অভিনেত্রী বরখা (barkha) বিস্তের সঙ্গে আড্ডায় POPxo বাংলা। in bengali | POPxo

'কামিনী' যদি দর্শকের ভাল লাগে, তা হলে আবার বাংলা ওয়েব সিরিজে কাজ করব: বরখা সেনগুপ্ত

'কামিনী' যদি দর্শকের ভাল লাগে, তা হলে আবার বাংলা ওয়েব সিরিজে কাজ করব: বরখা সেনগুপ্ত

'স্ত্রী'ছবির হাত ধরে বলিউডে 'হরর-কমিডি' ইতিমধ্যেই জনপ্রিয়। সে পথে হাঁটছে টলিউডও। হইচই ওয়েব স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম রিলিজ করলো তাঁদের নতুন ওয়েব সিরিজ। যার থিম 'হরর' হলেও থাকবে কমিডির মোড়ক। তাতে মুখ্য চরিত্রে দেখা যাবে বরখা বিস্তকে। এক সময় বাংলা ছবিতে কাজ করলেও দীর্ঘদিন তিনি মুম্বইয়ের বাসিন্দা। হিন্দি টেলি জগতের চেনা মুখ। সেই বরখাই প্রথম বারের জন্য কাজ করেছেন বাংলা ওয়েব সিরিজে। নাম 'কামিনী'। একে তো ভূত কেন্দ্রিক গল্প। তার উপর চরিত্রটাও একটু হটকে। হঠাৎ করে এমন চরিত্রই বেছে নিলেন কেন? ওয়েব সিরিজে হাতেখড়ি করে কেমনই বা লাগছে? এমন নানা প্রশ্নের ঝাঁপি নিয়ে POPxo বাংলা হাজির হয়েছিল বরখার ( barkha) কাছে। গল্প করতে করতে জমে উঠলে আড্ডা। 

১. বহু অভিনেতারা আজকাল ওয়েব সিরিজে কাজ করছেন। প্রথম বারের জন্য ওয়েব সিরিজে কাজ করে কেমন লাগছে?

বরখা: আগামী দিনে ওয়েব সিরিজ বিনোদনের মানচিত্রটাই বদলে দেবে। এই প্ল্যাটফর্মে স্বাধীন ভাবে কাজ করার সুযোগ রয়েছে। এক্সপেরিমেন্টর জায়গা অনেক। তাই যাঁরা একটু ক্রিয়েটিভ। অন্য় ধরনের কাজ করতে চান, তাঁদের জন্য ওয়েব সিরিজ সেরা পছন্দ। আর এমন একটা প্ল্যাটফর্মে কাজ করতে পেরে ভাল তো লাগবেই। তাছাড়া অনেক দিন বাদে বাংলায় কাজ করলাম। তাই বলতে পারেন, সব মিলিয়ে অভিজ্ঞতাটা মন্দ হয়নি।

২. এই গল্পটাই বেছে নিলেন কেন?

বরখা: চরিত্রটা খুব চ্যালেঞ্জিং। নেগেটিভ। তাই প্রথম দিকে একটু দোটানায় ছিলাম ঠিকই। তবে ভেবে-চিন্তে দেখলাম ওয়েব সিরিজে নতুন ইনিংস শুরু করার জন্য এমনটা একটা হটকে গল্পকে পছন্দ করলে ক্ষতি কী! তাই এই প্রজেক্টের সঙ্গে জড়িয়ে পড়তে দেরি করিনি।

৩. এটা ঠিক যে চরিত্রটা একটু হটকে। তবে কামিনী তো পজিটিভ চরিত্র নয়। প্রথম ওয়েব সিরিজে এমন একটা গ্রে ক্যারেক্টার করাটা একটু ঝুঁকি হয়ে গেল না?

বরখা: প্রথম দিকে ভয় যে পাইনি, তা নয়। এই নিয়ে ইন্দ্রনীলের সঙ্গে আলোচনাও করেছি। ও হ্যাঁ বলার পরে আর দু'বার ভাবিনি। বলতে পারেন কামিনীর চরিত্রটা করবে কিনা, সে নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়াটা যেমন কঠিন ছিল, তেমনই এমন চরিত্রে অভিনয় করাটাও সহজ ছিল না। তাই শুটিংয়ের প্রথম দিন থেকেই পরিশ্রমে কোনও খামতি ছিল না। আশা করি দর্শকদের কামিনীর চরিত্রটা অনেক দিন মনে থাকবে।

৪. কামিনী কে?

