পুজোর বেড়ানো: বুকিং করেননি এখনও? দেখুন, লাস্ট মিনিট ডেস্টিনেশন সাজেশন...

পুজোর বেড়ানো: বুকিং করেননি এখনও? দেখুন, লাস্ট মিনিট ডেস্টিনেশন সাজেশন...

পুজো (Durga Puja) মানেই ছুটি। পুজো মানেই অবকাশ। চারদিনের নিশ্চিন্তির বিরাম। আর তার সঙ্গে যদি আরও চারটে দিনের ছুটি ম্যানেজ করতে পারেন, তা হলেই কেল্লা ফতে। ঠিকই ধরেছেন। পুজোর সময় বহু বাঙালি বেড়াতে যান। কারণ বছরের এই সময়টাতেই মেলে টানা ছুটি। ফলে কলকাতার বাইরে সারা বছরের অক্সিজেন জোগাড় করতেও বেরিয়ে পড়েন অনেকে। ঢাকের আওয়াজের থেকেও জঙ্গলের ঘ্রাণ অনেকেরই বেশি পছন্দের। আপনি হয়তো এই বছরের ট্যুর (Tour) প্ল্যান করে ফেলেছেন। হয়তো আপনার এখনও বাকি। তাই লাস্ট মিনিট সাজেশন হিসেবে কয়েকটি ট্র্যাভেল (Travel) কোম্পানির ট্যুর প্যাকেজের হদিশ থাকল। ইচ্ছে করলে ঘুরে আসতে পারেন।

কুণ্ডু স্পেশ্যাল

১৯৩৩ থেকে কুণ্ডু স্পেশ্যাল ট্যুর অপারেটরের ব্যবসা শুরু করে। বছরের বিভিন্ন সময়ে দেশ ও বিদেশের নানা জায়গায় ট্যুর থাকে এদের। ফোন নম্বর: (91 33 2237 1785, 91 33 2237 6767)

 

রাজস্থান

হাওড়া স্টেশন থেকে ট্রেনে যোধপুর। সেখান থেকে হোটেলে পৌঁছে ফ্রেশ হওয়ার উমেদ ভবন এবং দুর্গ দেখতে নিয়ে যাওয়া হবে পর্যটকদের। 

এরপর বাসে করে নিয়ে যাওয়া হবে জয়সলমীর। আন্দাজ ছ’ ঘণ্টার মধ্যে হোটেলে পৌঁছে লাঞ্চ। তারপর স্যাম স্যান্ড ডিউন পয়েন্ট দেখার প্ল্যান। পরের দিনটাই জয়সলমীরে থেকে আশেপাশে ঘোরানো হবে।

পরের দিন খুব সকালে ব্রেকফাস্ট সেরে বাসে চড়ে যাওয়া হবে মাউন্ট আবু। যাওয়ার পথেই লাঞ্চ করানো হবে। কম, বেশি ১২ ঘণ্টার মধ্যে সকলে পৌঁছে যাবেন গন্তব্যে। পরের দিন দেখানো হবে দিলওয়ারা টেম্পল, নাক্কি লেক এবং সানসেট পয়েন্ট।

পরের দিন সকালে বাসে চড়ে উদয়পুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন পর্যটকরা। পথে পড়বে হলদিঘাটি। লেট লাঞ্চ সেরে ফিরতে হবে হোটেলে। পরের দিন দেখানো হবে সিটি প্যালেস, মোটি মাগরি এবং সাহিলি কি বারি। 

তার পরের দিন বাসে করে যাওয়া হবে পুষ্কর। পথে পড়বে চিতোর গড়। প্রায় ১২ ঘণ্টার জার্নি। তার পরের দিন দেখানো হবে মইনুদ্দিন চিস্তির দরগা। 

নেক্সট ডে আপনার জন্য থাকবে সাইট সিয়িংয়ের ব্যবস্থা। হাওয়া মহল, সিটি প্যালেস, অম্বর ফোর্ট, যন্তরমন্তর দেখানো হবে। লাঞ্চের পর সেখান থেকেই শিয়ালদহের ট্রেন ধরবে। ১৪ দিনের দিন বাড়ি পৌঁছে যাবেন। 

পুজোর সময় এই ১৪ দিনের প্যাকেজের জন্য মাথাপিছু খরচ ২২,৯৯৫ টাকা। 

কিন্নর-কল্পা

Instagram

হাওড়া থেকে ট্রেনে যাওয়া হবে চণ্ডীগড়। সেখান থেকে বাসে নিয়ে যাওয়া হবে শিমলা। 

পরের দিন শিমলা থেকে বাসে করে যাওয়া হবে সারাহান। দেখানো হবে ভীমকালী মন্দির। স্থানীয়দের মধ্যে এই মন্দির পরিচিত কালী কা টিব্বা নামে। 

সারহান থেকে ব্রেকফার্স্ট সেকে নিয়ে বেরনো হবে সাংলা উদ্দেশ্যে। কমপক্ষে পাঁচ ঘণ্টা যেতে হবে পাহাড়ি পথে।

