Peppermint Oil Uses (In Bengali) - পিপারমিন্ট তেলের ব্যবহার ও উপকারিতা | POPxo

রূপচর্চা থেকে শুরু করে মেজাজ ফুরফুরে করে তোলা - জেনে নিন পিপারমিন্ট তেলের নানা উপকারিতা

রূপচর্চা থেকে শুরু করে মেজাজ ফুরফুরে করে তোলা - জেনে নিন পিপারমিন্ট তেলের নানা উপকারিতা

পিপারমিন্ট বা ফ্রেশ মিন্ট যে শুধুমাত্র মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে কাজে লাগে তা কিন্তু নয়, এই ভেষজটি আমাদের সৌন্দর্যবৃদ্ধি করতেও সমানভাবে উপকারী (benefits)। ত্বকের যত্নেই হোক বা চুলের সমস্যা দূর করতেই হোক বা সুস্বাস্থ্যের জন্যই হোক, পিপারমিন্ট বা পিপারমিন্টের তেল (Peppermint Oil) আমাদের অনেক কাজে লাগে। কী কী ভাবে এই তেলটি আমাদের উপকার (benefits) করে এবং কীভাবে পিপারমিন্ট তেল ব্যবহার করা যায়, আজ না হয় তা নিয়ে বিস্তৃত আলোচনা করা যাক।

Table of Contents

    পিপারমিন্ট তেল কী? (What is Peppermint Oil)

    পিপারমিন্ট তেল কী (Peppermint Oil), এ নিয়ে অনেকের মনেই অনেক প্রশ্ন উঠতে পারে। তবে তার আগে পিপারমিন্ট সম্পর্কে কয়েকটি কথা জানা প্রয়োজন। সবজে ও বেগুনি রঙের এই ছোট ছোট পাতাগুলিতে একটা তাজা সুগন্ধ থাকে এবং এই পাতাটির নানা ঔষধিগুণ রয়েছে। প্রাচীনকাল থেকে পিপারমিন্ট ওষধি হিসেবে তো বটেই, রূপচর্চার কাজেও ব্যবহার করা হচ্ছে। এই পাতাটি থেকে একটি বিশেষ পদ্ধতিতে তেল বার করা হয় এবং সেটিই পিপারমিন্ট অয়েল নামে পরিচিত। চলুন দেখে নেওয়া যাক যে সৌন্দর্যবৃদ্ধি করতে পিপারমিন্ট অয়েল কীভাবে কাজে লাগে (use)।

    ত্বকের যত্নে পিপারমিন্ট তেলের ভূমিকা (Peppermint Oil for Skin)

    ছবি সৌজন্যে: শাটারস্টক
    ছবি সৌজন্যে: শাটারস্টক

    দাগ-ছোপহীন পরিষ্কার ও উজ্বল ত্বকের অধিকারিণী হওয়ার স্বপ্ন আমরা কে না দেখি? তবে সব সময়ে তা সম্ভব হয় না। অনেকেই নানা রাসায়নিক কসমেটিকস ব্যবহার করেন সুন্দর ত্বক পাওয়ার জন্য, কিন্তু বেশিরভাগ সময়েই এই রাসায়নিকগুলো আমাদের ত্বকের ভালর থেকে খারাপ বেশি করে। এক কাজ করতে পারেন, একবার পিপারমিন্ট অয়েল (Peppermint Oil)ব্যবহার (use) করে দেখতে পারেন। কীভাবে করবেন আর কেনই বা করবেন তা জেনে নিন।

    ১| ত্বক উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে

    উজ্জ্বল ত্বক পেতে চাইলে কিন্তু আপনার বিউটি রুটিনে পিপারমিন্ট অয়েল (Peppermint Oil) যোগ করা অত্যন্ত জরুরি। পিপারমিন্টের মধ্যে মেন্থল রয়েছে যা ত্বকে একটা কুলিং এফেক্ট দেয় এবং একইসঙ্গে ত্বকের ভিতর থেকে ময়লা টেনে বার করে ও মরাকোষ দূর করে ত্বক গভীরে গিয়ে পরিষ্কার করে (benefits)। ফলস্বরূপ, আপনি পান উজ্জ্বল ও মলিনতাহীন ত্বক।

