নতুন বছরে ভালবাসার সম্পর্ককে আরও একটু মধুর করতে তুলতে চান তো মাথায় রাখুন এই টিপসগুলি

নতুন বছরে ভালবাসার সম্পর্ককে আরও একটু মধুর করতে তুলতে চান তো মাথায় রাখুন এই টিপসগুলি

নতুন বছরে ফিট থাকা থেকে চাকরি, নানা বিষয়ে নিউ ইয়ার resolution তৈরির হিড়িক পড়ে যায়। কিন্তু ভালাবাসার সম্পর্ক নিয়ে সিংহভাগই কোনও 'গোল সেট' করেন না। 'ওই তো চলছে, চলবে' গোছের মানসিকতা নিয়ে সেই গতে বাঁধা নিয়মে চলতে চলতে এক সময় প্রেম যেন তার দুষ্টুমি হারিয়ে কেমন যেন থোড় বড়ি খাড়া আর খাড়া বড়ি থোড় গোছের হয়ে যায়। এক সময় যাঁর হাত না ধরলে রাস্তা পেরতে মন চাইতো না। যাঁকে জড়িয়ে না শুলে ঘুম পালাতো, সেই প্রেমের মানুষটা কেমন যেন 'পর' গোছের হয়ে থেকে যায়। অগত্যা রোজের জীবনে প্রেম মরে গিয়ে একাকিত্ব দানা বাঁধে। শেষমেষ ভালবাসা কর্পূরের মতো উবে যায়। সত্যি বলুন তো বাকি অনেকের মতো আপনার লাভ লাইফও এমন নিষ্প্রাণ হয়ে যাক, এমনটা চান নাকি? আলবাত চাই না! তাহলে নতুন বছরে নিজেকে কিছু কথা দিন। বিশেষ করে New Year resolution-এর লম্বা লিস্টে এই বিষয়গুলি রাখতে ভুলবেন না, তাহলেই দেখবেন ২০২০ সালে (2020) প্রেমের সম্পর্ক এক অন্য মাত্রা পাবে।

কাছে পিঠে কোথাও ঘুরে আসুন

pixabay

ঝট করে প্ল্যান করে দু'জন মিলে কোথাও ঘুরে আসুন দেখি। বেশি ভিড়ভাট্টায় যাবেন না যেন! ফাঁকায় ফাঁকায় দিন তিনেক দু'জনে মিলে নিজেদের মতো করে কিছুটা সময় কাটান। যা মনে চায়, তাই করুন। চুটিয়ে একে অপরকে ভালবাসুন। নতুন বছরে কী কী করতে চান, তার একটা লিস্ট তৈরি করে ফেলুন। আর এই সবের মাঝে একদিন ক্যান্ডেল লাইট ডিনারের প্ল্যান করতে ভুলবেন না যেন! শহুরে টেনশন আর শোরগোল থেকে দূরে কয়েকটা দিন একান্তে কাটালে দেখবেন ভালবাসার মরা গাঙে বান আসতে সময় লাগবে না। তাছাড়া বছর শেষে একটু রিল্যাক্স করারও তো প্রয়োজন রয়েছে। তাই আজই অফিসে ছুটির অ্যাপ্লাই করে দিন। সুযোগ থাকলে পার্টনারকে বেরাতে যাওয়ার কথাটা আগে থাকতে বলবেন না। শুধু ছুটি নেওয়ার অনুরোধ করুন। বাকিটা ওর অজান্তেই প্ল্যান করে ফেলুন। বছরের শুরুতে এমন সারপ্রাইজ পেলে আপনার হাবির যে মন্দ লাগবে না, সে কথা হলফ করে বলতে পারি।

নতুন কিছু হয়ে যাক!

pixabay

গথে বাঁধা জীবন আমাদের কারও পছন্দ নয়। বিশেষ করে প্রেম যদি একঘেয়ে হয়ে যায়, তাহলে তো বড়ই মুশকিল। তাই তো নতুন বছরে একটা কাজ আপনাকে করতেই হবে। কী কাজ শুনি? এতদিন দু'জনে মিলে যা করেননি, তাই এবার করতে হবে। ধরুন কোনও দিন আপনারা জাপানি খাবার টেস্ট করেননি। এই বছরে তেমন একটা আউটিং করতে পারেন। অ্যাডভেঞ্চারের নেশা থাকলে টাকা জমিয়ে প্রায়ই বেরিয়ে পরতে পারেন নিত্য নতুন অভিজ্ঞতার সন্ধানে। আবার ইচ্ছা হলে দু'জনে মিলে নতুন কিছু শিখতেও পারেন। মোট কথা, যেন তেন প্রকারেন জীবনটাকে আরও মজাদার করে তুলতে হবে। জানবেন, মন খুশি থাকলে প্রেমও (love life) চাঙ্গা থাকবে। তাই আর সময় নষ্ট না করে আসছে রবিবার দুই মাথা এক করে আগামী ছয় মাসের একটা প্ল্যান তৈরি করে ফেলুন। প্রয়োজন হলে দু'জন মিলে টাকা জমিয়ে সখ আহ্লাদ পূরণ করুন। দেখবেন, এই টিপসটা মানলে ভালবাসার সম্পর্কে কখনও পলি পড়বে না।

