How To Make Palm Soft (In Bengali) - শীতকালে হাতের তালু নরম রাখার উপায় | POPxo

শীতকালে শুষ্ক হাতের তালু নরম করতে কীভাবে ঘরোয়া উপায়ে যত্ন নেবেন? (How To Make Palm Soft)

শীতকালে শুষ্ক হাতের তালু নরম করতে কীভাবে ঘরোয়া উপায়ে যত্ন নেবেন? (How To Make Palm Soft)

শীতকালে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। এই সমস্যায় প্রায় প্রত্যেকেই ভুক্তোভোগী। আর হাতের তালু শুকনো হয়ে গেলে তা আরও দেখতে খারাপ লাগে। কোনও মেকআপ বা ড্রেসই তখন আর মানায় না। তাছাড়া শুকনো ত্বকে নানা রকম ফাংগাল সমস্যাও হতে পারে। তবে এই সমস্যার সমাধানও সম্ভব। ঘরোয়া উপায়ে খুব সহজেই হাতের তালুর যত্ন (How To Make Palm Soft) নিতে পারবেন আপনি। উপকরণ জোগাড় করাও অনেক সহজ।  আর কেন এই সমস্যা হয়, তা জানা থাকলে সে সব থেকে দূরে থাকতে পারবেন।

Table of Contents

    হাতের তালু কেন শুষ্ক হয়ে যায়? (Causes of Dry Hands)

    শীতকালে হাতের যত্ন
    শীতকালে হাতের যত্ন

    হাতের তালু শুষ্ক হয়ে যাওয়ার সমস্যায় আমরা অনেকেই ভুক্তোভোগী। কিন্তু কেন এই সমস্যায় ভোগেন আপনি? এর কতগুলো সাধারণ কারণ নিয়ে আমরা আলোচনা করব।

    ১| আবহাওয়া: আপনি কোন ধরনের আবহাওয়ায় বেশির ভাগ সময় থাকেন, সেটা এই সমস্যার কারণ অনুসন্ধানের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ। নিশ্চয়ই লক্ষ্য করেছেন, শীতকালে শুধু হাতের তালু (Hand Palm) নয়, শরীরের বিভিন্ন অংশের ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। কারণ এই সময়ে বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ কম থাকে। ফলে শীতকালে এই সমস্যা বেশি।

    ২| শীততাপ নিয়ন্ত্রিত এলাকা: এছাড়া আপনি যদি দিনের বেশির ভাগ সময় এসি অর্থাৎ শীততাপ নিয়ন্ত্রিত কোনও বদ্ধ জায়গায় থাকেন, তাহলেও এই সমস্যা দেখা দেয়।

    ৩| হাত ধোওয়ার অভ্যেস: আপনার পেশার প্রয়োজনে হয়তো আপনাকে বারবার হাত ধুতে হয়। চিকিৎসক, নার্স বা শেফদের ক্ষেত্রে এই প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। প্রচুর পরিমাণে বাসন মাজা বা কাপড় কাচার কাজ করলেও হাতে অনেক বেশি জল লাগে। এতে ত্বকের স্বাভাবিক তৈলাক্ত ভাব নষ্ট হয়ে যায়। ত্বক স্বাভাবিকের থেকে অনেক বেশি শুষ্ক হয়ে ওঠে। 

    ৪| শারীরিক সমস্যা: ডায়াবেটিসের মতো কোনও অসুখের শিকার আপনি? তাহলে সাধারণের তুলনায় অনেক বেশি শুকিয়ে যাবে আপনার ত্বক। এর জন্য প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নিন।  

    ৫| সংক্রমণ: অনেক সময় ফাংগাল ইনফেকশনের কারণেও হাতের তালু ফেটে যাওয়াও সমস্যা হতে পারে।

    শীতের রুক্ষতা থেকে ত্বক বাঁচাতে ব্যবহার করুন এই বডি ওয়াশ গুলো

    ৬| খাওয়ার অভ্যেস: যত বেশি সম্ভব ফল খান এই মরসুমে। এতে শরীর ভেতর থেকে আর্দ্র হবে। আর বেশি মশলাদার খাবার খাওয়ার অভ্যেস থাকলে এই সমস্যা হতে পারে। 

    ৭| পরিমাণ মতো জল: শীতকালে জল খাওয়ার পরিমাণ এমনিতেই কমে যায়। সেটা হলে ত্বক আরও শুষ্ক হয়ে যায়।

    ৮| ত্বকের ধরন: আপনার ত্বক যদি এমনিতেই শুষ্ক ধরনের হয়, তাহলে শীতকালে সেই সমস্যা আরও বাড়বে। ত্বক যদি আগেও থেকেই ড্যামেজ থাকে তাহলে এই সমস্যা ভয়ঙ্কর আকার নিতে পারে।