    ২| অ্যাকনে দূর করে

    অ্যাকনের সমস্যায় একটা বয়সের পরে সবাই ভুগতে শুরু করেন। আসলে লোমকূপের ভিতরে ময়লা জমে গিয়ে ইনফেকশন হয়ে গেলে তখনই অ্যাকনে বা ব্রণ-ফুসকুড়ির সমস্যা হয়। অ্যাকনে লুকোতে অনেকসময়ে কনসিলার ব্যবহার করা হলেও তা কোনও স্থায়ী সমাধান নয়। পিপারমিন্ট অয়েল ব্যবহার (use) করে অ্যাকনের সমস্যা কিন্তু দূর করা যায়।

    ৩| টোনার হিসেবে খুব ভাল

    ছবি সৌজন্যে: শাটারস্টক
    ছবি সৌজন্যে: শাটারস্টক

    একটি ছোট স্প্রে বোতল নিয়ে তাতে বোতলের তিন চতুর্থাংশ ফিল্টার করা জল, এক চতুর্থাংশ অ্যাপেল সিডার ভিনিগার এবং ৩০ ফোঁটা পিপারমিন্ট এসেনশিয়াল অয়েল নিয়ে ভাল করে মেশান। তৈরি হয়ে গেল আপনার ফেসিয়াল টোনার। যখনই ব্যবহার (use) করবেন, বোতলটি ঝাঁকিয়ে নিয়ে কয়েকটা স্প্রে করে নিন মুখে। বাইরে বেরোলে বা বাইরে থেকে বাড়ি ফিরে এই স্প্রেটি করতে পারেন।

    ৪| স্ক্রাবার হিসেবে ব্যবহার করা যায়

    বাজারচলতি ফেস স্ক্রাবার ব্যবহার না করতে চাইলে নিজেই বাড়িতে একটি ন্যাচারাল স্ক্রাবার তৈরি করে নিতে পারেন। দুই টেবিল চামচ অলিভ অয়েল, তিন চা চামচ সি-সল্ট এবং চার ফোঁটা পিপারমিন্ট এসেনশিয়াল অয়েল (Peppermint Oil) মিশিয়ে তৈরি করে নিন স্ক্রাবার। সপ্তাহে একদিন শুধু মুখেই না, সারা শরীরে এই স্ক্রাবার দিয়ে স্ক্রাব করুন, ত্বক কোমল ও উজ্জ্বল হয়ে উঠবে।

    ৫| ত্বকের মলিনতা দূর করে

    ত্বকের মলিনতা দূর করে লাবন্য ফিরে পেতে পিপারমিন্ট অয়েলের (Peppermint Oil) এই ফেসপ্যাকটি ব্যবহার (use) করতে পারেন। দুই টেবিল চামচ শশাকুচি, দুই টেবিল চামচ গ্রিন ক্লে পাউডার এবং ৩ ফোঁটা জল মেশানো পিপারমেন্ট অয়েল মিশিয়ে একটি মাস্ক তৈরি করে নিন। ব্রাশের সাহায্যে মুখে মাস্কটি লাগিয়ে মিনিট ২০ পর উষ্ণ জলে মুখ ধুয়ে নিন। দু-সপ্তাহে একবার করে করতে পারেন, দেখবেন ত্বক ফুটফুটে দেখতে পাগবে (benefits)। যদি আপনার ত্বক শুষ্ক হয়, তাহলে এক টেবিল চামচ মধু মেশাতে পারেন বাকি উপকরণগুলির সঙ্গে।

    চুলের যত্নে পিপারমিন্ট তেলের ভূমিকা (Peppermint Oil for Hair)

    ছবি সৌজন্যে: পিক্সেলস
    ছবি সৌজন্যে: পিক্সেলস

    আপনার মনে প্রশ্ন আসতেই পারে যে হঠাৎ করে পিপারমেন্ট অয়েল কেন আপনি চুলের জন্য ব্যবহার (use) করবেন? উত্তর একটাই, কারণ আপনি চান নিজের চুলের যত্ন করতে। কীভাবে পিপারমেন্ট এসেনশিয়াল অয়েল (Peppermint Oil) চুলের যত্নে কাজে আসে, তা জানার জন্য পড়তে থাকুন।

