শরীরের গঠন অনুযায়ী ডায়েট হলেই পাবেন সুফল, জানুন বডি টাইপ অনুযায়ী কী খাবেন আর কী খাবেন না

শরীরের গঠন অনুযায়ী ডায়েট হলেই পাবেন সুফল, জানুন বডি টাইপ অনুযায়ী কী খাবেন আর কী খাবেন না

অনেকদিন ধরে তেড়েফুঁড়ে ডায়েট করছেন, কিন্তু ওজন কমেছে মাত্র ৫০০ গ্রাম? অথচ সেই একই ডায়েট ফলো করে পাশের বাড়ির টেঁপি একেবারে ফিনফিনে হয়ে গেল, আর আপনি সেই দীর্ঘনিশ্বাসই ফেলে চলেছেন? হবেই তো, গলদ যে গোড়ায়! একটা কথা বলুন তো? টেঁপির আর আপনার জামার সাইজ এক? পছন্দ-অপছন্দ এক? শরীরের ধরন এক? তা হলে ডায়েটই বা এক হবে কেন? বিশেষজ্ঞদের মতে, ডায়েট মেনে চলার ক্ষেত্রে বেশিরভাগ মানুষই একটা ভুল করেন আর সেই কারণেই একনিষ্ঠভাবে ডায়েট মেনে চলা সত্ত্বেও রোগা হওয়া যায় না এবং আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে খালি দীর্ঘশ্বাসই ফেলে যেতে হয়। ভুলটি হল, শরীরের গঠন অনুযায়ী ডায়েট না বাছা। আসলে আমাদের প্রত্যেকের শরীরের গঠন আলাদা। তাই যে ডায়েট প্ল্যান (Diet plan) টেঁপির ক্ষেত্রে ম্যাজিক দেখিয়েছিল, সেই একই প্ল্যান আমার উপরে কাজ না-ও করতে পারে। তাই ডায়েট বেছে নেওয়ার আগে জেনে নিন নিজের বডি টাইপ (body type)। এখানে বডি টাইপ সম্বন্ধে আমরা মোটামুটি একটা ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করলাম। সঙ্গে রইল প্রতিটি বডি টাইপের ডায়েটে কোন-কোন খাবার থাকবেই এবং কী-কী থাকবে না, সেই খুঁটিনাটিও। আশা করি, এগুলি মেনে চললে আপনাদের আর দুঃখ রইবে না!

বডি টাইপের রকমসকম

বিশেষজ্ঞদের মতে, মেয়েদের শরীরের গঠন বা বডি টাইপ মোটামুটি পাঁচ ধরনের হতে পারে। আপেল, নাসপাতি, আওয়ারগ্লাস, রুলার, আইসক্রিম কোন। একটু বিশদে বুঝিয়ে বলা যাক।

আপেল গঠন

পিক্সাবে

আপনি যদি একটু গোলগাল গোছের হন, যদি আপনার কাঁধ চওড়া, নিতম্ব-বুক ভারী এবং হাত-পা তুলনায় সরু হয়, তা হলে ধরে নেবেন আপনার বডি টাইপ হল আপেল।

কী খাবেন: মোনোস্যাচুরেটেড এবং ওমেগা-থ্রিতে ভরপুর ফ্যাট আপনার জন্য আদর্শ। রুই-কাতলা, বিভিন্ন ধরনের বাদাম, অ্যাভোকাডো, জলপাই ইত্যাদি আপনার জন্য ভাল। দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় এই ধরনের খাবার বেশি রাখুন।

কী খাবেন না: বাজার থেকে কেনা বাড়তি চিনি দেওয়া ফলের রস, জাঙ্ক ফুড, ভাত, পাস্তা, পাউরুটি ইত্যাদি। আপনার দৈনন্দিন ক্যালরি ইনটেকের শতকরা ৪০ শতাংশের বেশি যেন কার্ব থেকে না আসে, ব্যস।

পিক্সাবে

এঁদের শরীরের উপরের অংশ অপেক্ষাকৃত রোগা এবং কোমরের নীচ থেকে বাকি পোর্শন ভারী হয়। মানে, আপনার কোমর সরু, কাঁধ ছোট, হাত সরু হবে এবং নিতম্ব ভারী, পা মোটাসোটা হবে। মোট কথা, আপনাকে দেখলে নাসপাতির কথা মনে হবে, এই আর কী।

কী খাবেন: আপনার খাদ্যতালিকা হবে প্রোটিন, ফ্যাট এবং সবুজ শাকসবজিতে ভরা। প্রোটিনের মধ্যে খেতে পারেন মাছ, মুরগির মাংস, তবে পাঁঠা না খাওয়াই ভাল। শাকসবজির ক্ষেত্রে কোনও বিধিনিষেধ নেই। ঘি-মাখন-চিজও খেতে পারেন যথেষ্ট পরিমাণে।

কী খাবেন না: যেসব খাবারে চিনি লুকিয়ে আছে, সেগুলো! যেমন ধরুন, দোকান থেকে কেনা কেক, নানা ধরনের মিষ্টি সস, মিষ্টি পাউরুটি, পিনাট বাটার, হেজেলনাট স্প্রেড ইত্যাদি। কেনার আগে লেবেলের উপর চিনির পরিমাণ দেখে নিন। তিন গ্রামের বেশি অ্যাডেড সুগার থাকলেই সেই খাবার আর খাবেন না।

