কুমারী পূজার সঙ্গে আর কী কী হয় বেলুড় মঠের দুর্গা পুজোয়? in bengali | POPxo

জানেন কি, এখনও সারদা মায়ের নামে সংকল্প করেই শুরু করা হয় বেলুড় মঠের কুমারী পুজো?

জানেন কি, এখনও সারদা মায়ের নামে সংকল্প করেই শুরু করা হয় বেলুড় মঠের কুমারী পুজো?

‘মাতৃরূপেনসংস্থিতা!’ ভারতবর্ষের আধ্যাত্মিক ইতিহাস ঘাঁটলে দেখ যাবে, প্রাচীনকাল থেকেই নারীশক্তিকে পুজো করার চল রয়েছে এদেশে। দুর্গা, চণ্ডী, কালী, লক্ষ্মী, চামুন্ডা – নারীশক্তিকে নানা রূপে পুজো করার এই প্রাচীনপ্রথার জন্যই বিখ্যাত ভারতবর্ষ। পশ্চিমবঙ্গে যে সময়ে দুর্গা পুজো (Durga Puja) হয়, ভারতের অন্যান্য অংশের নানা রাজ্যে সে সময়ে চলে নবরাত্রি। দুর্গা পুজোই বলুন আর নবরাত্রিই বলুন, এই দুই পূজারই কিন্তু একটি বিশেষ অনুষ্ঠান হল ‘কুমারী পূজা’ (Kumari Puja), যা ভারতের অন্যান্য অনেক প্রদেশে ‘কন্যা পূজন’ বলেও বিখ্যাত। আজ রামকৃষ্ণ মিশনের (Ramkrishna Mission) মুখ্য কার্যালয় বেলুড় মঠের কুমারী পুজোর গল্পই শোনাব আপনাদের।

ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম

রামকৃষ্ণ মিশনের দুর্গা পুজোর ইতিহাস

স্বামী বিবেকানন্দ এবং সারদা মায়ের উদ্যোগে রামকৃষ্ণ মিশনের মুখ্য মঠ অর্থাৎ বেলুড় মঠে শুরু হয় ‘কুমারী পূজা’ (Kumari Puja)। শ্রী শ্রীরামকৃষ্ণদেবের কথায়, “ভগবানকে ‘মা’ হিসেবে দেখতে পেলে তাই হল সাধনার সর্বোচ্চ সীমা।” এই বাণী মাথায় রেখেই স্বামী বিবেকানন্দের উদ্যোগে এবং তত্বাবধানে ১৯০১ সালে প্রথবার দুর্গা পুজো করা হয় বেলুড় মঠে। শোনা যায়, এসময়ে নাকি প্রথমবার স্বামী বিবেকানন্দই ন’জন কুমারীকে মাতৃরূপে পুজো করেন এবং সেদিন থেকেই রামকৃষ্ণ মিশনের দুর্গা পুজোতে ‘কুমারী পূজা’র প্রথা শুরু হয়।

বেলুড় মঠে দুর্গা পুজোর (Durga Puja) প্রস্তুতি শুরু করা হয় জন্মাষ্টমীর দিন কাঠামো পুজোর মাধ্যমে। এরপর যখন মূর্তি নির্মাণ সম্পূর্ণ হয় তখন স্থানীয় জগন্নাথ মন্দির থেকে শালগ্রাম শিলা নিয়ে আসা হয় এবং মহাষষ্ঠী থেকে দশমী পর্যন্ত শাস্ত্র অনুযায়ী দুর্গা পুজো করা হয়। যদিও প্রথমদিকে কুমোরটুলি থেকে প্রতিমা আনানো হত, কিন্তু এখন মঠেই প্রতিমা তৈরি করা হয়। রামকৃষ্ণ মিশনের দুর্গা পুজো বৃহন্নন্দীকেশ্বর পুরাণ মতে হয় এবং কুমারী পূজার (Kumari Puja) সঙ্গে আরও একটি বৈশিষ্ট্য হল, মায়ের আরাধনার সময়ে সঙ্কল্প নেওয়া হয় শ্রী শ্রী সারদা মায়ের নামে।