    ১| স্ক্যাল্পের শুষ্কতা দূর করে

    যাদের স্ক্যাল্প বা মাথার তালু খুব শুষ্ক, তাঁদের জন্য পিপারমেন্ট অয়েল এক মহৌষধি হিসেবে কাজ করে (benefits)। অনেকের জন্মগতভাবে চুল এবং মাথার তালু শুষ্ক হয়, আবার অনেকের শুধুমাত্র শীতকালে মাথার তালু শুষ্ক হয়ে যায়; দুই ক্ষেত্রেই কিন্তু পিপারমিন্ট অয়েল ব্যবহার করা যেতে পারে। এই তেলটিতে যেহেতু দারুণ ময়শ্চারাইজ করার ক্ষমতা রয়েছে কাজেই চুল ও মাথার তালুর রুক্ষতা দূর করতে বেশ উপকারী। অলিভ অয়েল বা বাদাম তেলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা পিপারমিন্ট এসেনশিয়াল অয়েল (Peppermint Oil) মিশিয়ে মাথায় মাসাজ করুন এবং একঘন্টা পর ঠান্ডা জলে চুল ধুয়ে ফেলুন।

    ২| যে-কোনও ধরনের চুলের জন্যই ভাল

    যদিও শুষ্ক চুল ও মাথার তালুর জন্য পিপারমিন্ট অয়েল খুব উপকারী (benefits), কিন্তু আপনার চুলের ধরন যদি অন্য কিছু হয় সেক্ষেত্রেও কিন্তু পিপারমিন্ট অয়েল (Peppermint Oil) ব্যবহার (use) করতে পারেন। পিপারমিন্ট অয়েলে এমন কিছু মৌলিক উপাদান রয়েছে যা মাথার তালুর এবং চুলের পি এইচ ব্যাল্যান্স ঠিক করতে সাহায্য করে এবং ফলে চুলের নানা সমস্যা দূর হয়।

    ৩| নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে

    মাথার চুল ঝরে যাচ্ছে বলে কি রাতের ঘুম উড়ে গেছে? চিন্তা নেই, রোজ রাতে চুলের গোড়ায় গোড়ায় পিপারমিন্ট এসেনশিয়াল অয়েল মাসাজ করতে পারেন। নারকেল তেলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা পিপারমিন্ট এসেনশিয়াল অয়েল (Peppermint Oil) মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগান এবং মিনিট দশেক আঙুলের ডগার সাহায্যে আলতো হাতে মাসাজ করুন। কিছুদিনের মধ্যেই দেখবেন নতুন চুল গজাচ্ছে এবং চুল পড়ার সমস্যাও দূর হয়েছে।

    ৪| স্ক্যাল্পের কোনও ফাঙ্গাল ইনফেকশন দূর করে

    অনেকসময়ে নানা কারণে আমাদের চুলের গোড়ায় ময়লা জমে মাথার তালুতে ইনফেকশন হয়ে যায় আবার অনেকসময়ে স্ক্যাল্প অ্যাকনে হলে তা খুঁটে দিলেও ইনফেকশন ছড়িয়ে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে ভিটামিন ই ক্যাপসুলের সঙ্গে পিপারমিন্ট অয়েল মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগাতে পারেন। এছাড়াও যে শ্যাম্পু আপনি ব্যবহার করেন তার সঙ্গে পিপারমিন্ট অয়েল মিশিয়ে শ্যাম্পু করুন। ইনফেকশন দূর হবে।

    ৫| চুল মোলায়েম করে তোলে

    পিপারমিন্ট অয়েলে (Peppermint Oil) যেহেতু প্রাকৃতিক রূপেই ময়শ্চারাইজিং প্রপারটিস রয়েছে, কাজেই পিপারমেন্ট অয়েল দিয়ে নিয়মিত চুলে মালিশ করলে (benefits), চুলের কিউটিক্যাল সারাই করা যায় এবং ফলে চুল হয়ে ওঠে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল, মোলায়েম এবং জেল্লাদার।

    সুস্বাস্থ্যের জন্য পিপারমিন্ট অয়েল (Health Benefits of Peppermint Oil)

    ছবি সৌজন্যে: শাটারস্টক
    ছবি সৌজন্যে: শাটারস্টক

    পিপারমিন্ট অয়েল ত্বক ও চুলের জন্য কীভাবে ব্যবহার করবেন আর কেনই বা ব্যবহার করবেন তা তো জানলেন, এবার বরং জেনে নিন যে সুস্বাস্থ্যের জন্য পিপারমিন্ট অয়েল ঠিক কতটা উপকারী।