পরের দিন সাইট সিইংয়ের ব্যবস্থা থাকবে। পাশাপাশি নিয়ে যাওয়া হবে ছিটকুল। 

পরের দিন যাওয়া হবে কল্পা। পথে পড়বে রেকংপিও। তারপরের দিন ব্রেকফাস্টের পর বেরিয়ে পড়া হবে শিমলার উদ্দেশ্যে। সেই রাতটা থাকতে হবে রামপুরে। তারপরের দিন চণ্ডীগড় ফিরে হাওড়া ফেরার জন্য ধরতে হবে কালকা মেল।  

পুজোর সময় এই প্যাকেজের জন্য মাথাপিছু খরচ ২০,৮৯৫ টাকা। 

আন্দামান

Instagram

বিমানে পোর্ট ব্লেয়ার পৌঁছনোর পর হোটেলে বিশ্রাম নিয়ে প্রথম দিন রাতেই আপনি দেখতে পাবেন লাইট অ্যান্ড সাউন্ড শো।

পরের দিন গন্তব্য হ্যাভলক পয়েন্ট। সেদিনই ফের ফিরে আসা হবে পোর্ট ব্লেয়ারে। ওই দিন লাঞ্চে অতিথিদের দেওয়া হবে স্থানীয় খাবার।

পরের দিন দেখানো হবে জলিবয় এবং রেডস্কিন আইল্যান্ড। এর পরের দিন সম্পূর্ণ বিশ্রাম।

পঞ্চম দিনে ভোর সাড়ে তিনটেয় রওনা দিয়ে আপনি পৌঁছবেন বারাতং আইল্যান্ডে। এটা আদিবাসীদের থাকার জায়গা। 

ষষ্ঠ দিনে সেলুলার জেল, অ্যানথ্রোপলজি মিউজিয়াম, মুন্ডা পাহাড় বিচের মতো জায়গা ঘোরানো হবে। 

সপ্তম দিনে কলকাতায় ফেরার বিমান ধরবেন আপনি।

পুজোর সময় এই সাতদিনের প্যাকেজের জন্য মাথাপিছু খরচ ১৯,৯৯৫ টাকা।

মুসাফির

এই সংস্থা চলতি পুজোয় দু’টি জায়গার প্যাকেজের ব্যবস্থা করেছে। প্রয়োজন এবং পছন্দমতো বেছে নিতে পারেন আপনারটি। ফোন নম্বর (9831962051)।

নর্থ সিকিম

Instagram

নর্থ সিকিম ট্যুরে গ্যাংটক, লাচেন, লাচুং, গুরুদম্বার, ইয়ামথাং, জিরো পয়েন্ট দেখিয়ে অতিথিদের ফের নিয়ে আসা হবে গ্যাংটকে। সেখান থেকে পেলিং এবং বরংয়ের সাইড সিন করানো হবে। সাতদিনের ট্যুরে মাথাপিছু খরচ ২২ হাজার টাকা। তবে পুরো ট্যুর আপনার পছন্দমতো কাস্টমাইজড করে দেবেন মুসাফির কর্তৃপক্ষ।

রাবাংলা, বরং

Instagram

চারদিনের এই ট্যুরে মাথা পিছু খরচ পড়বে ১৫ হাজার টাকার মতো। এই দুই ক্ষেত্রেই হোটেল, ব্রেকফার্স্ট, লাঞ্চ, স্যাক্স, ডিনার এবং গাড়ি প্যাকেজের মধ্যেই পড়বে। তবে সংখ্যায় বেশি লোক হলে সব সময়ই খরচ কমে। তাই মুসাফির কাস্টমাইজড ট্যুর অপারেট করতেই পছন্দ করে। 

পিলগ্রিম প্যাকেজেস

পুজো বুকিং শুরু হয়েছে অনেকদিন আগেই। আপনার এখনও না হলে আজই যোগাযোগ করুন। 

তিরুপতি

Instagram

এই ট্রাভেল কোম্পানির সঙ্গে গেলে তিরুপতি দর্শন হবেই বলে সংস্থার ওয়েবসাইটে দাবি করেন কর্তৃপক্ষ। দর্শনার্থীদের নিজস্ব রুম, বাসে করে যাতায়াত ছাড়াও প্যাকেজে থাকে ব্রেকফার্স্ট এবং ডিনার। কোন জায়গা থেকে যাচ্ছেন তার উপর খরচ নির্ভর করবে। তবে মাথাপিছু জায়গা বিশেষে ২,০০০ টাকা থেকে শুরু করে চার হাজার টাকার মধ্যে খরচ থাকে।

রামেশ্বরম

Instagram

রামেশ্বরম মন্দির দর্শনও এই ট্রাভেল কোম্পানির সঙ্গে গেলে নিশ্চিত বলে দাবি করা হয়েছে। কোথা থেকে যাচ্ছেন খরচ নির্ভর করবে তার উপর। তবে সাড়ে তিন থেকে চার হাজার টাকা মাথাপিছু ধরে প্ল্যান করতে পারেন।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!