পুজো স্পেশ্যাল অণুগল্প: অষ্টমীর সকালে পড়ে নিন পুজোর সাহিত্য নিয়ে গল্প 'পুজো এসে গেল বলে'

পুজো স্পেশ্যাল অণুগল্প: অষ্টমীর সকালে পড়ে নিন পুজোর সাহিত্য নিয়ে গল্প 'পুজো এসে গেল বলে'

পুজো মানে নতুন জামা, নতুন জুতো, নতুন সাহিত্যও! সাহিত্যাপ্রেমী বাঙালি পুজোর সময় নতুন গল্প-উপন্যাসে চোখে ডুবিয়ে থাকতে সত্যিই পছন্দ করে। আর তাই আমরা আয়োজন করেছিলাম অণুগল্প প্রতিযোগিতার। পাঠকদের কাছ থেকে পুজোর (Durga Puja) জন্য স্পেশ্যাল (special) অণুগল্প (story) চেয়েছিলাম আমরা। বিপুল সাড়া মিলেছে। নানা স্বাদের অণুগল্প জমা পড়েছে আমাদের দফতরে। তার মধ্যে থেকেই বেছে নেওয়া হল কয়েকটি। পুজোর চারদিন সকাল-বিকেল দু'টি করে অণুগল্প আমরা পেশ করব পাঠকদের জন্য।

এই 'পুজো এসে গেল বলে' গল্পটি লিখেছেন, শমিত কর্মকার।

Pixabay

 

এই সেদিনের কথা, স্কুল ছুটির পর কাকলি পর্ণাদের বাড়ি বেড়াতে গিয়েছে। পর্ণাদের বাড়িটা বেশ অনেকটা জায়গা নিয়ে তৈরি। সামনে বিরাট ফুলের বাগান। তারপর ঘর শুরু। পর্ণার বাড়ির গেট দিয়ে ঢুকতেই কাকলীর নাকে শিউলি ফুলের গন্ধ এল।

পর্ণা তোদের বাড়ি কি শিউলি ফুলের গাছ আছে?

হ্যাঁ, শুধু শিউলি কেন, গন্ধরাজ, স্থলপদ্ম, বেলি, জুঁই আরও কত কী!

তা কেন বল তো কাকলি?

না, এই গন্ধটা নাকে আসলেই মনটা নেচে ওঠে। এই পুজা এসে গেল বোধ হয়।

হ্যাঁ, তা ঠিকই বলেছিস। আমার মনটাও খুব ভাল লাগে। সকাল সকাল উঠে গাছের তলায় যাই। খুব আনন্দ লাগে, গাছের তলাটা সাদা হয়ে থাকে। আমি ঠাকুর ঘর থেকে ঝুড়ি নিয়ে এসে ওগুলো কুড়োই।

এই যা! আমরা তো বাইরে দাঁড়িয়েই কথা বলছি, ভেতরে চল। কাকলী আয় ভেতরে আয়। মা আজ দেখো কে এসেছে।

পর্ণার মা কাছে এসে দাঁড়াতেই কাকলি প্রণাম করল।

মা, ও কাকলী। আমরা একই সেকশনে পড়ি।

ও, তাই এতক্ষণ দুটো গলার আওয়াজ পাচ্ছি, কিন্তু কাউকে দেখছি না। তা তুমি কোথায় থাকো?

মল্লিক পাড়ায়।

পর্ণাকে ডেকে ওর মা বলল, বন্ধুকে নিয়ে হাত মুখ ধুয়ে ভেতরে বস, আমি আসছি।

কিছুক্ষণ পর পর্ণার মা এসে ওদের খেতে দিল। পর্ণারা এই বছর মাধ্যমিক পাশ করেছে। দু'জনেই একই স্কুলে একাদশ শ্রেণির কলা বিভাগের ছাত্রী। ফলে ওদের বন্ধুত্ব খুব গভীর হয়ে উঠেছে। সামনেই পুজো আসছে বলে জমিয়ে একটা আড্ডা দেবে আজ পর্ণার বাড়িতে। পর্ণা কাকলির বাড়ি ফোন করে জানিয়ে দিল, তার আজ বাড়ি ফিরতে দেরি হবে।

স্কুল থেকে ফেরার সময় আমি আমার বাড়ি নিয়ে কাকলিকে নিয়ে এসেছি কাকিমা। বেশি দেরি হলে পৌঁছে দেব।

আমরা এবার পুজোটাকে একটু অন্যরকম ভাবে উপভোগ করব কাকলি।

কেমন ভাবে রে?

আমরা পূজাবার্ষিকী সংগ্রহ করব। তুই রাজি তো কাকলি?

হ্যাঁ আমি তো গল্প পড়তে ভীষণই ভালবাসি।

বাহ্, তাহলে তো আর কথাই নেই। এবার জামাকাপড় কম কিনে, শিশু কিশোর সাহিত্যর উপর যে যে পূজাবার্ষিকী বেরবে সেগুলো আমরা খুঁজে বের করব। তার মধ্যে থেকে তুই কিছু কিনবি, আর আমি কিছু কিনব। এর ফলে আমাদের কাছে অনেকগুলো পূজাবার্ষিকী হয়ে যাবে। তোর লো পড়া হয়ে গেলে আমাকে দিবি, আর আমারগুলো হলে তোকে দেব। দারুণ কাটবে পুজোর ছুটিটা।

কিছুক্ষণ আগেই কাকলি বাড়ি এসেছে পর্ণার বাড়ি থেকে। আজ একটা সুন্দর ধারণা নিয়ে বাড়ি ফিরেছে সে। সত্যি, প্রত্যেক বার পুজো এসেছে, আনন্দ করেছি, জামাকাপড় কিনেছি। কিন্তু এবার যেন অন্যরকম আনন্দ হচ্ছে। পুজোর সাহিত্য, কত সুন্দর-সুন্দর লেখকের সুন্দর-সুন্দর লেখা পড়তে পারব এই পুজোর ছুটিতে।

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...