ত্বক পরিচর্যায় চালের আটা কীভাবে কাজে লাগে? এর উপকারিতা এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াই বা কী?

ত্বক পরিচর্যায় চালের আটা কীভাবে কাজে লাগে? এর উপকারিতা এবং পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াই বা কী?

কখন, কোন জিনিস, কীভাবে কাজে লেগে যায়, কেই বা বলতে পারে বলুন? ধরুন, কোনও খাওয়ার জিনিস আপনি ত্বক বা চুল পরিচর্যার কাজে লাগাতে পারেন। আবার রকমারি রেসিপি তৈরি করে খেতেও কোনও বাধা নেই। রাইস ফ্লাওয়ার কিংবা চালেট আটাও তেমনই একটি উপাদান। যা আপনি খেলেও যেমন উপকার, তেমনই ত্বক বা চুলের পরিচর্চার কাজেও লাগে। কিন্তু কোন ত্বকের জন্য রাইস ফ্লাওয়ারের সঙ্গে কী কী মিশিয়ে প্যাক তৈরি করলে ভাল বা রাইস ফ্লাওয়ারের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া রয়েছে কিনা, তা জানা আছে? এই প্রতিবেদনে চালের আটার সেই দিকগুলি তুলে ধরার চেষ্টা করা হল। আপনার প্রতিদিনের রুটিনে ব্যবহার করতে পারেন। ফল পাবেন হাতেনাতে। তাহলে আর দেরি কীসের? আজ থেকেই শুরু করে দিতে পারেন অনায়াসে।

Table of Contents

    রাইস ফ্লাওয়ার কী? (What Is Rice Flour?)

    রাইস ফ্লাওয়ার (Rice Flour) আসলে চালের গুঁড়ো থেকে তৈরি হওয়া ময়দা বিশেষ। গম থেকে যে ময়দা তৈরি হয়, তার খুব সহজ বিকল্প এটি। হোয়াইট এবং ব্রাউন দু’রকমের চাল থেকেই এটি তৈরি হয়। চিন, জাপানের মতো বিভিন্ন দেশে এর বহুল ব্যবহার হয়। বিভিন্ন দেশে একে বিভিন্ন নামেও ডাকা হয়।

    রাইস ফ্লাওয়ারের উপকারিতা (Benefits of Rice Flour)

    ১| রাইস ফ্লাওয়ার ত্বকের (skin) জন্য খুবই উপকারি। প্রাকৃতিক সানস্ক্রিনের কাজ করে। সানবার্ন অর্থাৎ ত্বকের পুড়ে যাওয়া আটকাতে এর জুরি মেলা ভার।

    ২| চোখের তলার কালো দাগ অর্থাৎ ডার্ক সার্কল দূর করে রাইস ফ্লাওয়ার। কলা, কাস্টার্ড অয়েল দিয়ে একটি ঘন পেস্ট তৈরি করুন। সেখানে ব্যবহার করুন রাইস ফ্লাওয়ার।

    ৩| রাইস ফ্লাওয়ার দিয়ে ঘরোয়া পদ্ধতিতে ভাল স্ক্রাবার তৈরি করতে পারেন। খুব সহজেই এটি ত্বকের মরা কোষ তুলে ফেলতে সাহায্য করে।

    ৪| রাইস ফ্লাওয়ারের মধ্যে থাকা নিউট্রিশন এবং মিনারেলের সাহায্যে ত্বককে উজ্জ্বল করা বহু প্রাচীন পদ্ধতি। আপনিও ট্রাই করতে পারেন।

    ৫| রাইস ফ্লাওয়ারের মধ্যে থাকে অ্যামিনো অ্যাসিড এবং ভিটামিন। যা ত্বককে সুস্থ এবং সুন্দর রাখতে সাহায্য করে।

    ৬| আপনি নিশ্চয়ই ফেস পাউডার ব্যবহার করেন? সেটার দাম যদি খুব বেশি হয়, তাহলে রাইস ফ্লাওয়ার দিয়ে সহজেই  তৈরি করে নিতে পারবেন ফেসপাউডার। যার দাম থাকবে সাধ্যের মধ্যে।

    ৭| ব্রণর সমস্যায় যদি আপনি জেরবার হয়ে থাকেন, তাহলে অন্তত একবার রাইস ফ্লাওয়ার ত্বকে ব্যবহার করতে পারেন। ব্রণর সমস্যায় ম্যাজিকের মতো কাজ হয়।

