পায়ের ফোলা ভাব ও ব্যথা দূর করতে ট্রাই করুন সহজ এই ঘরোয়া চিকিৎসাগুলো

পায়ের ফোলা ভাব ও ব্যথা দূর করতে ট্রাই করুন সহজ এই ঘরোয়া চিকিৎসাগুলো

পা ফুলে (swollen feet) গিয়ে পায়ে ব্যথা হওয়াটা আজকাল মোটামুটি সব বয়সের মানুষেরই একটি তিক্ত অভিজ্ঞতা। আসলে আমাদের এই ব্যস্ত জীবনে নিজেদের জন্য, বিশেষ করে শরীরের অভ্যন্তরীণ যত্ন নেওয়ার জন্য আমরা খুব একটা সময় খরচ করতে চাই না। আগেকার দিনে শোনা যেত যে বয়স হলে পা ফুলে যায়, পায়ে ব্যথা হয়। কিন্তু এখন পা ফোলার (swollen feet) কোনও বয়স নেই। আট থেকে আশি, যে কেউই এই সমস্যায় পড়তে পারেন। নানা কারণে পা ফোলার সমস্যা হতে পারে। অনেকেই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়ার পক্ষপাতী নন, এসব ‘ছোটখাটো’ সমস্যা নিয়ে। তাঁরা কিন্তু খুব সহজ কিছু ঘরোয়া চিকিৎসা (natural remedies) করতে পারেন পায়ে ব্যথার কষ্ট লাঘব করার জন্য।

ফুট মাসাজ

পা ফোলা (swollen feet) দূর করতে বা পায়ে ব্যথা কমাতে নিয়মিত ফুট মাসাজ কিন্তু খুব উপকারী। অনেকসময়েই আমাদের মাংসপেশিতে টান ধরে এবং পা ফুলে গিয়ে ব্যথা হয়। সেক্ষেত্রে দিনে এক-দু’বার অলিভ অয়েল বা নারকেল তেল ঊষ্ণ করে যদি পায়ের পাতায়, কাফ মাসলে অথবা জয়েন্টে মাসাজ করতে পারেন, তা হলে উপকার পাবেন।

কাঁচা হলুদ

কাঁচা হলুদ যে দারুণ অ্যান্টিসেপটিক, তা আমরা সবাই জানি। কাঁচা হলুদের মধ্যে কারকুমিন নামে একটি উপাদান রয়েছে যা মাংসপেশির ব্যথা বা পায়ের ফোলাভাব দূর করতে সাহায্য করে। পা ফুলে গিয়ে ব্যথা হলে গরম দুধে সামান্য হলুদ বাটা বা গুঁড়ো মিশিয়ে পান করতে পারেন আবার ব্যথার জায়গায় কাঁচা হলুদ বাটার প্রলেপও লাগাতে পারেন।

গরম ও ঠান্ডা জলের সেঁক

যে-কোনও কারণে চোট লেগে যদি পায়ে ব্যথা হয় এবং তা ফুলে যায় (swollen feet) তা হলে গরম ও ঠান্ডা জল দিয়ে যদি সেঁক দেন তাহলে উপকার পাবেন। যে-কোনও ফোলাভাব ও ব্যথা দূর করতে এই পদ্ধতিটি কিন্তু বহু পুরনো ঘরোয়া চিকিৎসা (natural remedies) হিসেবে অনেকেই করে থাকেন। দু'টি বালতি নিয়ে তাঁর একটিতে গরম জল এবং অন্যটিতে ঠান্ডা জল রাখুন। এবারে যে পায়ে ব্যথা ও ফোলাভাব রয়েছে, সেটি গরমজলে ডুবিয়ে রাখুন মিনিটপাঁচেক এবং তারপরে ঠান্ডা জলে মিনিটপাঁচেক ডুবিয়ে রাখুন। এভাবে দিনে দু'-তিনবার করলে সপ্তাহখানেকের মধ্যেই আরাম পাবেন।

সঠিক জুতো পরুন

পা ফুলে যাওয়া বা পায়ে ব্যথা হওয়ার একটি অন্যতম কারণ কিন্তু সঠিক জুতো না পরা। অনেকেই সারাদিন হাই হিল পরেন অথবা পায়ের মাপের তুলনায় ছোট জুতো পরেন বা পুরনো জুতো পরতেই থাকেন। অনেকেই জামাকাপড় ভাল কোয়ালিটির পরলেও ভাল জুতো পরেন না। দেখতে সুন্দর অথবা দামি হলেই যে সেই জুতোটি খুব উচ্চমানের হবে, তা কিন্তু নয়। একটি জুতো ছ'মাসের বেশি পরা উচিত না বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন। যদি আপনার পায়ে ব্যথা থাকে বা পায়ের পাতা ফুলে (swollen feet) যায় সেক্ষেত্রে আপনি ডক্টরস শু পরতে পারেন অথবা এমন জুতো পরুন যার ভিতরে নরম প্যাডিং করা আছে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!