দৈনন্দিন প্রসাধনী কেনার আগে দেখে নিন, এই ক্ষতিকর রাসায়নিকগুলি নেই তো তাতে?

দৈনন্দিন প্রসাধনী কেনার আগে দেখে নিন, এই ক্ষতিকর রাসায়নিকগুলি নেই তো তাতে?

সারাদিনে আমরা না জানি কত রকমের প্রসাধনী সামগ্রী (beauty products) ব্যবহার করি নিজেদের আরও বেশি সুন্দর করে তোলার জন্য। কখনও ত্বক (skin care) উজ্জ্বল করে তোলার জন্য ক্রিম, আবার কখনও বা হাত-পায়ের চামড়া তুলতুলে করে রাখতে বডি লোশন; কখনও মাথার (hair care) খুশকি দূর করতে শ্যাম্পু ব্যবহার করি তো কখনও আবার সুগন্ধি বডি শাওয়ার জেল ব্যবহার করে তুলতুলে ত্বক পাওয়ার চেষ্টা করি। এক-একজন এক-একরকমের ব্র্যান্ড ব্যবহার করতে স্বচ্ছন্দ। কেউ বা বহু বছর ধরে একই ব্র্যান্ডের প্রসাধনী (beauty products) ব্যবহার করে আসছেন। আবার কেউ বা নানা বিজ্ঞাপন দেখে নতুন-নতুন ব্র্যান্ডের প্রসাধনী কেনেন ও ব্যবহার করেন। কিন্তু আমরা যখনই কোনও প্রসাধনী কিনি, তা সে শ্যাম্পু হোক বা সাবান, তেল, বডি লোশন, ময়শ্চারাইজার, শাওয়ার জেল, নাইট ক্রিম অথবা কোনও মেকআপের প্রোডাক্ট, একটা ভুল বেশিরভাগ সময়েই করি। আমরা কখনওই এটা দেখি না, যে প্রসাধনীটি আমরা কিনছি, তা কোন-কোন উপকরণ ও উপাদান দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। অনেক প্রসাধনীতেই এমন অনেক রাসায়নিক উপকরণ (harmful chemicals) ব্যবহার করা হয়, যেগুলো আদতে আমাদের চুল ও ত্বকের জন্য খুবই ক্ষতিকর। বেশিদিন একটানা ব্যবহার করলে ত্বক (skin care) ও চুলের (hair care) খুবই ক্ষতি হতে পারে। সময় থাকতে বরং জেনে নিন যে, কোনও প্রসাধনীতে কী-কী উপকরণ (ingredients) থাকলে সেগুলি একেবারেই আর কিনবেন না!

১। প্যারাবেন (Paraben)

শাটারস্টক

ত্বকের পরিচর্যা (skin care) করার জন্য যে সব প্রসাধনী (beauty products) আপনি ব্যবহার করেন, তার বেশিরভাগের মধ্যে সবচেয়ে বেশি যে রাসায়নিক উপকরণটি (harmful chemicals) দেওয়া হয়, তা হল প্যারাবেন। বেশিরভাগ ক্রিম, বডি লোশন, ময়শ্চারাইজার, শাওয়ার জেল এমনকী, সাবানে পর্যন্ত প্যারাবেন থাকে। শুনলে হয়তো অবাক হবেন, কিন্তু শিশুদের পরিচর্যার প্রোডাক্টেও অনেকসময়েই এই রাসায়নিকটি ব্যবহার করা হয়। বেশিদিন প্যারাবেন ব্যবহার করলে তা থেকে ব্রেস্ট ক্যান্সার পর্যন্ত হতে পারে এবং পুরুষদের শুক্রাণুর কাউন্টও কমে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে বলে বিশেষজ্ঞদের দাবি।

নানা ত্বকের নানা সমস্যার সমাধানে রইল দারুণ কিছু ক্লে মাস্কের হদিশ

২। রুজোসিনল (Resorcinol)

শাটারস্টক

যাঁরা চুল নানা রঙে রাঙাতে ভালবাসেন, তাঁরা হেয়ার কালার করানোর আগে অবশ্যই একটি বিষয় দেখে নেন যে, প্রোডাক্টটিতে অ্যামোনিয়া যাতে না থাকে। কিন্তু আপনারা কি কখনও এটা দেখেন যে, আপনি যে হেয়ার কালারটি করাচ্ছেন, তাতে রুজোসিনল নেই কিনা! গবেষণায় জানা গিয়েছে যে, বেশিরভাগ হেয়ার ডাইয়ে এই ক্ষতিকর রাসায়নিকটি ব্যবহার করা হয়, যা নানারকমের অ্যালার্জি সৃষ্টি করে স্ক্যাল্পে এবং ত্বকে নানা সমস্যা তৈরি করতে পারে।

৩। সোডিয়াম সালফেট (Sodium Salphet)

শাটারস্টক

যখন স্নানের সময়ে শ্যাম্পু করেন বা শাওয়ার জেল লাগান এবং প্রচুর ফেনা বা ফোম তৈরি হয়, না জানি কতই আনন্দ পান! কিন্তু কখনও ভেবে দেখেছেন যে, এত সাদা-সাদা ফেনা কোত্থেকে আসে? প্রচুর পরিমাণে ফেনা তৈরি করার জন্য আপনার সাধের প্রসাধনীতে (beauty products), বিশেষ করে স্নানের জন্য ব্যবহৃত প্রোডাক্টে সোডিয়াম সালফেটের মতো ক্ষতিকর রাসায়নিক (harmful chemicals) ব্যবহার করা হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই উপকরণটি থেকে ত্বকে জ্বালা, শ্বাসকষ্ট, এমনকী, মানসিক অবসাদও আসতে পারে! 

ত্বক কোমল রাখতে বা অ্যাকনে দূর করতে বহুকাল ধরেই চলে আসছে ক্যালেন্ডুলার ব্যবহার

৪। ফরম্যালডিহাইড (Formaldehyde)

শাটারস্টক

আপনি যদি জীবনবিজ্ঞানের ছাত্রী হন, তা হলে তো এই রাসায়নিকটির সঙ্গে আপনি নিশ্চয়ই পরিচিত। ব্যাঙের ডাইসেকশন করার সময়ে এই রাসায়নিকটি ব্যবহার করা হয়। তবে শুনে হয়তো অবাক হবেন যে আপনার ব্যবহার করা দৈনন্দিন নানা প্রসাধনীতেও ফরম্যালডিহাইড ব্যবহার করা হয় যাতে সেটি চট করে নষ্ট না হয়। শ্যাম্পু থেকে শুরু করে নেল পলিশ, সব কিছুতেই এই রাসায়নিকটি প্রিজারভেটিভের কাজ করে!

৫। মিনারেল অয়েল (Mineral Oil)

শাটারস্টক

যদিও অনেকেই বলেন যে, মিনারেল অয়েল নাকি ত্বকের জন্য বেশ উপকারী, তবে আপনি কি জানেন যে পেট্রোলিয়াম থেকে তৈরি হয় এই রাসায়নিক উপকরণটি? কাজেই, পরিশোধিত মিনারেল অয়েল যদি ব্যবহার না করা হয়, সেক্ষেত্রে কিন্তু স্কিন ক্যানসার পর্যন্ত হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়!

কিন্তু তা বলে কি কোনও প্রসাধনী ব্যবহার করবেন না? নিশ্চয়ই ব্যবহার করেন, তবে কেনার আগে ভাল করে দেখে নিন কী-কী উপকরণ দিয়ে প্রোডাক্টটি তৈরি করা হয়েছে।

ছবি সৌজন্য: শাটারস্টক

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!