    ৮| ত্বকে যদি বলিরেখার সমস্যা থাকে রাইস ফ্লাওয়ারে তৈরি ফেসপ্যাক আপনার জন্য এনে দিতে পারে সহজ সমাধান।

    ৯| কোঁকরা চুল অনেকেরই ভাল লাগে। অনেকে আবার এই সমস্যায় জেরবার হন। সেক্ষেত্রে রাইস ফ্লাওয়ার চুলে ব্যবহার করতে পারেন। ফল পাবেন হাতেনাতে।

    ১০| ত্বক বা চুল, দুই ক্ষেত্রেই প্রাকৃতিক টোনারের কাজ করে রাইস ফ্লাওয়ার।

    রাইস ফ্লাওয়ার দিয়ে তৈরি বিভিন্ন প্যাক (DIY Rice Flour Face Pack)

    রাইস ফ্লাওয়ার ত্বকের নারিশমেন্টের জন্য খুব উপকারি একটি উপাদান। এর মাধ্যমে তৈরি নানারকম ফেস প্যাক (pack) ব্যবহার করে ত্বককে সুন্দর করে তুলতে পারেন অনায়াসে।

    Shutterstock

    ১| রাইস ফ্লাওয়ার এবং চকোলেট (Rice Flour and Chocolate Exfoliating Mask)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, ডার্ক চকোলেট পাউডার, মধু, চিনি। 

    পদ্ধতি: একটি পাত্রে সমস্ত উপাদান মিশিয়ে ত্বকের যে কোনও অংশে লাগাতে পারেন। তোলার সময় হালকা ঘষে নেবেন। বিশেষত ত্বকের যে সব অংশের কালো দাগ দূর করা প্রয়োজন, সেখানে ব্যবহার করন।

    কোন ত্বকে আদর্শ: ন্যাচারাল স্কিনের জন্য আদর্শ।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে তিনবার ব্যবহার করুন।

    ২| রাইস ফ্লাওয়ার এবং দই (Rice Flour and Curd Face Mask)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার এবং দই। 

    পদ্ধতি: রাইস ফ্লাওয়ার এবং দই একটি পাত্রে মিশিয়ে পাঁচ মিনিট রেখে দিন। তার পর মুখে লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে স্ক্রাব করে তুলে ফেলুন। দইয়ের মধ্যে থাকা ল্যাকটিক অ্যাসিড ত্বকের পোড়াভাব দূর করবে।

    কোন ত্বকে আদর্শ: সব রকম ত্বকে ব্যবহার করা যায় এই ফেসপ্যাক।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: ত্বকে বেশি কালো দাগ থাকলে সপ্তাহে চারদিন ব্যবহার করুন। তা না বলে সপ্তাহে দু’দিন ব্যবহার করতে পারেন।

    ৩| রাইস ফ্লাওয়ার এবং শশা (Rice Flour and Cucumber Face Pack)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, লেবু এবং শশা।

    পদ্ধতি: রাইস ফ্লাওয়ারের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে নিন। সঙ্গে যোগ করুন শশার জল। এই পেস্ট ফেসপ্যাক হিসেবে ব্যবহার করুন। ত্বকে মেচেতার দাগ থাকলে তা দূর হবে অনায়াসে।

    কোন ত্বকে আদর্শ: সব ধরনের ত্বকের ক্ষেত্রে এই প্যাক ব্যবহার করা যেতে পারে।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে তিনদিন ব্যবহার করলে তাড়াতাড়ি ফল পাবেন।

    ৪| রাইস ফ্লাওয়ার এবং ছোলা গুঁড়ো (Rice Flour and Gram Flour Face Pack)

    Shutterstock

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, ছোলা গুঁড়ো, লেবু, গোলাপ জল।

    পদ্ধতি: সমস্ত উপাদান আন্দাজ মতো একসঙ্গে নিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। মুখ, গলা ঘাড়ে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। শুকিয়ে গেলে হালকা আঙুলে ঘষে তুলে ফেলুন। অবশ্যই ঠাণ্ডা জলে মুখ ধোবেন। 

    কোন ত্বকে আদর্শ: শুষ্ক ত্বকের জন্য এই ফেসপ্যাক আদর্শ।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে তিন বার ব্যবহার করলে ত্বকের কালো দাগ দ্রুত উঠতে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

