লুচি-পরোটা খেতে বেজায় ভালবাসেন? কিন্তু জানেন কি, বেশি পরিমাণে ময়দা খাওয়া উচিত নয় কেন?

লুচি-পরোটা খেতে বেজায় ভালবাসেন? কিন্তু জানেন কি, বেশি পরিমাণে ময়দা খাওয়া উচিত নয় কেন?

গমের আটা দিয়ে তৈরি রুটি-লুচি খান না, তাতে কোনও ক্ষতি নেই! কিন্তু ময়দার দিকে ঝোঁক বাড়লেই মুশকিল। কারণ, ময়দা তৈরির সময় প্রথমেই ভুষিটা বাদ দিয়ে দেওয়া হয়, যা আসলে হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়। সেই সঙ্গে গমে উপস্থিত ফসফরাস, ম্যাগনেসিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ, সেলেনিয়াম, আয়রণ, ভিটামিন এবং ফাইবারের মতো উপকারী উপাদানগুলিও ধ্বংস হয়ে যায়। তাই ময়দা খেলে শরীরে কোনও উপকারই হয় না, বরং নানা ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। কেমন ধরনের ক্ষতি হতে পারে? গম থেকে ময়দা তৈরির সময় এক প্রকার ব্লিচিং প্রক্রিয়ার সাহায্য নেওয়া হয়, যে কারণে ময়দার (Flour) রং এতটা সাদা হয়। এই ব্লিচিং প্রক্রিয়ায় যে সব উপাদানগুলি ব্যবহার করা হয়, সেগুলির বেশিরভাগই শরীরের পক্ষে ক্ষতিকারক। তাই ছোট-বড় নানা সব সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে পারে। যেমন ধরুন...

১. হাড়ের মারাত্মক ক্ষতি হয়

ময়দা তৈরির সময় এমন কিছু প্রক্রিয়ার সাহায্য নেওয়া হয়, যে কারণে ময়দা প্রকৃতিতে অ্যাসিডিক হয়ে যায়। ফলে বেশি ময়দা খেলেই শরীরে এমন কিছু বিক্রিয়া হয়, যার প্রভাবে ক্যালসিয়ামের মাত্রা কমতে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই হাড় দুর্বল হয়ে পড়ে। শুধু তাই নয়, শরীরে Over acidity-এর কারণে প্রদাহের মাত্রা বাড়তে পারে। এমনকী, আর্থ্রাইটিসের মতো রোগের খপ্পরে পড়ার আশঙ্কাও বেড়ে যায়।

২. ওজন বাড়ার আশঙ্কা থাকে

বেশি মাত্রায় ময়দা খাওয়া শুরু করলে শরীরের 'ফ্যাট বার্নিং' প্রক্রিয়া দুর্বল হয়ে পড়ে। সেই সঙ্গে মেটাবলিক রেটও কমে যায়, যে কারণে ওজন বাড়তে শুরু করে। আর ওজন বাড়তে থাকলে উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস এবং হাই কোলেস্টেরলের মতো নানাবিধ রোগ ঘাড়ে চেপে বসার আশঙ্কা থাকে। তাই সময় থাকতে থাকতে সাবধান হওয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ।

৩. হার্টের মারাত্মক ক্ষতি হয়

বেশ কিছু স্টাডিতে দেখা গেছে, ময়দা দিয়ে তৈরি নানা খাবার খাওয়া মাত্র ব্লাড সুগার হঠাৎ করে ওঠা-নামা করতে শুরু করে, যে কারণে শরীরে প্রদাহের মাত্রা বাড়ে। এমন systemic inflammation-এর কারণে হার্টের মারাত্মক ক্ষতি হয়, সেই সঙ্গে 'এল ডি এল' (LDL), অর্থাৎ খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রাও বাড়ে, যে কারণেও নানাবিধ কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বহু গুণে বেড়ে যায়।

৪. ব্রণর প্রকোপ বাড়ে

বলেন কি, ময়দা খেলে ব্রণ হয়, কীভাবে? বেশ কিছু স্টাডিতে একথা প্রমাণিত হয়ে গেছে যে ময়দা দিয়ে তৈরি কোনও খাবার খেলে শরীরে refined carbohydrate-এর মাত্রা বাড়তে শুরু করে, যে কারণে ইনসুলিনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। আর ইনসুলিনের উৎপাদন বাড়লে sebum-এর ক্ষরণ বাড়তে শুরু। ফলে স্বাভাবিকভাবেই এমন ত্বকের রোগের প্রকোপ বাড়ে।

৫. Gluten-এর মতো ক্ষতিকর উপাদানের মাত্রা বাড়ে

বেশি মাত্রায় ময়দা খাওয়া শুরু করলে শরীরে Gluten নামক একটি ক্ষতিকর উপাদানের মাত্রা বাড়তে শুরু করে, যে কারণে ক্ষুদ্রান্ত্রের যেমন ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে, তেমনই ছোট-বড় নানা রোগে ঘাড়ে চেপে বসতে পারে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বেশ কিছু স্টাডি অনুসারে ময়দা খেলে নাকি acid-alkaline এর ভারসাম্যও বিগড়ে যায়। ফলস্বরূপ শরীরের নানা ক্ষতি হয়। তাই সুস্থ থাকতে যদি চান, তাহলে বেশি মাত্রায় ময়দা খাবেন না যেন!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এগুলোও আপনি পড়তে পারেন

গলা বুক জ্বালা কমাতে ট্রাই করুন ঘরোয়া টোটকা

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!