উজ্জ্বল ত্বক আর রেশমের মতো চুল চাই? আজ থেকেই ব্যবহার করুন জোজোবা অয়েল

 উজ্জ্বল ত্বক আর রেশমের মতো চুল চাই? আজ থেকেই ব্যবহার করুন জোজোবা অয়েল

তেলে চুল তাজা! এটা শুনেছেন নিশ্চয়ই। কথাটা সত্যি। অর্ধেক সত্যি। কারণ কিছু তেল আছে যেগুলো শুধু চুল নয় তাজা রাখে ত্বকও। মানে ওই অনেকটা এক ঢিলে দুই পাখি মারার মতো ব্যাপার আর কী। সেরকমই একটি তেলের গুণপনার কথা আজ বলব। জোজোবা অয়েল (oil)। নামটা হয়তো খুব একটা অচেনা নয়। কারণ এই নামটা আপনি বিভিন্ন জায়গায় শুনেছেন। জোজোবা (jojoba) গাছ থেকে এই তেল পাওয়া যায়। এই গাছের তেলে আছে দরকারি ফ্যাটি অ্যাসিড। তাই ত্বক (skin) এবং চুল (hair) দুটোর যত্নেই (care) কাজ দেয় এই তেল। দেখে নেব এই তেলের কিছু আশ্চর্য গুণ। 

To Buy Click Here 

ত্বকের যত্নে কীভাবে কাজে দেয় জোজোবা অয়েল

অ্যাকনে বা ব্রণ দূর করে

যে কোনও ফেসপ্যাকে যদি আপনি কয়েক ফোঁটা জোজোবা তেল মিশিয়ে নেন, তাহলে অ্যাকনে অনেক কম হবে। শুধু তাই নয় অ্যাকনের পর ত্বকে যে দাগ হয় সেটাও ধীরে ধীরে মিলিয়ে যাবে। এই তেলে আছে অ্যান্টি ইনফ্লেমেটারি ও অ্যান্টি ব্যাকটিরিয়াল উপাদান। অর্থাৎ যে কোনও রকমের জ্বালা বা সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে এই তেল। সরাসরিও এই তেল ত্বকের জন্য আপনি ব্যবহার করতে পারেন। কারণ ত্বক খুব দ্রুত এই তেল শুষে নেয় আর জোজোবা অয়েল ত্বকের ছিদ্র বন্ধ করে না। তাই ত্বকের আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনতে অর্থাৎ ময়েশ্চারাইজার হিসেবেও ব্যবহার করা যায়। 

ছত্রাক জনিত সংক্রমণ দূর করে

এই তেলে আছে অ্যান্টি ফাঙ্গাল উপাদান তাই ছত্রাক জনিত যে কোনও সমস্যা দূর করে এই তেল। বিশেষ করে বর্ষাকালে হাতে বা পায়ে এইরকম কোনও ছত্রাক জনিত সংক্রমণ হলে এই তেল অনায়াসে ব্যবহার করতে পারেন। 

এজিং প্রসেস নিয়ন্ত্রণ করে

বয়স হলে ত্বক ধীরে ধীরে শুষ্ক হতে শুরু করে। যদি নিয়মিত এই তেল আপনি মাখেন তাহলে এজিং প্রসেস অনেক ধীর গতির হয়ে যাবে। বলিরেখা কম পড়বে এবং ত্বকে আর্দ্রতা বজায় থাকবে। 

দারুণ একটি মেকআপ রিমুভার

মেকআপ কী দিয়ে তুলবেন এই ভেবে হয়রান হচ্ছেন? বাড়িতে এক শিশি জোজোবা অয়েল রাখুন। এটা দিয়েই মেকআপ তুলুন। এতে ত্বক একদম পরিষ্কার হয়ে যাবে এবং পুষ্টিও পাবে। 

চোখের পাতা ঘন করে ও লিপ বাম হিসেবে কাজ করে

pixabay

যেহেতু এই তেল আর্দ্রতা যোগায় তাই ফাটা ঠোঁটে এটি দারুণ সুন্দর কাজ করে। তাই মাঝে মাঝে আঙুলের ডগায় এই তেল নিয়ে ঠোঁটে লাগাতেই পারেন। একই ভাবে লাগাতে পারেন ভুরু আর চোখের আইল্যাশেও। কারণ এটি একটি হেয়ারগ্রোথ অয়েল তাই ভুরু বা আইল্যাশে চুল কম থাকলে সেই সমস্যা দূর হবে। 

চুলের যত্নে জোজোবা অয়েল

pixabay

এই তেল চুল ও স্ক্যাল্পে মাসাজ করলে চুলের বৃদ্ধি ঘটে। যেহেতু এই তেল আর্দ্রতা যোগায় তাই চুলের শুষ্কতা দূর হয় এবং চুলে আর্দ্রতা বজায় থাকে। সেইজন্য এই তেল শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার হিসেবেও কাজ করে। আর্দ্রতা যোগায় বলেই এটি স্ক্যাল্প শুষ্ক হতে দেয়না এবং খুসকি দূর করে। এর মধ্যে আছে ভিটামিন ই, যা চুলের স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল।  

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!
আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!