মাসের শেষে টাকা বাঁচানোর সাতটি প্র্যাকটিক্যাল টিপস in bengali | POPxo

মাসের শেষে টাকা বাঁচানোর সাতটি প্র্যাকটিক্যাল টিপস, এবার থেকে মাসের শেষেও পকেট থাকবে গরম!

মাসের শেষে টাকা বাঁচানোর সাতটি প্র্যাকটিক্যাল টিপস, এবার থেকে মাসের শেষেও পকেট থাকবে গরম!

মাসের শেষে (month end) যখন পকেট হাতড়াই, দেখি পকেট গড়ের মাঠ আর ভাবতে বসি যে আমার কষ্টের টাকা (money) গেল কোথায়, বিশ্বাস করুন, কোনও সদুত্তর পাই না! বুঝতেই পারি না যে, মাসের মাইনেটা (salary) যায় কোথায়! এরকম অবস্থা যে শুধু আমার একার তা কিন্তু নয়, এরকম পরিস্থিতি মোটামুটি সব মধ্যবিত্তেরই। তবে একটা ভাল খবর আছে যে আমি শেষ পর্যন্ত কিছুটা হলেও টাকা বাঁচিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছি, তাই ভাবলাম আপনাদের সঙ্গেও সেই টিপস ভাগ করে নিই!

মাসের শেষে কীভাবে একটু হলেও টাকা বাঁচাবেন – রইল কয়েকটি প্রাক্টিক্যাল টিপস

১। মাসের শুরুতে যখন মাইনেটা (salary) আপনার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢুকবে, তখন সেখান থেকে কিছুটা অংশ আলাদা করে সরিয়ে রাখুন, খরচ করবেন না সেটা। প্রয়োজনে আলাদা একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন অথবা ছোটবেলার মতো পিগি ব্যাঙ্কেও টাকা রাখতে পারেন।

২। দরকার হলে আপনার স্মার্টফোনে ‘ক্যাশ সেভিং অ্যাপ’ ডাউনলোড করতে পারেন। Money Manager বা  Crownit বেশ ভাল অ্যাপ, এখানে আপনি টাকা (money) বাঁচানোর নানা উপায় সম্বন্ধে যেমন জানতে পারবেন তেমনই পাবেন ক্যাশব্যাক, যাতে আপনার কিছুটা হলেও টাকা পকেটে থাকবে!

৩। একটা ছোট ডায়েরিতে প্রতিদিনের খরচের একটা হিসেব লিখে রাখুন। প্রথমদিকে হয়তো ইচ্ছে করবে না বা ভুলে যাবেন অথবা আলসেমি লাগতে পারে। তবে খরচের হিসেব রাখার অভ্যাস করলে কিন্তু আপনারই সুবিধে। অন্তত আপনি জান, যাতে পারবেন যে কবে আপনি কী খরচ করেছেন এবং তার মধ্যে কোনগুলো না করলেও চলত!

শাটারস্টক
শাটারস্টক

৪। একটা লক্ষ্য স্থির করুন যে আপনি মাসে এত টাকা জমাবেন এবং অমুক কারণে জমাবেন। ধরুন, আপনি বেড়াতে ভালবাসেন এবং বছরে অন্তত একবার বড় ট্যুরে যেতে চান। কিন্তু এমন কপাল যে মাসের শেষে (month end) গিয়ে দেখেন যে পকেট ফাঁকা, তাতে নেই টাকা! এখন আপনি যদি প্রতি মাসেই একটু-একটু করে টাকা বাঁচিয়ে রাখেন, তা হলে দেখবেন, বছরে একবার বড় ট্যুরে যাওয়ার খরচ কিন্তু উঠে আসবে সেখান থেকেই! আবার ধরুন আপনি অনেকদিন ধরেই একটা ভাল ডিএসএলআর ক্যামেরা বা ম্যাকবুক কিনতে চাইছেন, অল্প অল্প করে টাকা জমাতে শুরু করুন এবং লক্ষ্য স্থির করুন যে এতদিনের মধ্যে আপনি ক্যামেরা বা ল্যাপটপ কিনবেন, দেখবেন নিজেই টাকা বাঁচাতে পারছেন!

৫। অফিস থেকে বাড়ি ফেরার সময়ে কিছুটা রাস্তা হেঁটে ফিরুন, এতে ক্যাবের টাকা যেমন বাঁচবে তেমনই শরীরও ঠিক থাকবে। এক ঢিলে দুই পাখি!

৬। অযথা আলো-পাখা জ্বালিয়ে বা চালিয়ে রাখবেন না। অযথা এসি বা গিজার বা টিভি – কোনও কিছুই চালিয়ে রাখবেন না। এতে দুটো উপকার হবে – এক, বিদ্যুতের বিল কম আসবে এবং দুই, আপনার বাড়ির ইলেক্ট্রনিক অ্যাপ্লায়েন্স-এর আয়ু বাড়বে; ফলে দু’দিক থেকেই আপনি টাকা বাঁচাতে পারবেন।

৭। মাসের শুরুতেই একটা বাজেট ঠিক করে নিন। কোন খাতে মোটামুটি কত খরচ হতে পারে, সে ধারণা আপনার নিশ্চয়ই আছে। চেষ্টা করুন, সেই খাতে ধরা খরচের থেকে যেন বেশি খরচ না হয়! প্রথম প্রথম হয়তো পারবেন না, কিন্তু চেষ্টা করতে-করতে একদিন তো পারতেও পারেন!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...