    ৫| রাইস ফ্লাওয়ার এবং অ্যালোভেরা (Rice Flour and Aloe Vera Face Pack)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, অ্যালোভেরা, লেবু।

    পদ্ধতি: রাইস ফ্লাওয়ার এবং অ্যালোভেরার সঙ্গে প্রয়োজন মতো লেবুর রস মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। ত্বকের খোলা অংশে ব্যবহার করতে পারেন। ডি-ট্যানের কাজ করবে। সঙ্গে ত্বকে আসবে আলাদা ঔজ্জ্বল্য।

    কোন ত্বকে আদর্শ: যে কোনও ত্বকের ট্যান দূর করতে সাহায্য করবে এই প্যাক।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে চারদিন পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারেন। কারণ রাইস ফ্লাওয়ার এবং অ্যালোভেরা দুটোই ত্বককে ভাল রাখে।

    ৬| রাইস ফ্লাওয়ার, টোম্যাটো পাল্প এবং অ্যালোভেরা (Rice Flour, Tomato Pulp and Aloe Vera Face Pack)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, টোম্যাটো, অ্যালোভেরা

    পদ্ধতি: সমস্ত উপাদান একটা পাত্রে ভাল করে মিশিয়ে নিন। টোম্যাটো চটকে নেবেন। তাহলে আলাদা করে আর জল দেওয়ার প্রয়োদন হবে না। ত্বকের মৃত কোষ তুলে ফেলতে উপকারী এই প্যাক।

    কোন ত্বকে আদর্শ: আপনার অয়েলি স্কিন হলে ট্রাই করুন আজই।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে দু’দিন ব্যবহার করতে পারেন এই প্যাক।

    ৭| রাইস ফ্লাওয়ার, ওটস এবং মধু (Rice Flour, Oats and Honey Mask)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, ওটস, মধু

    পদ্ধতি: ওটস ব্লেন্ড করে নিন। তার সঙ্গে মিশিয়ে নিন ওটস এবং পরিমাণ মতো মধু। সব রকম উপাদান মিশিয়ে ত্বকে অ্যাপ্লাই করুন ১৫ মিনিট। হালকা মাসাজ করে তুলে ফেলুন।

    কোন ত্বকে আদর্শ: সব রকম ত্বকের জন্য আদর্শ। কারণ ত্বকের রোমকূপ খুব সহজে পরিষ্কার হয় এই প্যাকের সাহায্যে।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে তিন দিন ব্যবহার করতে পারেন।

    ৮| রাইস ফ্লাওয়ার, আপেল, কমলালেবু (Rice Flour, Apple and Orange Mix)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, অরেঞ্জ পাল্প, অ্যাপেল পাল্প। 

    পদ্ধতি: সব রকম উপকরণ মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। মুখে লাগিয়ে রাখুন ২০ মিনিট। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নিন। ব্ল্যাক হেডস দূর করতে এটা আদর্শ।

    কোন ত্বকে আদর্শ: তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এই প্যাক খুবই ভাল।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে তিন দিন ব্যবহার করতে পারেন।

    ৯| রাইস ফ্লাওয়ার, গমের আটা এবং মধু (Rice Flour, Wheat Flour and Honey)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, গমের আটা, মধু।

    পদ্ধতি: রাইস ফ্লাওয়ার, গমের আটা, মধু মিশিয়ে নিন। এই প্যাক ত্বকের মৃত কোষ তুলে ফেলে দ্রুত। ত্বককে মোলায়েম রাখতেও সাহায্য করে। 

    কোন ত্বকে আদর্শ: সব রকম ত্বকের জন্য উপকারী এই প্যাক।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে দু’দিন ব্যবহার করতে পারেন এই প্যাক।

    ১০| রাইস ফ্লাওয়ার, গোলাপ জল এবং টিট্রি অয়েল (Rice Flour, Rose Water and Tea Tree Oil)

    উপকরণ: রাইস ফ্লাওয়ার, গোলাপ জল, টিট্রি অয়েল।

    পদ্ধতি: রাইস ফ্লাওয়ারের সঙ্গে টিট্রি অয়েল কয়েক ফোঁটা এবং প্রয়োজন মতো গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। ১০ মিনিট মতো লাগিয়ে রাখলেই ফল পাবেন হাতেনাতে। 

