দেশটাই ডিজিটাল হয়ে যাচ্ছে, ভাইফোঁটাই বা ডিজিটাল হবে না কেন?

দেশটাই ডিজিটাল হয়ে যাচ্ছে, ভাইফোঁটাই বা ডিজিটাল হবে না কেন?

ভাইয়ের কপালে দিলাম ফোঁটা, যমের দুয়ারে পড়ল কাঁটা...। মন্ত্রটা একবার মনে মনে প্র্যাকটিস করে নিয়েছেন তো? দিন তো চলে এল বলে। আর সময় বেশি বাকি নেই। আসল পারফরম্যান্সের সময় ভুলে গেলে কিন্তু প্রেসটিজে গ্যামাক্সিন! এটুকু পড়েই কি মনখারাপ হয়ে গেল? তাহলে আপনার জন্য এই আর্টিকেলটা পারফেক্ট। কারণ আমরা তাঁদের কথা বলতে চাই আজ, যে সব দিদি বা বোনেরা এই মন্ত্রটা এ বছর ভাইয়ের সামনে বসে বলতে পারবেন না। যে সব দাদা বা ভাইরা ভাইফোঁটার (Bhaiphota) দিন আপনার ছোটবেলার ক্রাইম পার্টনারের সঙ্গে কথা বলবেন ফোনে। 

আলপিন টু এলিফ্যান্ট আজকাল সবই ডিজিটাল (Digital)। দেশটাই পুরো ডিজিটাল হয়ে যাচ্ছে, আপনি তো কোন ছাড়! সেই হুজুগে ভাইফোঁটাই বা ডিজিটাল হবে না কেন? ফলে কর্মসূত্রে বা অন্য যে কোনও কারণেই হোক না কেন, ভাইফোঁটার দিন ভাই বা দিদির সামনাসামনি দেখা না হলেও এক্কেবারে মনখারাপ করবেন না। ডিজিটাল ভাইফোঁটা ট্রাই করে দেখুন না।

এমনিতেই এখন স্কাইপ চ্যাট বা হোয়াটস্অ্যাপের ভিডিও কল এক নিমেষে ক্যালিফোর্নিয়াকে কান ধরে হাজির করে কাঁচড়াপাড়ায়। দিনভরের ক্লান্তি নিমেষে উধাও হয়ে যায় প্রিয়জনের মুখ দেখে। কুরিয়ারে গিফট পৌঁছে যায় বাড়ির দরজায়। তাহলে ফোঁটাই বা হবে না কেন? সকালবেলা স্নান করে ল্যাপটপের সামনে বসে পড়ুন। সামনে সাজানো থাক ধান, দুব্বো, চন্দনের থালা। বাঁ হাতের কড়ে আঙুলে চন্দন নিয়ে স্ক্রিনের ওপারে থাকা দাদার কপালে একটু ছুঁইয়ে দিন। মন্ত্রটা বলে ফেলুন পুরোটা। হ্যাঁ, মনখারাপ একটু হবেই। পায়ে হাত দিয়ে প্রণামের বদলে চিমটি কাটা হবে না। আশীর্বাদের ঠেলায় মাথায় দুব্বো গুঁজে দেওয়ার কম্পিটিশনও বাদ পড়বে বটে। তবুও প্রিয়মুখ তো দেখা হবে। তার জন্য়েই এই আয়োজন, জানানো তো যাবে তাকে।

এবার ডেস্টিনেশন সোজা রান্নাঘর। পেটুক ভাইয়ের জন্য কোমর বেঁধে সিঙ্গাপুরের বহুতলে আপনি কী রাঁধছেন, স্কাইপেই দেখুক সে। আর তারপর মানিকতলার বাজারে গিয়ে খুঁজে আনুক চারাপোনা! কেমন জব্দ বলুন! গিফট পৌঁছে যাবে কুরিয়ার হয়ে ভাইয়ের ঠিকানায়। সে ব্যাপারে গ্যারান্টি।

কলকাতায় থাকা সরকারি চাকুরে দিদি এই একটা দিন বেঙ্গালুরুর আইটি ভাইটিকে একটু বেশি মিস করেন। বর্ধমানের ব্যবসায়ী দাদার আজকের দিনটাতেই বেশি করে মনকেমন করে বার্মিংহামে পড়তে যাওয়া বোনের জন্য। সকলের হাতেই স্মার্টফোন। ভিডিও কলে কথা হয়। ভাইফোঁটার দিন মোবাইলের স্ক্রিনে চন্দন পড়া আঙুল ছোঁয়ানো হোক বা আশীর্বাদের হাত ছোঁয়ানো নিয়ে মজাও হয় নিজেদের মধ্যে। সকলেই একবাক্যে স্বীকার করে নিচ্ছেন, দুধের স্বাদ ঘোলে মেটে না। কিন্তু একইসঙ্গে ঘোলটাও মিস করতে রাজি নন কেউ। 

ডিজিটাল লাইফ বস, আপনিই বা বাদ যাবেন কেন?

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...

ফিচার ছবি : ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে