হজম ক্ষমতাকে (digestion) বাড়িয়ে তুলুন ঘরোয়া টোটকার সাহায্যে। in bengali | POPxo

পুজোর লাস্ট মিনিট টিপস: পেটপুজোর সঙ্গী হজমের সমস্যা এড়াতে ভরসা রাখুন ঘরোয়া টোটকার উপর

পুজোর লাস্ট মিনিট টিপস: পেটপুজোর সঙ্গী হজমের সমস্যা এড়াতে ভরসা রাখুন ঘরোয়া টোটকার উপর

পুজোর সময় অনেক বাড়িতেই হেঁসেলে তালা পড়ে যায়। তাই সকাল-বিকাল বাইরেই চলে পাত পেড়ে দেদার খাওয়া-দাওয়া। ফলে স্বাভাবিকভাবেই এদিক-সেদিকের হাবিজাবি খাওয়ার কারণে সপ্তমী পেরতে না পেরতেই গ্যাস-অম্বল, বুক জ্বালায় অনেকেরই প্রাণ ওষ্ঠাগত হয়ে যায়। সঙ্গে পেট ছেড়ে দিলে তো আরেক জ্বালা! কিন্তু তাই বলে তো আর পুজোর চার দিন সারা বছরের মতো ভাত-ডালে খুশি থাকা যায় না। তাহলে উপায়? POPxo বাংলা সঙ্গে থাকতে চিন্তা কিসের! পুজোর ক'দিন আপনাদের পেটের হাল যাতে বেহাল না হয়, সে কথা মাথায় রেখে এই প্রতিবেদনে থাকলে এমন কিছু ঘরোয়া টোটকার হদিশ, যা গ্যাস-অম্বল এবং পেট খারাপের মতো সমস্যাকে ধারে কাছেই ঘেঁষতে দেবে না। তাই হাতে সময় থাকতে থাকতেই এই খাবারগুলি খাওয়া শুরু করে দিন। দেখবেন, উপকার পাবেই পাবেন!

১. হরিতকি

নিয়মিত এক চামচ করে হরিতকি গুঁড়ো খেলে পেট তো চাঙ্গা থাকবেই, সঙ্গে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাও দূর হবে। বাড়বে হজম ক্ষমতাও (digestion)। ফলে গ্যাস-অম্বল তো দূর হবেই, সঙ্গে বুক জ্বালা এবং পেট খারাপের মতো সমস্যাও ধারে কাছেও ঘেঁষতে পারবে না।

২. বেকিং সোডা

বলেন কী, বেকিং সোডা খেলে বুক জ্বালা কমে যায়! কীভাবে? শরীরে অ্যাসিড লেভেল বেড়ে গেলে অনেক সময় বদহজম এবং গ্যাস-অম্বলের মতো সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে। তাই কোনও ভাবে যদি অ্যাসিডের মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়, তাহলেই আর চিন্তা থাকবে না। আর ঠিক সেই কারণেই ভরসা রাখতে হবে বেকিং সোডার উপরে। এতে রয়েছে sodium bicarbonate, যা অ্যাসিডের মাত্রা কমিয়ে ফেলার মধ্যে দিয়ে বুক জ্বালা, পেট গুরগুর এবং গ্যাস-অম্বলের মতো সমস্যা কমাতে বিশেষ ভাবে সাহায্য করে থাকে। কীভাবে খেতে হবে বেকিং সোডা? এক গ্লাস জলে চামচ খানেক বেকিং সোডা মিশিয়ে খেলেই উপকার মিলবে। তাই এখন থেকে আগামী এক সপ্তাহ যদি নিয়ম করে বেকিং সোডা খেতে পারেন, তাহলে পুজোর চার দিন কব্জি ঢুবিয়ে খাওয়ার পরেও যে কোনও সমস্যা হবে না, সে গ্যারান্টি আমাদের।

৩. অ্যাপেল সিডার ভিনিগার

পেট খারাপ থেকে বদহজম, ছোট-বড় নানা পেটের রোগকে দূরে রাখতে হলে অ্যাপেল সিডার ভিনিগারের উপর ভরসা রাখতেই হবে। কারণ, এতে উপস্থিত ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম সহ নানা উপকারী ভিটামিন-মিনারেলের গুণে হজম ক্ষমতার এতটাই উন্নতি ঘটে যে acid reflux, গ্যাস-অম্বল এবং পেটে খারাপ হওয়ার কোনও আশঙ্কাই থাকে না। তাই তো বলি, গোল বাড়ির কষা মাংস আর অনাদির মোগলাই পরটাকে যদি একসঙ্গে পেটে জায়গা করে দিতে হয়, তাহলে নিয়ম করে এক গ্লাস জলে এক চামচ করে অ্যাপেল সিডার ভিনিগার মিশিয়ে খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন, পুজোর আগে হজম ক্ষমতা এতটাই বেড়ে যাবে যে বাটি বাটি খাসির মাংস উড়িয়ে দেওয়ার পরেও পেটের হাল বেহাল হবে না।

৪. আদা

নিয়মিত এক কোয়া করে আদা খেলে কি হবে জানেন? শরীরে gingerols নামে এক প্রকার অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের মাত্রা বাড়তে শুরু করবে, যে কারণে gastrointestinal irritation-এর মতো সমস্যা ধারে কাছেও ঘেঁষতে পারবে না। এমনকী, শরীরের প্রদাহ কমার কারণে অসময়ে জ্বর জ্বালা বা অন্য কোনও রোগের খপ্পরে পড়ার আশঙ্কাও কমবে। তাই বুঝতেই পারছেন, পুজোর সময় পেটকে সুস্থ রাখতে তো বটেই, শরীরকে রোগ মুক্ত রাখতেও ভরসা রাখতে হবে আদার উপরে, তবেই না চার দিন নিশ্চিন্তে উত্তর-দক্ষিণ কাঁপিয়ে ঠাকুর দেখতে পারবেন!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...