পাঁচটি মেকআপ-বিউটি ট্রিকস, যা আমাদের সকলের জানা উচিত! in Bengali | POPxo

এই পাঁচটি বিউটি-মেকআপ ট্রিকস যে-কোনও মহিলারই জানা উচিত, তা হলে অনায়াসে হয়ে উঠবেন অপরূপা!

এই পাঁচটি বিউটি-মেকআপ ট্রিকস যে-কোনও মহিলারই জানা উচিত, তা হলে অনায়াসে হয়ে উঠবেন অপরূপা!

যতই আপনি ভুরু কুঁচকান, সুন্দরী হওয়ার ইচ্ছেটা আমরা সব সময়ই মনের ভিতরে ভারী আদর করে পুষে রাখি। তার জন্যই তো এত মাথার ঘাম পায়ে ফেলে পরিশ্রম, এত ঘরোয়া টোটকা, এত ফেসপ্যাক, মাস্ক, ক্রিম-লোশনের বাড়াবাড়ি। বরাবরই সুন্দর মুখের জয় সর্বত্র ছিল। আর আজকাল এই সেলফি সর্বস্ব যুগে তো এই আপ্তবাক্যটি চরম সত্যি। তবে সকলে তো আর ডানাকাটা হুরিপরি হবেন না, সেটা কেই বলছেও না। আমরা বলছি, আপনি যেরকম দেখতে, সেরকমটাই থাকুন। শুধু আমাদের কাছ থেকে জেনে নিন সৌন্দর্য (beauty) এবং মেকআপ বিষয়ক কয়েকটি প্যাঁচপয়জার, যাকে ইংরেজিতে বলে ট্রিকস (tricks), তা হলেই আপনি দিব্যি মাত করে দিতে পারবেন নিজ রূপেই।  

১. মেকআপ করতে না চাইলে লাগান টিন্টেড ময়শ্চারাইজার

শাটারস্টক
শাটারস্টক

প্রতিদিন মেকআপ (makeup) করে নিজের খুঁত ঢাকা আর কজনের পক্ষে সম্ভব হয় বলুন? তাই ফাউন্ডেশন-কনসিলার তাকে বসে থেকে ধুলো মাখে আর আমরাও ভূত সেজেই রোজ বাইরে বেরোই। না, এবার থেকে একটু অন্তত সেজেগুজে বেরোন। পুরোদস্তুর মেকআপ করতে বলছি না। রোজ যে ময়শ্চারাইজার মুখে লাগান, সেটির মধ্যে মিশিয়ে নিন কয়েক ফোঁটা ফাউন্ডেশন। ব্যস, তৈরি আপনার নিজস্ব টিন্টেড ময়শ্চারাইজার। এবার সেটি মুখে লাগালে একইসঙ্গে ত্বকও থাকবে পেলব এবং মুক্তি পাবেন আনইভন স্কিন টোনের হাত থেকেও।

এখান থেকে কিনতে পারেন টিন্টেড ময়শ্চারাইজার

২. লাইনার পরুন লেয়ার করে

শাটারস্টক
শাটারস্টক

লিকুইড লাইনারের নিখুঁত দাগ কিন্তু পেনসিল লাইনারে পাওয়া যাবে না। এদিকে আমরা অনেকেই লিকুইড লাইনারের সরু তুলি দিয়ে লাইন টানতে অভ্যস্ত নই। ফলে ধ্যাবড়া করে পেনসিল লাইনার দিয়েই দাগ টেনে শান্তি পাই। এবার থেকে পেনসিল লাইনার আগে সরু করে টানুন। তার উপরে সেই লাইন ধরে বোলান লিকুইড লাইনারের তুলিটি। এতে দুটো কাজ হবে। এক, লিকুইড লাইনারটি নিখুঁত করে পরতে পারবেন। দুই, লেয়ার করে পরার কারণে লাইনার টিকবেও বেশিক্ষণ।

এখান থেকে কিনতে পারেন কোহল পেনসিল এবং লিকুইড লাইনার

৩. নানা রংয়ের কোহল পেনসিল সঙ্গে আছে তো?

ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম

সেলেব্রিটিদের চোখগুলি সব সময় অমন ডাগরপানা দেখতে লাগে কেন বলুন তো? কারণ, তাঁরা আমার-আপনার মতো চোখের উপরের পাতায়ও কালো, নীচের পাতায়ও কালো লাইনার টানেন না। উপরের পাতায় অতি অবশ্যই কালো লাইন টানুন। কিন্তু নীচের পাতায়ও সেই কালো লাইন রিপিট করলে চোখ ছোট দেখতে লাগবে। তাই নীচের পাতায় ওয়াটার লাইনের ভিতরের দিকে টানুন সাদা কিংবা নুড কোহল লাইনার আর তারপর বাইরে টানুন কালো ছাড়া অন্য যে-কোনও রংয়ের কোহল লাইনার। বেশি ড্রামাটিক লুক পছন্দ না হলে গাঢ় খয়েরি রংও ব্যবহার করতে পারেন। কিন্তু কালো টানবেন না প্লিজ।

এখান থেকে কিনতে পারেন রঙিন কোহল পেনসিল

৪. ভুরু মেরামত করুন সযত্নে

শাটারস্টক
শাটারস্টক

যাঁরা জন্মসূত্রে মোটা আই ব্রো-র অধিকারী, তাঁদের কথা আলাদা। আপনারা ভাগ্যবতী, পার্লারে গিয়ে থ্রেডিং করালেই আপনাদের সমস্যা শেষ। কিন্তু যাঁদের তা নেই, আইব্রো পেনসিল যাঁদের নিত্যদিনের সঙ্গী, তাঁদের উদ্দেশ্যে বলছি, কটকটে কালো রংয়ের আইব্রো পেনসিল দিয়ে ভুরু আঁকা এবার বন্ধ করুন। ওতে ভুরু আরও মেকি মনে হয়। বরং গাঢ় গ্রে কিংবা খয়েরি রং বেছে নিন স্কিন টোন অনুযায়ী। আইব্রো আঁকার আগে ভাল করে ব্রো ব্রাশ দিয়ে আঁচড়ে নিন। তারপর আঁকুন। ভুরু একেবারেই পাতলা হলে ব্রো কারেক্টার পেন ব্যবহার করে রেফারেন্সে দেখানো স্ট্রোকের মতো করে আঁচড় কাটুন। যাঁদের ভুরু মিডিয়াম ঘন, তাঁরা আইশ্যাডো ব্রাশ দিয়ে আঁকতে পারেন ভুরু। আইব্রো নিখুঁত হলে মুখে চেহারা আপনিই পাল্টে যাবে। 

এখান থেকে কিনতে পারেন আইব্রো এনহ্যান্সার

৫. ত্বক পরিষ্কার করুন কায়দা করে

শাটারস্টক
শাটারস্টক

কায়দা করে মানে, দু'রকম ক্লেনজার ব্যবহার করে। মানে, সকালে ঘুম থেকে উঠে ব্যবহার করতে হবে মাইল্ড ক্লেনজার আর রাতে বাড়ি ফিরে চাই ডিপ ক্নেনজার। কারণটা খুব সহজ। সারা দিন বাইরের ধুলোবালি মেখে ঘরে ফেরার পর ত্বকের ভিতর পর্যন্ত পরিষ্কার করতে কাজে আসবে ডিপ পোর ক্লেনজার। আর সকালে উঠে যখন মুখ ধোবেন, তখন হালকা ক্লেনজার হলেই চলবে।

এখান থেকে কিনতে পারেন ডিপ ক্লেনজারমাইল্ড ক্লেনজার

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়..