লাগাম ছাড়া স্ট্রেস, টেনশন বাগে আনতে ভরসা রাখুন নানা এসেনশিয়াল তেলের উপরে

লাগাম ছাড়া স্ট্রেস, টেনশন বাগে আনতে ভরসা রাখুন নানা এসেনশিয়াল তেলের উপরে

ঘরে-বাইরে, দু'দিক সামলাতে গিয়ে স্ট্রেস তো বাড়ছেই, সঙ্গে কাজের চাপের কারণেও বাড়ছে অ্যাংজাইটি। আর সবচেয়ে ভয়ের বিষয় হল এমন পরিস্থিতির ফাঁদে পড়েছেন প্রায় সিংহভাগ ভারতীয়ই। সম্প্রতি এক বেসরকারি সংস্থার করা সমীক্ষা অনুসারে ভারতের মোট জনসংখ্যা প্রায় ৮৯ শতাংশই স্ট্রেস-অ্যাংজাইটির শিকার। যাঁদের মধ্যে মহিলাদের সংখ্যাও কম নয়। আর সেটাই সবচেয়ে চিন্তার বিষয়। কারণ, স্ট্রেস-অ্যাংজাইটির লেজুড় হয়ে একাধিক শারীরিক সমস্যা ঘাড়ে চেপে বসতে পারে। বিশেষ করে হার্টের ক্ষতি হয় সবচেয়ে বেশি। আমাদের দেশে মহিলারাই যেহেতু পরিবারের মূল চালিকা শক্তি, তাই তাঁদের শরীরে যদি এমন সব জটিল রোগ এসে বাসা বাঁধে, তা হলে তো কপালে ভাঁজ পড়তে বাধ্য। এই কারণেই তো সময় থাকতে থাকতে স্ট্রেস-অ্যাংজাইটি কমিয়ে ফেলার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা। একদিকে বর, ছেলে-মেয়ে আর শ্বশুর-শাশুড়ির দায়িত্ব। অন্য দিকে অফিসের টেনশন, এমন পরিস্থিতিতে চাপ কমবে কীভাবে শুনি? স্ট্রেস-অ্যাংজাইটির প্রকোপ কমাতে এসেনশিয়াল তেল দারুণ কাজে আসে। শুধু ব্যবহারের পদ্ধতি সম্পর্কে জেনে নিতে হবে, তা হলেই দেখবেন অল্প দিনেই স্ট্রেস (Stress) দূরে পালাবে। কী কী এসেনশিয়াল তেল কাজে লাগালে এক্ষেত্রে উপকার মিলবে?

১. Lavender তেল

স্ট্রেস-অ্যাংজাইটি কমাতে বহু দিন ধরেই অ্যারোমাথেরাপিতে এই তেলটির ব্যবহার হয়ে আসছে। এই এসেনশিয়াল তেলটির গন্ধে প্রদাহ কমে, যে কারণে ব্রেন সেলের উত্তেজনাও নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। ফলে মানসিক চাপ কমতে সময় লাগে না। ল্যাভেন্ডার তেলকে কীভাবে কাজে লাগালে উপকার মিলবে? এক বালতি জলে ১০-১৫ ফোঁটা এসেনশিয়াল তেল মিশিয়ে মিনিট দেরেক অপেক্ষা করে সেই জলে স্নান করলে উপকার পাবেন। তবে আরেক ভাবেও ল্যাভেন্ডার তেলকে কাজে লাগাতে পারেন। কীভাবে? ছোট ছোট বাটিতে Lavender oil নিয়ে বাড়ির প্রতিটি কোণায় রেখে দিন। এর গন্ধেই দেখবেন স্ট্রেস কমে যাবে।

২. জুঁই এসেনশিয়াল তেল

স্ট্রেসের প্রকোপ কমাতে এই তেলটির (Essential Oils) জুড়ি মেলা ভার। কারণ, জুঁই ফুলে রয়েছে anti-depressant properties, যা স্ট্রেস লেভেল তো কমায়ই, সঙ্গে অনিদ্রার সমস্যাও দূর হয়। রাতে ঠিক মতো ঘুম হওয়ার কারণেও কিন্তু মানসিক চাপ নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। এত সব উপকার পেতে ছোট্ট বাটিতে এসেনশিয়াল তেলটা নিয়ে শোয়ার ঘরের কোনও একটা কোণে রেখে দিন, তাতেই ফল মিলবে। ইচ্ছা হলে ঘুমতে যাওয়ার আগে ঘাড়ে এবং হাতে অল্প করে তেলটা লাগিয়ে মালিশ করতে পারেন।

৩. Chamomile তেল

জলে এই তেলটি মিশিয়ে স্নান করলে যেমন উপকার পাওয়া যায়, তেমনই তেল মালিশ করলেও স্ট্রেস লেভেল নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। তবে সরাসরি তেলটা ব্যবহার করবেন না। তাহলে কী করতে হবে? ক্যামোমিল তেলে অল্প করে জল মিশিয়ে সেই মিশ্রণটি ঘাড়ে-কপালে লাগিয়ে মনিটপাঁচেক মাসাজ করলেই উপকার মিলবে। ইচ্ছা হলে chamomile চাও খেতে পারেন। এই পানীয়টিও স্ট্রেস-অ্যাংজাইটি কামতে বিশেষ ভূমিকা নেয়।

৪. লেমন তেল

এক্কেবারে ঠিক শুনেছেন! পাতিলেবুর থেকেও কিন্তু এসেনশিয়াল তেল তৈরি হয়। আর সেই তেল বাড়ির প্রতিটি কোণায় ছড়িয়ে দিলে মানসিক চাপ কমতে দেখবেন সময় লাগবে না। তবে আরেকভাবেও Lemon oil স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে। কীভাবে? নারকেল বা অলিভ অয়েলে লেমন তেল মিশিয়ে সেই মিশ্রণ কপালে লাগিয়ে মিনিট খানেক মাসাজ করলেও কিন্তু মানসিক চাপ কমে যায়। এমনকী, অনিদ্রার সমস্যাও দূর হয়। তাই এবার থেকে স্ট্রেসের ফাঁদে না পড়ে এসেনশিয়াল তেলের গুণে স্ট্রেস-অ্যাংজাইটিকে জোড়া গোল দিতে ভুলবেন না যেন!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...