আওয়ারগ্লাস

পিক্সাবে

এই বডি টাইপটিকে মেয়েদের ক্ষেত্রে আদর্শ বলে মানেন অনেকে। আওয়ারগ্লাস, মানে, শরীরের উপরের এবং নীচের অংশের মধ্যে ভারসাম্য আছে। এঁদের কোমর সরু এবং উপরের ও নীচের অংশ সমান চওড়া হয়। এই ধরনের শারীরিক গঠন একদিক থেকে যেমন খুব ঠিকঠাক, অন্যদিক থেকে আবার চাপেরও বটে। কারণ, এঁদের ক্ষেত্রে ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে খুবই তাড়াতাড়ি। আর সেটা হলেও এঁরা চট করে বুঝতে পারেন না, যেহেতু তা সমানভাবে শরীরের সর্বত্র ছড়িয়ে যায়।

কী খাবেন: যেহেতু এই ধরনের বডি টাইপে তাড়াতাড়ি ওজন বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে এবং বাড়লে সেটা চট করে বোঝাও যায় না, তাই এই ধরনের বডি টাইপের ক্ষেত্রে নানা ধরনের সবজিকে ঠাঁই দিন খাদ্যতালিকায়। সবজি দিয়ে পেট ভরিয়ে ফেললে কার্ব কিংবা প্রোটিন খাওয়ার জন্য জায়গা বাঁচবে না। গাজর, শসা, কাবলি ছোলা, শাকপাতা, আমন্ড বাটার, হামাস ইত্যাদি আপনার জন্য একেবারে আদর্শ।

কী খাবেন না: হাই সুগার খাবারদাবার। যেমন ধরুন, পায়েস, মিষ্টি, পিঠেপুলি, পেস্ট্রি, কেক, মিল্ক চকোলেট, লজেন্স ইত্যাদি। এককথায় যেগুলো খেলে মন ভাল হয়, কিন্তু শরীরে মেদ জমে, সেগুলি এড়িয়ে চলুন। 

রুলার

পিক্সাবে

'সোনার কেল্লা' ছবিতে লালমোহনবাবুর ফেলুদার উদ্দেশ্যে সেই বিখ্যাত ডায়লগটি 'আপনি কি শুয়োর?'-এর কথা মনে আছে? ফেলুদা নিজের কোমর-ছাতির মাপ একই বলার কারণে তিনি একথা বলেছিলেন। রুলার বডি টাইপের বিশেষত্বই এটা। এঁদের শরীরে কোনও খাঁজ-টাজ নেই। একটি রুলার, মানে স্কেলকে সোজা করে দাঁড় করালে যেরকম লাগবে, এঁদের ফ্রন্ট এলিভেশন অনেকটা সেরকম দেখতে লাগবে।

কী খাবেন: কখনওই খুব বেশি খাবেন না এবং খুব কম খাবেন না। ছিপছিপে শরীর চাইলে আপনাকে বরাবর পরিমিত আহারে মন দিতে হবে। আপনার ডায়েট হবে কার্ব, প্রোটিন এবং ফ্যাটের ব্যালান্সে ঠাসা। মানে, আপনি মোটামুটি সবই খেতে পারেন, কিন্তু কোনওটাই একগাদা নয়। আর প্রসেসড ফুড আপনার জন্য বিষের মতো, ওটি থেকে শত যোজন দূরে থাকবেন। 

কী খাবেন না: একগাদা প্রোটিন। যেমন, রোজ-রোজ মটন একদম চলবে না। এক কিলো ওজনের জন্য দিনে খুব বেশি হলে আপনি এক গ্রাম প্রোটিন খেতে পারেন। মানে, আপনার ওজন যদি ৬৫ কিলো হয়, তা হলে সারা দিনে আপনি ৬৫ গ্রাম প্রোটিন খাবেন। তা সে মাছ-মাংসই হোক কিংবা ডাল-রাজমা।

আইসক্রিম কোন

পিক্সাবে

নাম শুনেই বুঝতে পারছেন, এঁদের ছাতি, কাঁধ এবং গলার অংশ ভারী এবং শরীরের যত নীচের দিকে নামবেন, তত তা সরু হতে থাকবে। এঁদের জীবনে একটাই সমস্যা, মেদ জমতে শুরু করলে তা প্রথমেই জমে পেট-কোমরে আর তা কমাতে প্রাণান্তকর অবস্থা হয়। 

কী খাবেন: আপনার ডায়েট প্ল্যানে কার্বোহাইড্রেট থাকতে পারে ভরপুর। তবে সাদা ভাত না খাওয়াটাই ভাল। রুটি-লুচি-পরোটা খান। খেতে পারেন বার্লি, কিনোয়া, ব্রাউন রাইস, মিষ্টি আলু ইত্যাদিও। নানা রকমের ডালও আপনার চলবে। সব রকমের সবজি খান, বিশেষত বিনস।

কী খাবেন না: আপনার যে-কোনও মিল হবে লো-ফ্যাট। তাই চিজ-মাখন-ঘি যতটা সম্ভব এড়িয়ে চলুন। তেল খাওয়ার পরিমাণও কমিয়ে দিতে হবে। নারকেল তেল, কনোলা অয়েল, ভেজিটেবল অয়েল, সিড অয়েল খাবেন না। রান্না করুন অলিভ অয়েল কিংবা রাইস ব্রান অয়েলে। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়..