লো প্রোটিন ডায়েট - ব্যাপারটাই বা কী আর কেনই বা মেনে চলবেন

লো প্রোটিন ডায়েট - ব্যাপারটাই বা কী আর কেনই বা মেনে চলবেন

আমরা যা যা খাবার (food) খাই, সবকিছুরই আমাদের শরীরে কিছু না কিছু প্রয়োজন রয়েছে, কিন্তু প্রয়োজনের তুলনায় যখন খাবারের পরিমাণ বেশি হয়ে যায়, তখনই নানা রকমের শারীরিক সমস্যা সৃষ্টি হয়। অনেকেরই হজমশক্তি দুর্বল (digestion issue) এবং সে কারণে প্রোটিনযুক্ত খাবার হজম করতে তাঁদের সমস্যা (digestion issue) বেশি হয়। এঁরা কিন্তু অনায়াসে লো প্রোটিন ডায়েট (low protein diet) মেনে চলতে পারেন। তবে আমাদের মতে, লো প্রোটিন ডায়েট (low protein diet) শুরু করার আগে অবশ্যই একবার চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নেওয়া উচিত।

লো প্রোটিন ডায়েট কী?

একজন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের সারাদিনে যতটা প্রোটিন খাওয়া প্রয়োজন তার তুলনায় বেশ অনেকটা কম প্রোটিন যখন খেতে হয় (বিশেষ কিছু শারীরিক সমস্যার কারণে) তখন তাঁকে বলা হয় লো প্রোটিন ডায়েট (low protein diet)। দিনে মাত্র ২০ থেকে ৪০ গ্রাম প্রোটিন খাওয়া যেতে পারে এই ডায়েট মেনে চলার সময়ে। যদিও প্রোটিন আমাদের শরীরে একান্ত প্রয়োজন, কিন্তু কোনও কোনও সময়ে শরীরে প্রোটিনের মাত্রা বেড়ে গেলে নানা শারীরিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

কাদের জন্য লো প্রোটিন ডায়েট আদর্শ

যাঁদের শরীরে মেটাবলিক ডিজঅর্ডার রয়েছে অর্থাৎ যাঁদের হজমে নানারকম সমস্যা ((digestion issue)) দেখা যায় এবং ফলস্বরূপ আরও নানা শারীরিক সমস্যা সৃষ্টি হয় তাঁদের জন্য লো প্রোটিন ডায়েট আদর্শ। অনেকেই নানারকম হজম জনিত সমস্যার সম্মুখীন হন সঠিক জীবনযাত্রা না হওয়ার কারণে এবং তাঁদের কিডনির সমস্যা, দুর্বল লিভার, অতিরিক্ত ইউরিক অ্যাসিড, homocyteinuria এবং phenylketonuria-র মতো সমস্যায় ভুগতে হয়। খাবারে প্রোটিনের পরিমাণ কমিয়ে কিন্তু এই সব সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

লো প্রোটিন ফুড বলতে কী বোঝায়

শাটারস্টক

বিশেষ কিছু খাবার (food) আপনি নিজের ডায়েটে অন্তর্ভুক্ত করতে পারে যেগুলিতে প্রোটিনের পরিমাণ খুবই কম এবং খুব সহজেই তা হজম হয়ে যায়। প্রতিদিনের খাবারে ভাত, আটার রুটি, ব্রাউন ব্রেড, কর্ণফ্লেক্স, পালং শাক, বিট, মুলো, কুমড়ো, গাজর, আপেল, কলা, পাকা পেঁপে, মাখন, অলিভ অয়েল, ড্রাই ফ্রুট, কমলা লেবু ইত্যাদি রাখুন।

একটি লো প্রোটিন ডায়েট চার্ট কীরকম হওয়া উচিত

এখানে একটি স্যাম্পেল লো প্রোটিন ডায়েট চার্ট দেওয়া হল যা নিরামিষাশী এবং যারা আমিষ খান, দুজনেই মেনে চলতে পারেন। ডায়েট চার্টে দেওয়া খাবারগুলো চাইলে বদলাতে পারেন।

প্রাতরাশ – সকাল আটটার মধ্যে

একটা কমলালেবু, আধ কাপ কর্ণফ্লেক্স এবং একবাটি লো ফ্যাট দুধ, এক কাপ গ্রিন টি এবং আধ চা চামচ মাখন (যারা নিরামিষ খান)

একটি ডিমের সাদা অংশ, একটি আটার রুটি বা ব্রাউন ব্রেড, আধ কাপ দুধ (চিনি ছাড়া হলে ভাল, না হলে আধ চা চামচের বেশি চিনি দেবেন না) (যারা আমিষ খান)

দুপুরের খাবার – দুপুর একটার মধ্যে

আধ কাপ সেদ্ধ করা ব্রোকলি, আধ চা চামচ মাখন, আধ কাপ পুডিং, এক কাপ গ্রিন টি (যারা নিরামিষ খান)

২০ গ্রাম বা একটি ছোট টুকরো দেশি মুর্গি (গ্রিল বা রোস্ট করা), এক স্লাইস ব্রাউন ব্রেড, একটি আপেল বা এক গ্লাস আঙ্গুরের রস (যারা আমিষ খান)

বিকেলের খাবার – বিকেল চারটের মধ্যে

ছোট বাটির এক বাটি ছোলা সেদ্ধ (আধ চা চামচ মাখনে টস করা), আধ কাপ আপেলের রস, এক চামচ জেলি দিয়ে দুটো থিন অ্যারারুট বিস্কিট

সন্ধেবেলা – সন্ধে ছ’টার মধ্যে

একটা কলা খান

রাতের খাবার – রাত সাড়ে আটটার মধ্যে

এক বাটি টোম্যাটো সুপ, একটা বেকড পোট্যাটো, আধ কাপ সেদ্ধ করা পালং শাক, এক কাপ গ্রিন বা ক্যামোমাইল টি (যারা নিরামিষ খান)

চারটে এপ্রিকট, এক বাটি চিকেন লিভার এক চামচ মাখনে টস করা, এক স্লাইস ব্রাউন ব্রেড, এক কাপ গ্রিন বা ক্যামোমাইল টি (যারা আমিষ খান)

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এসে গেল #POPxoEverydayBeauty – POPxo-র স্কিন, বাথ, বডি এবং হেয়ার প্রোডাক্টস নিয়ে, যা ব্যবহার করা ১০০% সহজ, ব্যবহার করতে মজাও লাগবে আবার উপকারও পাবেন! এই নতুন লঞ্চ সেলিব্রেট করতে প্রি অর্ডারের উপর এখন পাবেন ২৫% ছাড়ও। সুতরাং দেরি না করে শিগগিরই ক্লিক করুন POPxo.com/beautyshop-এ এবার আপনার রোজকার বিউটি রুটিন POP আপ করুন এক ধাক্কায়