    কোন ত্বকে আদর্শ: সব রকম ত্বকের জন্য উপকারী এই প্যাক।

    সপ্তাহে কতবার ব্যবহার করবেন: সপ্তাহে দু’দিন ব্যবহার করতে পারেন এই প্যাক।

    রাইস ফ্লাওয়ারের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া (Side Effects of Rice Flour)

    Shutterstock

    ১| রাইস ফ্লাওয়ারের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে কার্বোহাইড্রেট থাকে। সেটা আপনার জন্য় ক্ষতিকর হলে এড়িয়ে চলুন।

    ২| রাইস ফ্লাওয়ারের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন বি সিক্স থাকে। সেটা আপনার জন্য় ক্ষতিকর হলে এড়িয়ে চলুন।

    ৩| খাবারে অর্থাৎ কোনও রেসিপিতে রাইস ফ্লাওয়ার ব্যবহার করার আগে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিতে পারেন।

    ৪| রাইস ফ্লাওয়ার লিভার ফাংশন ভাল রাখে। কিন্তু আপনার প্রয়োজন কিনা, সেটা জেনে নিন।

    ৫| রাইস ফ্লাওয়ার ত্বকের জন্য উপকারি। কিন্তু প্রতিদিন ব্যবহার করা উচিত নয়।

    ৬| ত্বকের মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে রাইস ফ্লাওয়ার। তবে আপনার ত্বকের জন্য রাইস ফ্লাওয়ারের কোন প্যাক দরকার সেটা জেনে নিন।

    ৭| রাইস ফ্লাওয়ার চুলের জন্য উপকারী। কিন্তু কোন ধরনের চুলের ক্ষেত্রে এটি প্রয়োজন সেটা জেনে নিতে হবে।

    ৮| বাড়িতে তৈরি করতে পারলে ভাল। নাহলে কিনে নিন রাইস ফ্লাওয়ার। কিন্তু তার কোয়ালিটি দেখে নেবেন।

    রাইস ফ্লাওয়ার নিয়ে সাধারণ কিছু প্রশ্নোত্তর (FAQs)

    Shutterstock

    রাইস ফ্লাওয়ার নিয়ে সাধারণ কিছু প্রশ্নোত্তর এবার দেখে নেওয়া যাক।

    ১| প্রশ্ন: রাইস ফ্লাওয়ার কি প্রতিদিন মুখে মাখা উচিত?

    উত্তর: রাইস ফ্লাওয়ারের বিভিন্ন ফেসপ্যাক বিভিন্ন ত্বকের জন্য আদর্শ। কিন্তু প্রতিদিন ব্যবহার না করাই ভাল।

    ২| প্রশ্ন: মুখ থেকে রাইস ফ্লাওয়ারের সাহায্যে কীভাবে ট্যান তোলা যায়?

    উত্তর: রাইস ফ্লাওয়ার, ডার্ক চকোলেট পাউডার, মধু, চিনি একটি পাত্রে মিশিয়ে ত্বকের যে কোনও অংশে লাগাতে পারেন। তোলার সময় হালকা ঘষে নেবেন। বিশেষত ত্বকের যে সব অংশের কালো দাগ দূর করা প্রয়োজন, সেখানে ব্যবহার করন।

    ৩| প্রশ্ন: কীভাবে রাইস ফ্লাওয়ার ত্বককে উজ্জ্বল করে?

    উত্তর: রাইস ফ্লাওয়ার এবং অ্যালোভেরার সঙ্গে প্রয়োজন মতো লেবুর রস মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। ত্বকের খোলা অংশে ব্যবহার করতে পারেন। ডি-ট্যানের কাজ করবে। সঙ্গে ত্বকে আসবে আলাদা ঔজ্জ্বল্য।

    ৪| প্রশ্ন: মুখের রোম তুলতে রাইস ফ্লাওয়ার সাহায্য করে?

    উত্তর: রাইস ফ্লাওয়ার ত্বকের ব্ল্যাক হেডস দূর করতে সাহায্য করে।

    ৫| প্রশ্ন: রাইস ফ্লাওয়ার কি ত্বকের জেল্লা বাড়ায়?

    উত্তর: রাইস ফ্লাওয়ার ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় ঠিকই। কিন্তু আপনাকে ব্যবহার করতে হবে নিয়ম মেনে।

    POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

    এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...