বরখা: এই উত্তরটা দিয়ে দিলে তো কেউ আর ওয়েব সিরিজটাই দেখবে না। তবে একথা বলতে পারি এই ওয়েব সিরিজটা একটা মেয়ের গল্প নিয়ে। যাঁর নাম কামিনী। কেউ ভাবে কামিনী ছোট বাচ্চা। কারও চোখে সে অপরূপ সুন্দরী। আবার কারও-কারও কাছে সে ডাইনি। তাই তো কামিনীকে ঘিরে অনেক রহস্য, যে রহস্যের খোঁজ পেতে গেলে যে ওয়েব সিরিজটা দেখতেই হবে।

৫. আচ্ছা একটা কথা খোলসা করে বলুন তো, কামিনী কি ভূত?

বরখা: (মুচকি হেসে) হতেও পারে, আবার নাও হতে পারে।

৬. শুনেছি অনেক আজব আজব জায়গায় শুটিং হয়েছে। কখনও ভাঙা বাড়ি তো, তো কখনও জঙ্গল। রাতের বেলা এমন সব জয়গায় কাজ করার সময় ভয় পেয়েছিলেন?

বরখা: (জোরে হেসে) একদম ঠিক বলেছেন! মাঝে মধ্যে ভীষণ রকম ভয় পেয়ে যেতাম। ঘাটালের এক পোড়ো বাড়িতে শুটিং হয়েছে। রাতের বেলা সেখানে যেতে রীতিমতো ভয় করতো। তাই তো অন্তত পাঁচজন লোক ছাড়া শুটিংয়েই যেতাম না।

৭. এবার একটু অন্য প্রসঙ্গে আসি। 'হইচই'-এর সঙ্গে কাজ করে কেমন লাগলো?

বরখা: হইচই-এর টিমটা বেশ ভাল। কাকে, কী করতে হবে, তা সবারই জানা। এমন একটা টিমের সঙ্গে কাজ করতে পেরে ভীষণ খুশি আমি।

৮. তাহলে হইচই-এর সঙ্গে আরও কাজ করবেন বলছেন?

বরখা: এই সব নিয়ে এখনই কোনও কথা হয়নি। তবে সুযোগ পেলে অবশ্যই করবে। আর যদি কামিনী সিরিজটা সফল হয়, তাহলে তো এর আরও একটা সিরিজ হতেই পারে।

৯. এক সময় বাংলায় অনেক কাজ করেছেন। অনেকদিন পরে আবার এখানে এসে কাজ করলেন। কেমন লাগল?

বরখা: (এক গাল হেসে) কলকাতায় কাজ করতে বেশ লাগে। বিশেষ করে এখানকার মানুষজন, কলাকুশলী সবাই খুব ভাল। মুম্বই যেখানে সারাক্ষণ ছুটছে, সেখানে কলকাতায় ধীরে সুস্থে কাজ হয়। এই কারণে এখানে কাজ করার মজাটাই আলাদা। তাই তো এতদিন পরে কলকাতায় কাজ করতে পেরে ভীষণ ভাল লাগছে।

১০. তাহলে কি বাংলা সিনেমায় আবার দেখা যাবে বরখা বিস্তকে?

বরখা: এখন মুম্বইয়ে টেলিভিশনে কাজ করছি। হাতে একদমই সময় নেই। তার উপর তেমন একটা সুযোগও আসছে না। তবে যেদিন সুযোগ পাব, সেদিনই বাক্স-প্যাঁটরা গুছিয়ে এখানে চলে আসব।

১১. শেষ প্রশ্ন, স্ত্রী ছবির হাত ধরে হরর কমেডি ইতিমধ্যেই বলিউডে জনপ্রিয়। আপনার কি মনে হয় কামিনীও সফল হবে?

বরখা: বাংলার দর্শক এখন অনেক বেশি পরিণত। তাঁরা নতুন কিছু দেখতে চায়। তাই তো গল্প ভিত্তিক সিনেমা এখন এত সফল হচ্ছে। তাছাড়া হরর কমেডি নিয়ে খুব বেশি কাজ হয়নি। তাই কামিনী সিরিজটা যে সফল হবে, সেই নিয়ে আমার মনে তো কোনও সন্দেহ নেই।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo Shop-এর স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...