কুমারী পূজা

ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম

প্রাচীন যোগিনী তন্ত্র অনুসারে, প্রাক বয়ঃসন্ধির কোনও অরজঃস্বলা বালিকাকে মাতৃরূপে পূজা করাই হল কুমারী পূজা। তন্ত্র অনুসারে, মাত্র একজন কুমারীকে ভোগ দিলেই নাকি সারা বিশ্ব-ব্রহ্মাণ্ড সেবা করার সুফল পাওয়া যায়। বেলুড় মঠে যদিও প্রথমে কুমারী পূজা (Kumari Puja) শুরু হয়েছিল ন’জন বিশেষ গুণসম্পন্না বালিকার পূজার মাধ্যমে, তবে এখন অনেক জায়গাতেই একজন বালিকাকেই মাতৃরূপে পূজা করা হয়। এক বছর থেকে শুরু করে ১৬ বছর বয়সি কোনও কন্যাকে পূজা করা যায় এই তন্ত্রমতে। বিভিন্ন বয়সের কুমারীদের নানা নামে সম্বোধনও করা হয় –

 

  • এক বছরের কন্যা — সন্ধ্যা
  • দুই বছরের কন্যা — সরস্বতী
  • তিন বছরের কন্যা — ত্রিধামূর্তি
  • চার বছরের কন্যা — কালিকা
  • পাঁচ বছরের কন্যা — সুভগা
  • ছয় বছরের কন্যা — উমা
  • সাত বছরের কন্যা — মালিনী
  • আট বছরের কন্যা — কুঞ্জিকা
  • নয় বছরের কন্যা — কালসন্দর্ভা
  • দশ বছরের কন্যা — অপরাজিতা
  • এগারো বছরের কন্যা — রূদ্রাণী
  • বারো বছরের কন্যা — ভৈরবী
  • তেরো বছরের কন্যা — মহালক্ষ্মী
  • চৌদ্দ বছরের কন্যা — পঠিনায়িকা
  • পনেরো বছরের কন্যা — ক্ষেত্রজ্ঞা
  • ষোলো বছরের কন্যা — অম্বিকা

সেদিন দেবী দুর্গাকে যে ভোগ ও নৈবেদ্য দান করা হয়, ঠিক তা-ই দেওয়া হয় কুমারীকেও! এই পুজোর জনপ্রিয়তা এতটাই বেশি যে, বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে সরাসরি সম্প্রচার করা হয় বেলুড় মঠের কুমারী পুজো! বহু ভক্ত ও অতিথি সমাগমও হয় এই পুজো উপলক্ষে।

এবছর বেলুড় মঠের দুর্গা পুজোর দিনক্ষণ

বেলুড় মঠে কিন্তু দুর্গা পুজোর (Durga Puja) নির্ঘণ্ট স্থির হয় বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত পঞ্জিকা মতে। এ’বছর রামকৃষ্ণ মিশনের দুর্গা পুজোর নির্ঘণ্ট নিম্নলিখিত –

বোধন – ৩রা অক্টোবর, বৃহস্পতিবার, সন্ধ্যা সাড়ে ছ’টায়

কল্পারম্ভ – ৪ঠা অক্টোবর, শুক্রবার, ভোর পাঁচটা চল্লিশ মিনিটে

অধিবাস ও আমন্ত্রন - ৪ঠা অক্টোবর, শুক্রবার, সন্ধ্যা ছ’টা তিরিশ মিনিটে

মহাসপ্তমী পূজা – ৫ই অক্টোবর, শনিবার, ভোর পাঁচটা চল্লিশ মিনিটে

মহাষ্টমী পূজা – ৬ই অক্টোবর, রবিবার, ভোর পাঁচটা চল্লিশ মিনিটে

কুমারী পূজা - ৬ই অক্টোবর, রবিবার, সকাল ন’টা

সন্ধিপূজা - ৬ই অক্টোবর, রবিবার, সকাল দশটা ৩১ মিনিট থেকে বেলা ১১টা ১৯ মিনিট পর্যন্ত

মহানবমী পূজা – ৭ই অক্টোবর, সোমবার, ভোর পাঁচটা চল্লিশ মিনিটে

হোম - ৭ই অক্টোবর, সোমবার, বেলা ১১ টা ৪৫ মিনিটে

দশমী পূজা – ৮ই অক্টোবর, মঙ্গলবার, সকাল ছ’টা

প্রতিমা নিরঞ্জন - ৮ই অক্টোবর, মঙ্গলবার, সন্ধ্যা সাড়ে ছ’টায়

মূল ছবি সৌজন্য: ইনস্টাগ্রাম 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...