সাউথ এশিয়ান গেমসে এয়ার রাইফেলে সোনা জিতে রেকর্ড গড়লেন বাংলার মেহুলি ঘোষ

সাউথ এশিয়ান গেমসে এয়ার রাইফেলে সোনা জিতে রেকর্ড গড়লেন বাংলার মেহুলি ঘোষ

মেহুলি (mehuli) ঘোষকে চেনেন? আপনার জন্য একটা ক্লু দেওয়া যাক। মেহুলি একজন স্পোর্টস পার্সন। এবার চিনতে পারছেব?

না! সাধারণ ভাবে হয়তো আপনার চেনার কথা নয়। কারণ মেহুলি ক্রিকেট খেলেন না। এখনও পর্যন্ত ভারতে ক্রিকেটারদের যে পরিমাণ জনপ্রিয়তা, অন্য কোনও খেলায় তা নেই। আরও নিখুঁত ভাবে বললে, মহিলা ভারতীয় ক্রিকেট টিমের সদস্যরাও কিন্তু বিরাট কোহালির ছেলেদের মতো জনপ্রিয় নন। ফলে মেহুলি হয়তো আপনার চেনা নাম নয়। 

আসুন, মেহুলির সঙ্গে পরিচয় করা যাক। নেপালের সাউথ এশিয়ান গেমসে (south asian games) (স্যাগ) ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে (shooter) ব্যক্তিগত এবং দলগত বিভাগে সোনা জয় করেছেন তিনি। সোনার মেয়ে তো তিনি বটেই। শুধু তাই নয়। রেকর্ড তৈরি করে ফেলেছেন মেহুলি। 

মঙ্গলবার কাঠমান্ডুতে ২৫৩.৩ পয়েন্ট স্কোর করে ব্যক্তিগত ইভেন্টে সোনা (gold) জিতেছেন মেহুলি। এই পয়েন্ট বিশ্বরেকর্ডের (২৫২.৯) থেকে বেশি হলেও বিশ্বরেকর্ডের মর্যাদা পাবে না। কারণ, আন্তর্জাতিক শুটিং সংস্থা এই গেমসের স্কোরকে রেকর্ডের মর্যাদা দেয় না বলে জানা গিয়েছে। তবে বিশ্বরেকর্ড না হলেও মেহুলির নামের পাশে গেমস রেকর্ড লেখা থাকবে বলে খবর।

 

এই বছর এখনও পর্যন্ত মেহুলির কেরিয়ারে দারুণ সময়। কিন্তু তিনি নিজে এটাকেই সেরা সময় বলতে রাজি নন। আন্তর্জাতিক মঞ্চে সাফল্য পেতে গেলে দক্ষতা এবং মানসিক কাঠিন্য, এই দুইয়েরই প্রয়োজন। মেহুলি এই দুই দিকেই সমান ভাবে লক্ষ্য রেখে এগিয়েছেন বলে দাবি করেছেন। সে কারণেই এসেছে স্বীকৃতি। 

আন্তর্জাতিক মঞ্চে এর আগে কমনওয়েলথ গেমসে রুপো পেয়েছিলেন মেহুলি। যুব অলিম্পিক্সেও পদক রয়েছে তাঁর। পরের বছর টোকিয়ো অলিম্পিক্সে যাওয়ার প্রস্তুতি শুরু করেছেন অনেক আগেই। হয়তো সে সুযোগও আসবে খুব তাড়াতাড়ি। ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে দু’জন ভারতের প্রতিনিধিত্ব করবেন অলিম্পিক্সে। তার মধ্যে কি তাঁর নাম আসবে? প্রস্তুতি জারি রেখে আশায় বুক বাঁধছেন তিনি এবং তাঁর কোচ জয়দীপ কর্মকার। অলিম্পিক্সের চূড়ান্ত দল ঠিক হবে ২০২০-এর মার্চে, নয়াদিল্লিতে আয়োজিত শুটিং বিশ্বকাপের পরে। ফলে আপাতত আরও কয়েক মাসের অপেক্ষা। কিন্তু এই সোনা জয় মেহুলির আত্মবিশ্বাস অনেকটা বাড়িয়ে দেবে বলে মনে করেন তাঁর কোচ। 

 

মেহুলি জানিয়েছেন, তিনি নিজে নিজের সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী। প্রতিবার খেলার সময় নিজের আগের পারফরম্যান্স ছাপিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য নিয়ে নামেন। আর নিজেকে চনমনে রাখতে মিউজিক তাঁর কাছে ওযুধের মত। বাংলার মেয়ে এই সাফল্যে খুশি তাঁর প্রিয়জনেরা। এবার নতুন লড়াইয়ের জন্য তৈরি হওয়ার পালা। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়..