    ১| মাথাধরা কমাতে

    যদি কখনও মাথা ধরে যায় কোনও কারণে এবং কিছুতেই ছাড়ে না, তাহলে রুমালে একটু পিপারমেন্ট অয়েল ঢেলে রুমালটি শুঁকতে পারেন অথবা পিপারমিন্ট অয়েল দিয়ে তৈরি কোনও বাম কপালের দুপাশে একটু লাগাতে পারেন; মাথা ধরা কমে যাবে।

    ২| শ্বাসকষ্টে আরাম দেয়

    সর্দিতে নাক বন্ধ হয়ে গেলে সামান্য পিপারমেন্ট অয়েল গরম জলে ফেলে যদি ভেপার নেওয়া যায় তাহলে বন্ধ নাক সহজেই খুলে যায় এবং শ্বাস নিতে সমস্যা হয় না। এছাড়াও বুকে কফ জমে গেলে পিপারমিন্ট অয়েল বুকে ও পিঠে মাসাজ করলে আরাম পাওয়া যায়।

    ৩| হজমে সহায়তা করে

    বেশি খাওয়া হয়ে গেলে অনেকসময়ে হাঁসফাঁস করে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে উষ্ণ জলে দু’ফোটা পিপারমেন্ট অয়েল ফেলে ছোট ছোট চুমিকে জলটি খেয়ে নিন। যদি বদহজমের সমস্যা থাকে এবং যাই করুন না কেন কিছুতেই মুক্তি পাচ্ছেন না, সেক্ষেত্রে খাবারে ফ্লেভার হিসেবে পিপারমেন্ট অয়েল মেশাতে পারেন।

    ৪| বমিভাব দূর করতে সাহায্য করে

    অনেকসময়ে গাড়িতে উঠলে বা পেট্রোলের গন্ধে বমি পায়। পিপারমিন্ট এসেনশিয়াল অয়েল কিন্তু এই বমিভাব দূর করতে সাহায্য করে। এই তেলে যেহেতু মেন্থল রয়েছে কাজেই মেন্থলের গন্ধে বমিভাব দূর হয়। খেয়াল করে দেখবেন অনেকসময়ে বমিভাব হলে সেজন্য চিউইং গাম চিবানোর পরামর্শ দেওয়া হয়।

    ৫| রক্তসঞ্চালন সঠিকভাবে করতে সাহায্য করে

    পিপারমেন্ট অয়েল কিন্তু শরীরে সঠিকভাবে রক্ত সঞ্চালনেও সাহায্য করে। যে মুহূর্তে আমাদের শ্বাসের সঙ্গে পিপারমিন্টের ভাপ আমাদের শরীরে প্রবেশ করে, আমাদের শিরায় এক উদ্দীপনার সৃষ্টি হয় এবং রক্ত সঞ্চালন সঠিকভাবে হতে শুরু করে।

    সতর্কতা (Peppermint Oil Precautions)

    ছবি সৌজন্যে: শাটারস্টক
    ছবি সৌজন্যে: শাটারস্টক

    অল্পসল্প পিপারমিন্ট এসেনশিয়াল অয়েল (Peppermint Oil) ব্যবহার (use) করাটা কোনও সমস্যার বিষয় নয়, তবে যেহেতু সবার সব কিছু সহ্য নাও হতে পারে কাজেই কখনও কখনও দেখা যায় যে কিছু কিছু মানুষের পিপারমিন্ট এসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করার ফলে অ্যালার্জি হয়। কখনও হয়ত ত্বকে সরাসরিভাবে পিপারমিন্ট অয়েল লাগালে একটু জ্বালা করতে পারে বা চুলকানি হতে পারে অথবা লালচেভাব দেখা দিতে পারে; তবে এতে ভয়ের কোনও কারণ নেই। আপনি পিপারমিন্ট অয়েলে অ্যালার্জিক কিনা বোঝার জন্য এটি কেনার আগে বা ব্যবহার করার আগে শরীরের কোনও অংশে (কানের লতিতে বা ঘাড়ের পিছনে বা কনুইয়ের ভিতরের অংশে ভাল বোঝা যায়) এক ফোঁটা পিপারমিন্ট অয়েল (Peppermint Oil) সামান্য জলের সঙ্গে মিশিয়ে লাগান। যদি র‍্যাশ বেরোয় বা কোনও সমস্যা হয় তাহলে বুঝতে হবে যে আপনার ত্বকে এই তেলটি ব্যবহার (use) করা যাবে না।

