অভিজ্ঞতার দাম সোনার চেয়েও বেশি! সুখী দাম্পত্য বজায় রাখতে বাবা-মায়ের কাছে থেকে টিপস নিন

অভিজ্ঞতার দাম সোনার চেয়েও বেশি! সুখী দাম্পত্য বজায় রাখতে বাবা-মায়ের কাছে থেকে টিপস নিন

পুরনো চাল ভাতে বাড়ে! প্রবাদটা শুনেছেন নিশ্চয়ই? এর মানে হল যা পুরনো, যা অভিজ্ঞতা সম্পন্ন, তার দাম অনেক বেশি। কাজ কর্মের ক্ষেত্রে যখন আপনি সমস্যায় পড়েন, অভিজ্ঞ কোনও সহকর্মীর সাহায্য চান। অথচ ব্যক্তিগত সমস্যা হলেই মনে হয় কার কাছে যাব? বিশেষ করে দাম্পত্য (married) জীবন (life) বা প্রেম জীবনে কোনও ক্রাইসিস এলেই মনে হয় কার কাছে মন খুলে এইসব সমস্যার কথা বলা যায়। সাহায্যের হাত বাড়াতে প্রস্তুত থাকেন অনেকেই। আপনার আশেপাশের পরিচিত লোকজন, আপনার কোলিগ, প্রিয় বন্ধু। কিন্তু যাঁদের পরামর্শের দাম সবচেয়ে বেশি, আপনাকে সবচেয়ে গভীরভাবে যারা চেনেন তাঁদের কথাই আপনার মাথায়া আসে না। অথচ তাঁরা সব সময় ছায়ার মতো আপনার পাশে আছেন। আপনার বাবা মার (parents) কথা বলছি। তাই সম্পর্ক নিয়ে সমস্যা হলে এদিক-ওদিক না দৌড়ে সবার আগে নিজের বাবা মায়ের কাছে যান। সবচেয়ে দামি (golden) এবং গুরুত্বপূর্ণ উপদেশ (tips) ওঁদের কাছ থেকেই পাবেন।

প্রেম পড়ার পর বাবা মার দেওয়া গোল্ডেন টিপস

shutterstock

১) রূপে তোমায় ভোলাব না

আপনিও এই কথা জানেন, কিন্তু ওই সময় বিশেষে সেটা একদম মনে পড়ে না। যদিও পেহলে দর্শনদারী পিছে গুণ বিচারি, তবুও মনে রাখবেন যে বাহ্যিক সৌন্দর্যই শেষ কথা নয়। মানুষটি আদতে কেমন সেটা জানার এবং বোঝার চেষ্টা করুন। আপনার বাবা মাও কিন্তু তাই করেছিলেন। 

২) মানিয়ে নেওয়া মানে মেনে নেওয়া নয়

প্রেম করেছি বেশ করেছি বলে বাবা মাকে অগ্রাহ্য করবেন না। আপনার প্রেমিক যদি অ্যাবিউসিভ হন, যদি তিনি গায়ে হাত তোলেন বা অশ্লীল কথা বলেন, তাহলে বাবা মার উপদেশ মেনে সেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসুন। তাঁদের ভুল বুঝবেন না। তাঁরা আপনার ভালই চান। 

৩) অর্থই অনর্থ নয়

টাকা পয়সাই জীবনে সব নয়। একশ ভাগ সত্যি কথা। কিন্তু সেটা ছাড়া জীবনে এগোনোও সম্ভব নয়। তাই শুধু প্রেম করে গা ভাসাবেন না। আপনার বাবা মা যদি বলে প্রেমিকের এই দিকটাতেও একটু আলোকপাত করতে সেটা ভেবে দেখবেন। যদি আপনি চান এই সম্পর্ক বিয়েতে পরিণতি পাক, তাহলে আরও বেশি করে এগুলো ভেবে দেখা দরকার। 

বিবাহিত জীবনের জন্য পর বাবা মার দেওয়া গোল্ডেন টিপস

instagram

১) প্রাইভেসি নষ্ট করবেন না

একদম তাই। বড় রকমের সমস্যা হলে আলাদা কথা কিন্তু ছোটখাট সমস্যা বা শ্বশুরবাড়ির সব কথা উজাড় করে নিজের বাবা মাকে বলতে যাবেন না। এমন কিছু কথা যা বললে আপনার শ্বশুরবাড়ির সম্মানহানি হতে পারে সেটা তো একদমই বলবেন না। আপনার মাও কিন্তু একদম তাই করেছেন। 

২) অত্যাচার লুকোবেন না

শ্বশুরবাড়িতে যদি আপনার উপর শারীরিক বা মানসিক নির্যাতন হয় সেটা বাবা মার কাছে একদম লুকোবেন না। এটা প্রথমবার হয়েছে আর হবে না এটাও ভাববেন না। অনেক মেয়েই অনেক কিছু লুকিয়ে যান এটা ভেবে যে বাবা মার বয়স হয়েছে, তাঁদের বিরক্ত করব না। না, এটা আপনার ভুল ধারণা। তাঁদেরকে অবশ্যই বলবেন। এর চেয়ে দামী টিপস আর কিছু হয়না যে বিয়ের পরেও তুমি আমাদেরই সন্তান, তোমার পাশে দাঁড়ানো আমাদের কর্তব্য।  

৩) দশে মিলে করি কাজ

আপনি একটা বাড়িতে ছোট থেকে বড় হয়েছেন। ভাল করে ভাবুন দেখি, আপনার নিজের পরিবারে প্রত্যেকেই কি আপনার খুব ঘনিষ্ঠ? বা প্রত্যেকেই কি খুব ভাল? না নিশ্চয়ই? তাহলে শ্বশুরবাড়িতে সেই প্রত্যাশা রাখবেন কেন? আপনার মায়ের কথা শুনুন। সবাই আপনার মনের মতো হবে না। কিন্তু সবাইকে মনের মতো করে নিতে হবে। সেখানেই আপনার সার্থকতা। 

 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...