    ৯| অপরিচ্ছন্নতা: সব সময় পরিচ্ছন্ন থাকার চেষ্টা করুন। খাওয়া বা রান্নার পর হাত ভাল করে পরিষ্কার করে নিতে ভুলবেন না।

    ১০| যত্নের অভাব: সবশেষে যত্ন নেওয়াটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। হাত ধুয়ে ময়শ্চারাইজার (হাতের তালু নরম করার উপায়) লাগিয়ে নিন। প্রয়োজনে গ্লাভস পরে থাকুন।

    হাতের তালু নরম রাখার ঘরোয়া উপায় (Home Remedies for Dry Hands)

    হাতের তালু নরম রাখার কিছু ঘরোয়া উপায় (Home Remedies for Dry Hands) নিয়ে আলোচনা করে নেওয়া যাক। আপনি খুব সহজে বাড়িতেই ট্রাই করতে পারবেন যে কোনও পদ্ধতি। খুব সহজে মিলবে উপকরণও।

    ১| অলিভ অয়েল আর চিনি

    অলিভ অয়েল আর চিনির মিশ্রণ
    অলিভ অয়েল আর চিনির মিশ্রণ

    উপকরণ: আধ চা-চামচ অলিভ অয়েল। এক চামচ চিনি। 

    প্রণালী: অলিভ অয়েল ত্বকের জন্য অত্যন্ত ভাল ময়েশ্চারাইজার হিসেবে কাজ করে। হাতের তালুতে আধ চা-চামচ অলিভ অয়েল নিন। এক চা-চামচ চিনি নিন। এবার আঙুলের সাহায্যে তেল এবং চিনি মিশিয়ে নিন। এবার দুই হাতের তালু (Hand Palm) একসঙ্গে ঘষতে থাকুন। কয়েক মিনিট ঘষে নিন। যাতে ত্বক এই মিশ্রণ সম্পূর্ণ ভাবে শুষে নিতে পারে। ব্যক্তি বিশেষে সময় কম বা বেশি লাগতে পারে। এরপর ইচ্ছে হলে সাধারণ তাপমাত্রার জলে হাত ধুয়েও নিতে পারেন। এই মিশ্রণে ত্বককে নরম (How To Make Palm Soft) করবে। ময়শ্চারাইজার হিসেবে কাজ করবে। খুব কম খরচে ব্যবহার করতে পারেন এই প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার।

    ২| ডিমের কুসুম

    ডিমের কুসুম
    ডিমের কুসুম

    উপকরণ: একটি ডিম। মধু, আলমন্ড পাউডার, গোলাপ জল ।

    প্রণালী: প্রথমেই একটি পাত্রে ডিমের কুসুম এবং সাদা অংশ আলাদা করে নিন। আপনার প্রয়োজন হবে ডিমের কুসুম। ডিমের সাদা অংশ আলাদা করে ব্যবহার করে নিতে পারেন। এর সঙ্গে এক চা-চামচ মধু, আধ চা-চামচ আলমন্ড পাউডার আর কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল মিশিয়ে নিন। ভাল করে নাড়িয়ে তৈরি করে নিন মিশ্রণ। এবার এই মিশ্রণ অন্তত ১০ মিনিট ধরে হাতের তালুতে ঘষে নিন (Home Remedies for Dry Hands)। এরপর শুকোনোর জন্য আরও ১০ মিনিট সময় দিতে হবে। শুকিয়ে গেলে মিশ্রণ হাত থেকে তুলে ফেলুন। জল দিয়ে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে পারেন। হাতের তালু নরম রাখতে কাজে লাগতে পারে এই মিশ্রণ।

    ৩| মাখন, আলমন্ড অয়েল

    আলমন্ড অয়েলের সাথে মাখন
    আলমন্ড অয়েলের সাথে মাখন

    উপকরণ: মাখন, আলমন্ড অয়েল, হালকা গরম জল।

    প্রণালী: একটি ছোট পাত্রে দুই চা-চামচ মাখন এবং এক চা-চামচ আলমন্ড অয়েল নিন। একটি কাঁটা চামচের সাহায্যে ভাল করে মিশিয়ে নিন এই দুই উপকরণ। এবার এই মিশ্রণ দুই হাতের তালুতে (Hand Palm) মেখে নিন। ত্বক যাতে সম্পূর্ণ ভাবে এই মিশ্রণ শুষে নিতে পারে, সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। তাই অন্তত ২০ মিনিট হাতে রেখে দিন এই মিশ্রণ। এরপর শুকিয়ে গেলে হালকা গরম জলে হাত ধুয়ে ফেলতে হবে (Home Remedies For Soft Hand)। আলমন্ড অয়েলের ভিতরে থাকা ভিটামিন ই হাতের তালু ফেটে যাওয়ার সমস্যার সমাধান করবে। এমনকি বলিরেখা দূর করতেও সাহায্য করে এই মিশ্রণ।

