খুশকি থেকে স্প্লিট এন্ড, চুল সংক্রান্ত ছোট-বড় সব সমস্যাই কমাতে কাজে আসবে আলু!

খুশকি থেকে স্প্লিট এন্ড, চুল সংক্রান্ত ছোট-বড় সব সমস্যাই কমাতে কাজে আসবে আলু!

শীতকালে খুশকির প্রকোপ বাড়ার আশঙ্কা যেমন থাকে, তেমনই পরিবেশ দূষণ সহ আরও নানা কারণে চুলের বারোটা বাজতেও সময় লাগে না। সঙ্গে চুলে জট পড়ার মতো সমস্যা তো রয়েছেই। অগত্যা নানা প্রসাধনী ব্যবহার করা ছাড়া আর কোনও গতি থাকে না। তাতে অল্প সময়ের জন্য এই সব সমস্যার চক্কর থেকে মুক্তি মেলে ঠিকই। কিন্তু প্রসাধনীতে উপস্থিত নানা কেমিক্যালের কারণে চুলের ক্ষতি হয়ে যাওয়ার রাস্তাও প্রশস্ত হয়। তাই তো চুলের যত্নে প্রসাধনীর পরিবর্তে নানা প্রাকৃতিক উপাদানকে কাজে লাগানোর পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু কোন কোন প্রাকৃতিক উপাদানকে কাজে লাগালে উপকার মিলবে, তাই ভাবছেন নিশ্চয়? এক্ষেত্রে চোখ বন্ধ করে শুধুমাত্র আলুর (potato hair packs) উপর ভরসা রাখুন, তাতেই উপকার পাবেন! কারণ, এতে উপস্থিত নানা ভিটামিন-মিনারেলের গুণে স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটতে সময় লাগে না। ফলে ছোট-বড় সব সমস্যারই প্রকোপ কমে নিমেষেই। শুধু জেনে নিতে হবে চুলের যত্নে আলুর ব্যবহারের নানা উপায় সম্পর্কে, তাহলেই শীতের মরসুমে চুল নিয়ে আর কোনও চিন্তাই থাকবে না।

১. চুল পড়া এবং খুশকির প্রকোপ কমবে

খান তিনেক আলু ব্লেন্ডারে ফেলে রস তৈরি করে নিয়ে তাতে একটা ডিমের কুসুম এবং হাফ কাপ লেবুর রস মিশিয়ে সেই পেস্ট চুলের গোড়ায় এবং স্ক্য়াল্পে লাগিয়ে কম করে আধ ঘন্টা অপেক্ষা করুন। সময় হওয়া মাত্র হালকা গরম জল দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। নিয়ম করে সপ্তাহে একবার এই হেয়ার মাস্ক চুলে লাগালে মাস খানেকের মধ্য়েই উফকার পাবেন। বিশেষ করে চুল পড়ার হার তো কমবেই, সঙ্গে খুশকির (dandruff) প্রকোপ কমতেও সময় লাগবে না।

২. চুলের গোড়া ফেটে যাওয়ার মতো সমস্য়া কমবে

পরিবেশ দূষণের কারণে তো বটেই, অনেক সময় নানা কেমিক্যালের কারণে চুলের গোড়া ফেটে যায়। সে সময় চুলের যত্নে যদি আলুকে কাজে লাগানে যায়, তাহলে উপকার মিলতে যে সময় লাগবে না, তাতে কোনও সন্দেহ নেই। এক্ষেত্রে খান দুয়েক আলু থেকে রস তৈরি করে নিয়ে তাতে চামচ দুয়েক লেবুর রস, সম পরিমাণ নারকেলের দুধ এবং চামচ চারেক মধু মিশিয়ে সেই মিশ্রণ স্ক্য়াল্পে লাগিয়ে মিনিট পাঁচেক মাসাজ করে কম করে আধ ঘন্টা অপেক্ষা করুন। সময় হলেই সালফেট ফ্রি শ্য়াম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। সপ্তাহে বার দুয়েক এইভাবে চুলের যত্ন নিলে চুলের হারিয়ে যাওয়া সৌন্দর্য ফিরে আসবে। বাড়বে জেল্লাও।

৩. অসময়ে চুল পেকে যাওয়ার আশঙ্কা কমবে

এক কাপ আলুর খোসা এক কাপ জলে ফেলে মিনিট কুড়ি অল্প আঁচে ফুটিয়ে নিয়ে একটু ঠান্ডা করে নিন। তারপর সেই জল দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত এই ঘোরায়া চিকিৎসা চালালে অসময়ে চুল পেকে যাওয়ার আশঙ্কা তো কমবেই, সেই সঙ্গে পেকে যাওয়া চুলও দেখবেন পুনরায় আগের অবস্থায় ফিরে গিয়েছে। 

৪. চুলের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ফিরে আসবে

শীতের মরসুমে পরিবেশে জলীয় বাষ্পের মাত্রা কমে যাওয়ার কারণে ত্বকের পাশাপাশি স্ক্যাল্পের হালও বেহাল হয়ে পরে, যে কারণে খুশকি তো বটেই, সঙ্গে আরও নানা সব সমস্যা ঘাড়ে চেপে বসার আশঙ্কা থাকে। তাই তো সারা শীতকাল জুড়ে স্ক্যাল্পের আর্দ্রতা বজায় রাখাটা একান্ত প্রয়োজন। কিন্তু কীভাবে তা করবেন, তাই ভাবছেন? কোনও চিন্তা নেই! হাতের কাছে আলু থাকলে খান তিনেক নিয়ে জুস তৈরি করে ফেলুন। এবার তাতে চামচ তিনেক অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে সেই পেস্ট স্ক্যাল্পে লাগিয়ে মিনিট দশেক মাসাজ করে নিয়ে মিনিট কুড়ি অপেক্ষা করুন। তারপর হালকা গরম জল দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে বার দুয়েক এইভাবে চুলের যত্ন নিলেই স্ক্যাল্পের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ফিরে আসবে। সঙ্গে চুলের সৌন্দর্যও বাড়বে ষোল আনা।

৫. চুলের বৃদ্ধি হবে

এক কাপ আলুর রসে একটা ডিমের কুসুম এবং চামচ দুয়েক মধু মিশিয়ে সেই পেস্ট চুলে লাগিয়ে মিনিটকুড়ি অপেক্ষা করে সালফেট ফ্রি শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার এইভাবে চুলের যত্ন নিলেই চুলের বৃদ্ধি ঠিক ঠিক নিয়ম মেনে হবে। ফলে অসময়ে ময়দান খালি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা আর থাকবে না।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...