চটজলদি ভুঁড়ি কমাতে চান? তা হলে রোজ রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এই পানীয়গুলি খেতে ভুলবেন না!

চটজলদি ভুঁড়ি কমাতে চান? তা হলে রোজ রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এই পানীয়গুলি খেতে ভুলবেন না!

ওজন কমানো এমনিতেই কঠিন কাজ। তার উপর যদি কোমর চওড়া হতে শুরু করে, তা হলে তো আরও বিপদ! কারণ, ভুঁড়ি কমাতে বাস্তবিকই কাল ঘাম ছুটে যায়। কারণ, এক্ষেত্রে শুধু ডায়েটিং করলেই চলে না। সঙ্গে শরীরচর্চাও চালাতে হয় সমান তালে। তা-ও যে হাতে-নাতে ফল মেলে, এমন নয়। কাঙ্খিত ফল পেতে মাসের পর মাস ধৈর্য ধরে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হয়। কী বললেন, অত ধৈর্য নেই! তা হলে তো ডায়েটিং আর শরীরচর্চার পাশাপাশি বেশ কিছু ঘরোয়া টোটকার উপর আপনাকে ভরসা রাখতেই হবে, তবে গিয়ে চটজলদি ভুঁড়ি কমবে। বলেন কী, ওজন কমানোর ঘরোয়া টোটকাও রয়েছে! রাতে শুতে যাওয়ার আগে নানা প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি বেশ কিছু পানীয় খাওয়ার অভ্যাস করুন, তাতেই ফল মিলবে। নিশ্চয়ই ভাবছেন, পানীয় খেয়ে ওজন কমবে কীভাবে? তাহলে জেনে রাখুন এই পানীয়গুলি যেমন তেমন পানীয় নয়, বরং ওজন কমানোর একেবারে মোক্ষম দাওয়াই। কারণ, এতে এমন কিছু উপাদান রয়েছে, যা মেটাবলিজম রেটকে বাড়িয়ে তোলে, যে কারণে দেহের চর্বি গলানোর প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয়। ফলে শরীরের ইতিউতি জমে থাকা মেদ ঝরতে শুরু করে। বিশেষ করে ভুঁড়ি কমে যেতে একেবারে সময়ই লাগে না। তা হলে চলুন এবার পানীয়গুলি সম্পর্কে একটু জেনে-বুঝে নেওয়া যাক!

১. শসা-লেবুর জুস

pixabay

মাঝারি মাপের একটা শসার খোসা ছাড়িয়ে ছোট-ছোট টুকরো করে নিয়ে মিক্সিতে রাখুন। এবার তাতে এক মুঠো পার্সলে পাতা, চামচ চারেক লেবুর রস এবং এক কাপ জল মিশিয়ে ভাল করে মিক্স করে নিন। যখন দেখবেন প্রতিটি উপাদান ঠিক মতো মিশে গেছে, তখন পান করুন। ঘুমোতে যাওয়ার আগে নিয়ম করে এই পানীয় (bedtime drinks) পান করলে শরীরে ফাইবারের পাশাপাশি ভিটামিন এ, বি, সি এবং কে-এর মাত্রা বাড়তে শুরু করবে। সেই সঙ্গে লেবুর গুণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ঘাটতিও মিটবে। এই প্রতিটি উপাদানই মেটাবলিজম রেটের উন্নতি ঘটায়, সেই সঙ্গে শরীরে প্রদাহের মাত্রাও কমায়, যে কারণে ওজন নিয়ন্ত্রণে চলে আসতে সময় লাগে না।

২. আদা চা

এক্কেবারে ঠিক শুনেছেন! চটজলদি ভুঁড়ি (belly) কমাতে আদা চায়ের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। এতে উপস্থিত নানা উপকারী উপাদানের গুণে হজম ক্ষমতার যেমন উন্নতি ঘটে, তেমনই রক্তে মিশে যাকা ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানগুলিও নষ্ট হয়ে যায়। ফলে ওজন কমতে সময় লাগে না। এই পানীয়টি তৈরি করতে এক কাপ জল ফুটিয়ে নিন। তারপর তাতে দেড় চামচ আদাকুচি, এক চামচ মধু এবং এক চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পান করুন। প্রতিদিন রাতের খাবার খাওয়ার পরে এই পানীয় খেলে উপকার পাবেই পাবেন।

৩. দারচিনি দিয়ে তৈরি চা

pixabay

মেটাবলিজম রেটের উন্নতি ঘটানোটাই যখন মূল লক্ষ, তখন দারচিনিকে ভুলে গেলে চলবে কীভাবে বলুন! এই প্রাকৃতিক উপাদানটিতে মজুত থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টিবায়োটিক উপাদান, যা মেটাবলিজম রেটের উন্নতি ঘটানোর পাশাপাশি শরীরে উপস্থিত ক্ষতিকর উপাদানগুলিকে ধ্বংস করে দেয়, যে কারণে ওজন কমতে যেমন সময় লাগে না, তেমনই ছোট-বড় নানা রোগের খপ্পরে পড়ার আশঙ্কাও কমে। এখন প্রশ্ন হল, এত সব উপকার পেতে দারচিনি খাবেন কীভাবে? এক কাপ জল ফুটিয়ে তাতে এক চামচ দারচিনি গুঁড়ো মিশিয়ে মিনিটকুড়ি অপেক্ষা করে পানীয়টি পান করুন। এতে অল্প করে মধু মিশিয়ে নিতে পারেন। তাতে দ্রুত উপকার পাবেন। তবে রাতে শুতে যাওয়ার এক ঘণ্টা আগে পানীয়টি পান করতে হবে, তবেই কিন্তু উপকার মিলবে।

৪. Chamomile চা

ডিনারের পরে নিয়ম করে ক্যামোমাইল চা (Chamomile) পান করলে শরীরে পটাসিয়াম, ক্যালসিয়াম এবং flavonoid-এর মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। এই তিনটি উপাদান ওজন তো কমায়ই, সঙ্গে হজম ক্ষমতার উন্নতিতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়, যে কারণে গ্যাস-অম্বল এবং বদহজমের মতো সমস্যার প্রকোপ কমতে সময় লাগে না।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty - POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়...