সপ্তাহে একদিন একসঙ্গে সময় কাটানো মাস্ট

pixabay

দু'জনেই নিশ্চয়ই চাকরি করেন? তাই ছুটির দিন ছাড়া যে একসঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ পান না, তা আর বলতে হবে না। তাই শনি বা রবি, যে কোনও একদিন দু'জন মিলে সারা দিনটা কাটান। মুভি আউটিংয়ে যান। নতুন নতুন রেস্তরাঁয় ঢুঁ মারুন। কোনও কিছু যদি ইচ্ছা না করে, তাহলে কলেজ লাইফের মতো হয় ইকো পার্ক, নয়তো ভিক্টোরিয়ায় গিয়ে কিছুটা সময় একসঙ্গে কাটান। খিদে পেলে ফুচকার কম্পিটিশনও করতে পারেন। এই ভাবেই তো হারিয়ে যাওয়া প্রেমের স্মৃতিগুলো আবার ফিরে আসবে। ফিরে আসবে সেই পুরনো মজাটা। তবেই না প্রেম জমে উঠবে। আর যদি সারা সপ্তাহ অফিসের হাল টানার পরে ছুটির দিনে বেরতে ইচ্ছা না করে, তাহলে সেদিন বাইরে থেকেই খাবার অর্ডার করুন। একসঙ্গে গল্প করতে করতে লাঞ্চ সারুন। ইচ্ছা মতো সিনেমা দেখুন। মোদ্দাকথা ছুটির দিন পার্টনারের সঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ হারালে চলবে না।

সেক্স লাইফকে আরও মজাদার করে তুলুন

pixabay

বহু বছর সম্পর্কে থাকার পরে শরীরিক দূরত্ব বাড়তে থাকে, যে কারণেই ভালবাসার সম্পর্ক একঘেয়ে হয়ে যায়। তাই তো সেক্স লাইফের দিকে একটু আলাদা করেই নজর দিতে হবে। কারণ, পার্টনারের সঙ্গে খুনসুটি আর দুষ্টু-মিষ্টি প্রেম বজায় থাকলে তবেই না প্রেমের আগুন দাউদাউ করে জ্বলবে। তাই শারীরিক মিলনের মুহূর্তকে আরও মজাদার করে তুলতে হবে। প্রয়োজনে এই নিয়ে পার্টনার সঙ্গে কথা বলতে লজ্জা পাবেন না যেন! জানবেন, শরীর যত প্রেম খুঁজে পাবে, ভালবাসার ভিতও তত মজবুত হবে।

প্রত্যাশা ভাল, কিন্তু অতি প্রত্যাশা ধ্বংসের কারণ হতে পারে

pixabay

কাউকে মন-প্রাণ দিয়ে ভালবাসলে তাঁর প্রতি প্রত্যাশা জন্মানোটা খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু তাই বলে প্রত্যাশার চাপে সম্পর্কটাই যাতে শেষ হয়ে না যায়, সেদিকেও তো নজর রাখতে হবে। তাহলে কী করণীয়? খেয়াল করে দেখবেন অনেকেই ভাবেন মুখে কিছু না বললেও পার্টনার তাঁদের মনের কথা ঠিক বুঝে যাবেন। বাস্তবে কিন্তু এমনটা হয় না। কারও পক্ষেই অন্য কারও মনের কথা বুঝে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই এমন অবাস্তব প্রত্যাশা না রাখাই ভাল। বরং মনের কথা প্রাণ খুলে বলে ফেলার অভ্যাস করুন, তাতে ভুলবোঝাবুঝি হওয়ার আশঙ্কা কমবে। আমি-আপনি আরেকটা ভুল কাজও করে থাকি। কী সেটা জানেন? আজকের কথা না ভেবে ভবিষ্যত কীভাবে সুন্দর হবে সেই চেষ্টায় লেগে থাকি। এই কারণেও কিন্তু অনেক সময় প্রেমে ভাটা পড়ে। তাই তো বলি, বর্তমানে বাঁচাটাই বুদ্ধিমানের কাজ। এই মুহূর্তটাকে কীভাবে আনন্দে ভরিয়ে তোলা যায়, সেই চেষ্টা করুন, তাহলেই দেখবেন জীবনে সুখের ছোঁয়া লাগবে। তাছাড়া প্রতিটা দিন আনন্দে কাটলে আগামী দিনগুলিও তো সুখকর হবে। তাই ভবিষ্যতের কথা ভেবে আজকের দিনটাকে নষ্ট করে ফেলবেন না! বরং আজ এমন কাজ করুন যাতে তা সুখের স্মৃতি হয়ে ভবিষ্যতের দিনগুলিকে আরও আলোকিত করে তোলে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

এই দশকটি আমরা শেষ করতে চলেছি #POPxoLucky2020-র মাধ্যমে। যেখানে আপনারা প্রতিদিন পাবেন নতুন-নতুন সারপ্রাইজ। আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার আগামী বছরটা POPup করে ফেলুন!