    ৪| লেবু এবং চিনি

    লেবু ও চিনির মিশ্রণ
    লেবু ও চিনির মিশ্রণ

    উপকরণ: একটি লেবু এবং প্রয়োজন মতো চিনি।

    প্রণালী: একটি লেবু অর্ধেক করে কেটে নিন। তার উপর ছড়িয়ে দিন কয়েকটি চিনির দানা। এবার এই লেবুটি এক হাতের তালুতে অন্য হাত দিয়ে ঘষতে থাকুন (Home Remedies For Soft Hand)। চিনির দানা একেবারে গলে না যাওয়া পর্যন্ত লেবুটি ঘষে যেতে হবে। একই ভাবে অন্য হাতেও ঘষে নিন আরও অর্ধেক লেবু। খাওয়ার পরে হাত ধুতে গেলও এই পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন। অনেক সময় পেঁয়াজ বা মাছের গন্ধ খাওয়ার পর বা রান্না করার পরও হাতে লেগে থাকে। এভাবে হাত ধুলে সে সব গন্ধ উধাও হবে। এমনকি হাতের তালু নরমও থাকবে।

    ৫| নারকেল তেলের স্ক্রাব

    খাঁটি নারকেল তেল
    খাঁটি নারকেল তেল

    উপকরণ: নারকেল তেল, চিনি, সামুদ্রিক নুন, লেবুর রস।

    প্রণালী: একটি ছোট পাত্রে এক টেবিল চামচ নারকেল তেল নিন। এর মধ্যে দুই টেবিল চামচ চিনি ভাল করে মিশিয়ে নিন। সঙ্গে ১/৪ কাপ সামুদ্রিক নুন এবং ১/৪ কাপ চিনি ফের যোগ করুন। এই মিশ্রণে এবার দিতে হবে  এক টেবিল চামচ লেবুর রস। সব উপকরণ দেওয়া হয়ে গেলে মিশ্রণটি ভাল করে নাড়িয়ে নিতে হবে। এবার আঙুলে করে পরিমাণ মতো এই মিশ্রণ নিতে হাতের তালু এবং আঙুলের ফাঁকে মাখিয়ে নিতে হবে (How To Soften Palm)। কিছুক্ষণ পরে সাধারণ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলে শুকনো করে মুছে নিন। একবারে কিছুটা মিশ্রণ তৈরি করে রেখে দিতে পারেন। প্রতি সপ্তাহে অন্তত দু-বার এই পদ্ধতিতে হাতের যত্ন নিলে নরম থাকবে হাতের তালু।

    ৬| গ্লিসারিন, গোলাপ জল এবং লেবু

    গ্লিসারিন, গোলাপ জল ও লেবুর মিশ্রণ
    গ্লিসারিন, গোলাপ জল ও লেবুর মিশ্রণ

    উপকরণ: গ্লিসারিন, গোলাপ জল, লেবুর রস।

    প্রণালী: এক টেবিল চামচ গ্লিসারিন, সম পরিমাণে গোলাপ জল একটি পাত্রে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এবার কয়েক ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে ভাল করে ঝাঁকিয়ে নিন। এই মিশ্রণ পরিমাণ মতো নিয়ে হাতের তালুতে মাখিয়ে নিন (হাতের তালু নরম করার উপায়)। ত্বক শুষে না নেওয়া পর্যন্ত ভাল করে ঘষে নিন। আঙুলের ফাঁকেও লাগিয়ে নিতে ভুলবেন না। হাত শুকিয়ে গেলে শুকনো পাতলা কাপড়ে মুছে নিন। দিনে দু-তিন বার ব্যবহার করলে উপকার পাবেন দ্রুত।

    ৭| অ্যালোভেরা

    অ্যালোভেরা জেল
    অ্যালোভেরা জেল

    উপকরণ: অ্যালোভেরা জেল।

    প্রণালী: অ্যালোভেরা পাতা থেকে এক রকমের জেল তৈরি হয় সেটা জোগাড় করে পরিমাণ মতো নিয়ে হাতের তালুতে লাগিয়ে রাখুন (How To Soften Palm)। ১৫-২০ মিনিটে হালকা মাসাজ করতে পারেন। অ্যালোভেরা ত্বককে প্রাকৃতিক ভাবে আর্দ্র করে তোলে। প্রতিদিন কাজের ফাঁকে দুই থেকে তিন বার এই জেল ব্যবহার করে নরম রাখতে পারবেন হাতের তালু। 