    যদি আপনি পিপারমেন্ট অয়েল ব্যবহার করে কোনও সমসয়ায় না পড়েন, সেক্ষেত্রেও কিন্তু এই তেল ব্যবহার করার সময়ে মাথায় কয়েকটি বিষয় রাখা জরুরি। যে কারণেই আপনি এই তেলটি ব্যবহার করুন না কেন, প্রয়োজনের তুলনায় বেশি ব্যবহার (use) করবেন না। যেহেতু এই তেলটিতে মেন্থল রয়েছে, প্রয়োজনের তুলনায় বেশি ব্যবহার করলে ত্বক বা চুলের ক্ষতি হতে পারে। ত্বকে বা চুলে কখনই সরাসরি ব্যবহার করবেন না, সব সময়ে হয় জলে মিশিয়ে অথবা কোনও ক্যারিয়ার অয়েল (নারকেল/অলিভ/আমন্ড অয়েল) মিশিয়ে তবেই ব্যবহার করুন।

    পিপারমিন্ট অয়েলের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া (Side Effects of Peppermint Oil)

    পিপারমেন্ট অয়েলের সেরকম কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া যদিও নেই, তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে এই তেলের ব্যবহার একটু সিমিত করে রাখা প্রয়োজন। যারা গর্ভবতী অথবা সদ্য মা হয়েছেন এবং শিশুকে স্তন্যপান করান তাঁরা যদি পিপারমিন্ট অয়েল ব্যবহার না করেন তাহলে ভাল। আবার আপনি যদি কোনও কঠিন অসুখে ভোগেন (যে-কোনও রকম অঙ্গ প্রতিস্থাপন) বা তার জন্য ওষুধ খান সেক্ষেত্রেও এই তেলটি ব্যবহার করা উচিত না। প্রয়োজনের তুলনায় বেশি পিপারমেন্ট অয়েল ব্যবহার করলে যা যা সমস্যা হতে পারে -

    • ডায়েরিয়া
    • অম্বল
    • মাথাঘোরা
    • ত্বক জ্বালা করা

    কিছু জরুরি প্রশ্নোত্তর (FAQs)

    ১| পোকামাকড় দূর করতে কি পিপারমিন্ট তেল ব্যবহার করা যায়?

    ২০ ফোটা উইচ হেজেল, ১৫ ফোঁটা সাইট্রোনেলা এসেনশিয়াল অয়েল, ১৫ ফোঁটা লেমনগ্রাস এসেনশিয়াল অয়েল, দশ ফোঁটা পিপারমেন্ট এসেনশিয়াল অয়েল এবং দশ ফোঁটা টি ট্রি অয়েল মিশিয়ে একটি স্প্রে বোতলে ভরে রাখুন। মশা-মাছি বা অন্যান্য পোকামাকড়ের উপদ্রব যেখানে রয়েছে সেখানে এই মিশ্রণটি স্প্রে করুন। পোকার উপদ্রব থেকে মুক্তি পাবেন।

    ২| স্ট্রেস দূর করতে কি পিপারমিন্ট অয়েল উপকারী?

    পিপারমেন্ট অয়েলে এমন কিছু ওষধিগুণ রয়েছে যা স্ট্রেস, অবসাদ, ক্লান্তি কাটাতে সাহায্য করে। অয়েল বারনার বা ডিফিউজারে সামান্য পিপারমেন্ট অয়েল জলের সঙ্গে মিশিয়ে যদি একটু বার্ন করেন তাহলে মেজাজ ফুরফুরে হতে পারে।

    ৩| রোদে পোড়া থেকে রেহাই পেতে কি পিপারমিন্ট অয়েল ব্যবহার করা যায়?

    পিপারমিন্ট অয়েলের মধ্যে রয়েছে ভিটামিন সি এবং এ যা রোদে পোড়া ত্বকের যত্ন করতে সাহায্য করে। যদি ত্বকে ট্যান দেখা দেয় সেখত্রে জলের সঙ্গে পিপারমিন্ট অয়েল মিশিয়ে লাগান, কিছুদিনের মধ্যেই তফাৎটা বুঝতে পারবেন।

    ৪| কীভাবে পিপারমিন্ট অয়েল স্টোর করবেন?

    কাচের বোতলে, কাঠের আলমারিতে যেখানে সরাসরি সূর্যের আলো পড়ে না, সেখানে আপনি পিপারমেন্ত অয়েল স্টোর করে রাখতে পারেন।

    POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

    এসে গেল #POPxoBeauty – POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়।

    Image Credits: Shutterstock, Pexels