বেবি অয়েল যে আপনার বিউটি রুটিনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠতে পারে, তা জানতেন কি?

বেবি অয়েল যে আপনার বিউটি রুটিনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠতে পারে, তা জানতেন কি?

বেবি অয়েল, মানে, সোজা বাংলায় বলতে গেলে বাচ্চাদের গায়ে মাখানোর তেল, যেটার গন্ধ নাকে এলেই বেশ একটি গাবদুগুবদু, আদুরে বাচ্চার ছবি চোখের সামনে ভেসে ওঠে! কিন্তু বেবি ওয়েল বস্তুটি বেবিদের জন্য তৈরি হলেও, এটি বেবির মা-মাসি-পিসি-কাকিমাদেরও দারুণ কাজে আসতে পারে। ইন ফ্যাক্ট, এই ধরনের তেল (baby oil) আপনার রোজকার বিউটি রুটিনের (beauty benefits) অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হয়ে উঠতে পারে অনায়াসে! ত্বক চর্চার নানা কাজে কীভাবে বেবি অয়েল ব্যবহার করে আপনি এক ঢিলে অনেকগুলি পাখি মারতে পারেন, তা নিয়েই আজ আলোচনা করা হল এই প্রতিবেদনে।

 

 

১. ময়শ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করুন

আসলে বেবি অয়েল খুব হালকা এবং শিশুদের ব্যবহার উপযোগী করে তৈরি করা হয় বলে এটির কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। এতে ক্ষতিকারক কেমিক্য়ালের উপস্থিতিও প্রায় নেই বললেই চলে। তাই বেবি অয়েল যে-কোনও ধরনের ত্বকের জন্যই মানানসই। আপনি এটিকে ব্যবহার করতে পারেন ময়শ্চারাইজার হিসেবে। এটি হালকা বলে সহজেই ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে ত্বককে ভিতর থেকে পুষ্টি জোগায় আর আপনাকে করে তোলে উজ্জ্বল। আপনার ত্বক যদি দীর্ঘদিনের অযত্ন রুক্ষ-বিবর্ণ হয়ে গিয়ে থাকে, তা হলে কিছুদিন বেবি অয়েল ব্যবহার করে দেখুন, উপকার পাবেন। যাঁদের ত্বক তেলতেল, তাঁরা কিছুক্ষণ এই তেলটি মুখে মেখে রেখে তারপর ভেজা তুলোর বল দিয়ে আলতো হাতে মুছে নেবেন।

POPxo Recommends: Baby Dove Rich Moisture Baby Massage Oil

২. মেকআপ রিমুভার হিসেবে অসাধারণ

Shutterstock

দামি মেকআপ রিমুভার কিনে পয়সা খরচ করার কোনও অর্থ হয় না, যদি আপনার বাড়িতে বেবি অয়েল থাকে! একটি তুলোর বলে এটি পর্যাপ্ত পরিমাণে নিয়ে মেকআপ তুলে ফেলুন সযত্নে। এটি মেকআপ তোলার সঙ্গে-সঙ্গে ত্বককে পুষ্টিও জোগায়, যেটা অন্য কোনও মেকআপ রিমুভারের পক্ষে সম্ভব নয়। তবে এক-এক জায়গার মেকআপ আলাদা-আলাদা তুলোর বল দিয়ে তুলবেন, তা হলে ঘেঁটে যাওয়ার আশঙ্কা থাকবে না।

POPxo Recommends: Johnson's Baby Oil with Vitamin E

৩. ফাটা গোড়ালির জন্য অব্যর্থ

শীতকাল ছেড়ে দিন, সারা বছরই কি আপনার ফাটা গোড়ালি আপনাকে জ্বালায়? পায়ের তলাটি নিয়ে কি আপনি যারপরনাই চিন্তিত? তা হলে বেবি অয়েলের উপর নিশ্চিন্তে ভরসা করুন। দিনে দু বার ফাটা গোড়ালি এই ধরনের তেল দিয়ে মালিশ করুন। তেলটা একটু গরম করে নিতে পারলে আরও ভাল হয়। তারপর ঘণ্টাখানেক অন্তত মোজা পরে থাকুন। দেখবেন, গোড়ালি নরম হতে সময় লাগবে না।

POPxo Recommends: Mee Mee Baby Oil with Fruit Extracts

৪. পোস্ট হেয়ার রিমুভাল কেয়ারের জন্য

আপনি কি বাড়িতেই শেভার কিংবা হেয়ার রিমুভিং ক্রিমের সাহায্যে লোম তোলেন? তা হলে তো বেবি অয়েল হাতের কাছে রাখতেই হবে লোম তোলার পর ত্বকের যত্ন নেওয়ার জন্য। লোম তোলার পর ত্বক খসখসে হয়ে যায়, সাধারণ ময়শ্চারাইজার কিংবা বডি লোশনের তুলনায় এই সময় অল্প গরম বেবি অয়েলের মালিশ ঢের বেশি উপকারী। 

৫. ডার্ক সার্কল দূর করতে কাজে আসে

চোখের তলায় ডার্ক সার্কল হয়েছে? রাতে শোওয়ার আগে দু-তিন ফোঁটা বেবি অয়েল চোখের চারপাশে হালকা হাতে মালিশ করে ঘুমোতে যান। দেখবেন, ডার্ক সার্কল তো দূর হয়েইছে, উলটে ভাল ঘুমও হচ্ছে!

৬. লিপ স্ক্রাব তৈরি করুন

Shutterstock

ফাটা, চামড়া ওঠার ঠোঁটের সমস্যায় ভুগলে বেবি অয়েল আপনার বেস্ট ফ্রেন্ড হওয়া উচিত! কয়েকফোঁটা বেবি অয়লে অল্প বড় দানার চিনি আর গোলাপ জল দিয়ে লিপ স্ক্রাব তৈরি করুন। তা দিয়ে ঠোঁটের মরা চামড়া তুলে ফেলুন। এর সুবিধে হল, বেবি অয়েল এই লিপ স্ক্রাবের বেস, তার মরা চামড়া উঠিয়ে ফেলার সঙ্গে-সঙ্গে এটি আপনার ঠোঁট নরম, তুলতুলেও করে দেবে।

৭. এটি দিয়ে আই ব্রো জেল তৈরি করুন

কয়েকফোঁটা বেবি অয়েলে মিশিয়ে নিন আপনার আই ব্রো রংয়ের শ্যাডো। এবার আই ব্রো ব্রাশে এটি নিয়ে এঁকে নিন আপনার ভুরু জোড়া। দেখবেন, সাধারণ আই ব্রো পেনসিলের রেখার তুলনায় ঢের বেশি দেখতে ভাল হবে এটি। আর তেলে চুবোনো থাকবে বলে আই ব্রো ব্রাশটিও সহজেই পরিষ্কার করতে পারবেন।

৮. রুক্ষ, শুষ্ক চুল এক নিমেষেই হবে জেল্লাদার!

চুলে তেল মালিশ করেন নিশ্চয়ই? সাধারণ তেলের পরিবর্তে বেবি অয়েল দিয়ে মালিশ করুন। এটি স্বাভাবিক কন্ডিশনার হিসেবে কাজ করবে। যাঁরা লিভ অন কন্ডিশনার ব্যবহার করেন, তাঁরা সেটির পরিবর্তে লাগাতে পারেন হালকা যে-কোনও বেবি অয়েল!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!