    ৮| মধু

     খাঁটি মধু
    খাঁটি মধু

    উপকরণ: খাঁটি মধু।

    প্রণালী: প্রাকৃতিক গুণে সমৃদ্ধ খাঁটি মধু মানব দেহের নানা উপকারে লাগে। প্রয়োজন মতো সেই মধু লাগিয়ে নিতে পারেন হাতের তালুতে। অন্তত ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলতে পারেন। প্রতিদিন একবার করে এই টোটকা ট্রাই করতে পারেন। হাতের তালু শুকিয়ে যাবে না। ভেতর থেকে নরম হবে।

    ৯| ওটমিল

    ওটমিল পাউডার
    ওটমিল পাউডার

    উপকরণ: ওটমিল পাউডার, নারকেল তেল।

    প্রণালী: একটি পাত্রে এক টেবিল চামচ ওটমিল পাউডার এবং অর্ধেক টেবিল চামচ নারকেল তেল একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি পরিমাণ মতো নিয়ে হাতের তালুতে মিনিট ১৫ লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। যাঁরা শুঙ্ক ত্বকের সমস্যায় ভোগেন, তাঁরা দিনে একবারের বেশি এই প্রাকৃতিক ময়শ্চারাইজার ট্রাই করতে পারেন। আর আপনার সাধারণ ত্বক হলে দিনে একবার করে এই টোটকা ব্যবহার করতে পারেন। সঙ্গে সঙ্গে ফল পাবেন। এতে ত্বকের স্বাস্থ্যও ভাল থাকে। 

     

    ১০| ভেসলিন

    ভেসলিন জেলি
    ভেসলিন জেলি

    উপকরণ: ভেসলিন পেট্রোলিয়াম জেলি।

    প্রণালী: হাতের তালু নরম রাখার সবচেয়ে সহজলভ্য উপায় হল ভেসলিনের সাহায্য (How To Soften Palm)। যে কোনো সাধারণ দোকানে কিনতে পাওয়া যাবে। প্রতিদিন রাতে শোওয়ার সময় পরিমাণ মতো ভেসলিন নিয়ে দুই হাতে ভাল করে মেখে নিন। সম্ভব বলে সুতির পাতলা গ্লাভস পরে ঘুমোতে যান। এতে হাত আরও ভাল থাকবে।

    হাতের তালু নরম রাখা নিয়ে কিছু প্রশ্নোত্তর (FAQs)

    হাতের তালুর রুক্ষতা
    হাতের তালুর রুক্ষতা

    হাতের তালু নরম রাখা নিয়ে সাধারণ কিছু প্রশ্নোত্তর এবার দেখে নেওয়া যাক।

    ১| এই সব ঘরোয়া উপায়ে হাতের তালু নরম হতে কত সময় লাগবে?

    দেখুন, উপকার কত তাড়াতাড়ি পাবেন, সেটা নির্ভর করে মূলত দুটি জিনিসের ওপর। প্রথমত আপনার ত্বকের ধরন। ত্বক খুব ক্ষতিগ্রস্ত অবস্থায় থাকলে আবার স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে কিছুটা তো সময় লাগবেই। দ্বিতীয়ত আপনি সঠিক ভাবে যত্ন নিচ্ছেন কিনা, সেটাও গুরুত্বপূর্ণ। অন্য কিছু করা একেবারেই সম্ভব না হলে অন্তত নারকেল তেল বা ভেসলিনের টোটকা (হাত পা মোলায়েম করার উপায়) ট্রাই করতে পারেন। সহজেই অল্প সময়ে উপকার পাবেন।

    ২| হাতের তালু শুকিয়ে ফেটে গেলে কি এই সব ঘরোয়া টোটকা কাজে লাগবে?

    শীতকালে যে কোনও ত্বকেরই শুষ্ক হয়ে যাওয়ার প্রবণতা দেখা দেয়।  এই সব ঘরোয়া টোটকা অব্যর্থ সে সব সমস্যায়। কিন্তু আপনার ক্ষেত্রে ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়ার প্রবণতা মাত্রাতিরিক্ত হলে তার কারণ ইনফেকশন হতে পারে। ফলে সেক্ষেত্রে প্রাথমিক ভাবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে নেওয়া ভাল। 

    ৩| হাতের তালু শুষ্ক হওয়া থেকে বাঁচতে কোন লোশন সবচেয়ে ভাল?

    হাতের তালু মোলায়েম করতে প্রাকৃতিক উপাদানে তৈরি হ্যান্ড লোশন কিনতে পারেন। নারকেল তেল, মাখন, ওটামিল দিয়ে তৈরি হ্যান্ড লোশন কিনুন। কেনার আগে সে সম্বন্ধে ভাল করে জেনে নিন। আর এ সব না পাওয়া গেলে ভেসলিন অব্যর্থ টোটকা হিসেবে কাজ করে।

    POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

    আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!

    Image Source: Instagram