোগাড়যন্ত্রও মহিলারাই করেন। কলকাতার কিছু কিছু জায়গায় পৌরোহিত্য করতে ইচ্ছুক এরকম মহিলাদের প্রশিক্ষণও দেওয়া হচ্ছে। মহিলারা পুজো করলে অমঙ্গল হয় এই ধারণা নস্যাত করে দিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের মহিলা সংগঠনের নেত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। মূলত তাঁর উদ্যোগেই তৈরি হল একটি অরাজনৈতিক মঞ্চ, যার নাম 'বাংলার দুগ্গা'। শ্রীমতী ভট্টাচার্য বলেন, "মেয়েরা পুজো করলে বরং আরও মঙ্গল হয়, কোনও খারাপ কিছু হয়না। এগুলো সব ভুল ধারণা।" রোটারি সদনে শহরের মহিলা পরিচালিত ২৫টি পুজো কমিটি এই মঞ্চে যোগদান করেছে। শুধু মহিলা পুরোহিত নয় এখানে যোগ্য সম্মান পাবেন মহিলা ঢাকিরাও (drummers)। এতদিন আমরা পুরুষদেরই ঢাক বাজাতে দেখে এসেছি পুজোর সময়। আমাদের মনে এই ধারণা বদ্ধমূল হয়ে গেছে যে ঢাক নামক এই বাদ্যযন্ত্র শুধু পুরুষরাই বাজাতে পারেন। কারণ এটি ওজনে ভারী, তাই মহিলারা এটা কাঁধে তুলতে পারবেন না। আর যদিও বা তুলে নেন তাহলে বেশিক্ষণ ধরে রাখা সম্ভব।সেইজন্য মূল ঢাকি (dhaki) বৃদ্ধ হয়ে গেলে তাঁর ঢাক কাঁধে তুলে নেয় তাঁর ছেলে, ভাইপো, নাতি বা কোনও পুরুষ সদস্য। 

 

delhifundos

অথচ গত দুই বছরে দুর্গা পুজোর সময় দেখা গেছে ছিপছিপে চেহারার তরুণী ঢাকিরা দিব্যি ঢাক কাঁধে তুলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বাজাচ্ছেন। শ্রোতাদের প্রশংসাও পাচ্ছেন ঝুড়ি ভর্তি করে। আর এই বিষয়টিকে আরও বেশি আলোকিত করতে চান চন্দ্রিমা। পুজো করা বা ঢাক বাজানো কোনও লিঙ্গভিত্তিক কাজ নয়। এটা যে কেউ করতে পারে। আর তাই যে কেউ স্বেচ্ছায় এই মঞ্চে যোগ দিতে পারে। যোগ দিতে পারেন মহিলা পরিচালিত অন্যান্য পুজো কমিটিও। পুজোর সময় মহিলারা পরিচালিত কমিটিগুলি নানারকম সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন। আলোচনা করা হয় সেই সমস্যাগুলো নিয়েও। পুজোর মাত্র দুই সপ্তাহ আগে এই উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয় এবং সাধুবাদ পাওয়ার যোগ্য বলে মনে করছেন অনেকেই। 

Featured Image: durgapujaakolkata, kaahon

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...