যে কোনও মরসুমে ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে এই Anti-Ageing পানীয়টির কোনও বিকল্প নেই

যে কোনও মরসুমে ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে এই Anti-Ageing পানীয়টির কোনও বিকল্প নেই

শরীরকে সচল রাখতে যেমন নানা পুষ্টিকর উপাদানের প্রয়োজন পড়ে, তেমনই ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতিতেও বেশ কিছু ভিটামিন এবং মিনারেল বিশেষ ভূমিকা নেয়। তাই তো ডায়েটের দিকে নজর রাখা মাস্ট! ভুলে যাবেন না সুস্থ ত্বক কিন্তু প্রকৃত সৌন্দর্যের চাবিকাঠি। তাই তো ভিতর থেকে ত্বক সুন্দর হয়ে উঠলে বাইরের জেল্লা বাড়তেও সময় লাগে না। তাতে করে প্রসাধনীর খরচ তো বাঁচবেই, সঙ্গে নানা রকমের ত্বকের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও কমবে।

তাহলে কী করণীয়?

pixabay

রোজের ডায়েটে এমন কিছু খাবারকে জায়গা করে দিতে হবে যাতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি, ই, উপকারী ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ওমেগা ৩ এবং ৬ মজুত রয়েছে। কী কী খাবারে এই সব পুষ্টিকর উপাদানগুলি রয়েছে? ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ঘাটতি মেটাতে পাতিলেবু, মৌসম্বি লেবু, ব্রকলি, সবুজ শাক-সবজি এবং টোম্যাটো বেশি করে খেতে হবে। এদিকে ভিটামিন ই-এর ঘাটতি মিটবে হোল গ্রেন এবং সবজু শাক-সবজি খেলে। ওমেগা ৩ এবং ৬-এর চাহিদা মেটাতে প্রতিদিন এক পিস করে মাছ খেতে ভুলবেন না যেন! আর যদি প্রশ্ন করেন, এত সব খাবার খেলে কী কী উপকার মিলবে, তাহলে জেনে রাখুন ভিটামিন সি collagen-এর উৎপাদন বাড়িয়ে ত্বকের (Skin) সৌন্দর্য ধরে রাখে। অন্যদিকে ভিটামিন ই সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির হাত থেকে ত্বককে আড়াল করে রাখে। এদিকে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বকের ভিতরে প্রদাহের মাত্রা কমানোর মধ্যে দিয়ে নানা ধরনের ত্বকের রোগকে দূরে রাখতে বিশেষ ভূমিকা নেয়।

 

সুন্দর ত্বক পেতে আরও একটা বিকল্পও রয়েছে

pixabay

এত সব খাবার কখন খাবেন, তাই ভাবছেন নাকি? তাহলে একটা কাজ করুন। কী কাজ? প্রতিদিন এক বাটি করে সবজি খাওয়ার পাশাপাশি এবার যে পানীয়টির প্রসঙ্গে আলোচনা করতে চলেছি, তা নিয়মিত খাওয়া শুরু করে দিন। তাতে করে ত্বকের প্রয়োজনীয় প্রায় সবকটি উপকারী উপাদানের ঘাটতি মিটতে সময় লাগবে না। ফলে অল্প দিনেই ত্বকের সৌন্দর্য বাড়বে বই কী! এই Anti-Ageing Drink তৈরি করতে প্রয়োজন পড়বে কলা, আনারস, তিসি বীজ, নারকেল তেল, আদা, দারচিনি, নারকেলের দুধ এবং হলুদের।

আরও পড়ুন: ত্বক তুলতুলে রাখতে ঘরেই তৈরি করে ফেলুন চকোলেট ফেসপ্যাক

পানীয়টি তৈরির প্রণালী

pixabay

একটা পাকা কলা টুকরো টুকরো করে কেটে নিন। এবার মিক্সিতে কলার টুকরোর সঙ্গে চার-ছয় পিস আনারাস, এক চামচ ভার্জিন নারকেল তেল, হাফ চামচ দারচিনি গুঁড়ো, এক চামচ হলুদ, হাফ চামচ আদা কুচি, এক চামচ তিসি বীজ এবং হাফ কাপ নারকেলের দুধ মিশিয়ে ভাল করে মিক্স করে নিন। মিনিট খানেক পরে মিশ্রণটি গ্লাসে ঢেলে পান করুন। ইচ্ছা হলে পানীয়টি খাওয়া আগে অল্প করে মধুও মিশিয়ে নিতে পারেন।

নিয়মিত এই পানীয়টি পান করা শুরু করলে ত্বকের সৌন্দর্য তো বাড়বেই, সেই সঙ্গে নানা উপকারী উপাদানের গুণে ছোট-বড় হাজার রকমের রোগও ধারে কাছে ঘেঁষার সুযোগ পাবে না। কারণ, নারকেল তেল এবং নারকেলের দুধে রয়েছে উপকারী ফ্যাটি অ্যাসিড, যা হার্টের রোগ এবং স্ট্রোকের আশঙ্কা কমায়। সেই সঙ্গে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রাও কমে। উপকারী ফ্যাটি অ্যাসিডের গুণে ব্লাড প্রেসারও নিয়ন্ত্রণে থাকতে বাধ্য হয়। অন্যদিকে তিসি বীজে রয়েছে ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড। আর হলুদ এবং আদায় মজুত রয়েছে নানা ধরনের ভিটামিন এবং মিনারেল, যা শরীর এবং ত্বকের ভিতরে প্রদাহের মাত্রা কমিয়ে নানা রোগ-ব্যাধিকে দূরে রাখতে সাহায্য করে। তাই বুঝতেই পারছেন, ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে তো বটেই, সেই সঙ্গে শরীরকে সুস্থ রাখতেও এই পানীয়টির কোনও বিকল্প নেই বললেই চলে।

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

২০২০ শুরু করুন আমাদের দারুণ দারুণ প্ল্যানার আর স্টেটমেন্ট সোয়েটশার্ট দিয়ে। এগুলো সবকটাই আপনারই মতো একশ শতাংশ মজার এবং অসাধারণ! ওহ হ্যাঁ, শুধুমাত্র আপনার জন্য রয়েছে ২০ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থাও। দেরি কিসের আর, এখনই POPxo.com/shop থেকে কেনাকাটা সেরে ফেলুন আর নিজেকে আরেকটু পপ আপ করে ফেলুন!