শাড়ি পরার সময়ে যেন ভুঁড়ি দেখা না যায় - মেনে চলুন এই কয়েকটি ছোট্ট টিপস

শাড়ি পরার সময়ে যেন ভুঁড়ি দেখা না যায় - মেনে চলুন এই কয়েকটি ছোট্ট টিপস

বঙ্গললনা সারা জীবনে একবারও শাড়ি (saree) পরবে না, এমনটা কোনওদিন শুনেছেন? জীবনে একটিবার হলেও আমি এবং আপনি শাড়ি পড়েছি। আমি এমন অনেককে চিনি যারা শাড়ি পরতে ভালবাসেন। আপনিও নিশ্চয়ই এমন অনেককে চেনেন? তবে এই পোশাকটি শুধুমাত্র বাঙালিদের মধ্যে তো আর সিমাবদ্ধ নেই, বাঙালি ছাড়াও আরও অনেকেই শাড়ি পরেন, এবং রীতিমত ভালবেসে পরেন।

ইনস্টাগ্রাম

শাড়ি নিয়ে অনেকের একটা অদ্ভুত ধারণা আছে যে যাঁদের চেহারা একটু ভারির (fat) দিকে, তাঁরা শাড়ি (saree) পরলে তাদের অতটা ভারী দেখায় না। আমরা বলি কি, আপনার চেহারা ভারী হোক বা পাতলা ছিপছিপে; কয়েকটা ছোট্ট ছোট্ট সাধারণ নিয়ম যদি আপনি মেনে চলেন, তাহলে যেভাবেই শাড়ি পরুন না কেন, দেখতে আরও বেশি সুন্দর লাগবে। তবে এরপরেও যদি মন একটু খুঁতখুঁত করে যে যদি আপনার ছোট্ট ভুঁড়িটি (tummy) দেখা যায়, তার জন্য রইল কয়েকটা কাজের টিপস (tips)।

কীভাবে শাড়ি পরলে টুক করে ভুঁড়ি লুকিয়ে ফেলতে পারবেন

১। আপনি কোন ফ্যাব্রিকের শাড়ি (saree) পরছেন, তার উপরে নির্ভর করে যে আপনাকে দেখতে ভারী (fat) লাগবে নাকি তুলনামূলকভাবে ছিপছিপে লাগবে। তাঁত বা ভারী সিল্কের শাড়ি বেশ ফুলে থাকে, ফলে কোমর ও পেটের (tummy) অংশ দেখতে ভারী (fat) মনে হয়। আবার জর্জেট, শিফন বা অন্য হালকা ফ্যাব্রিকের শাড়ি (saree) গায়ের সঙ্গে লেপ্টে থাকে, ফলে পেটের কাছটা অতো বেশি ফোলা ফোলা লাগে না। কাজেই, বুদ্ধি করে ফ্যাব্রিক বাছুন।

২। বুদ্ধি করে ব্লাউজ পরুন। বুদ্ধি করে আবার কীভাবে ব্লাউজ পরা যায়? যদি একথাই ভাবেন, তাহলে বলে রাখি যে ভুঁড়ি (tummy) লুকিয়ে ফেলার জন্য কিন্তু ব্লাউজের ডিজাইন, কাট – এগুলো অনেক কাজে আসে। যদি আপনার কোমরের অংশে বেশ খানিকটা মেদ (fat) থাকে, তাহলে লম্বা ঝুলের ব্লাউজ পরতে পারেন। এখন নানা ডিজাইনের লম্বা ঝুলের ব্লাউজ পাওয়া যায়। আপনি চাইলে দোকানে গিয়ে দেখেশুনে কিনতে পারেন আবার অনলাইনেও কোনও ডিজাইনার ব্লাউজের বুটিক থেকেও এরকম ব্লাউজ কিনতে পারেন। হ্যান্ডলুমের শাড়ির (saree) সঙ্গে বেশ ভাল লাগে এ’ধরনের ব্লাউজ।

ইনস্টাগ্রাম

৩। শাড়িও (saree) পরবেন, আবার ভুঁড়ি (tummy) দেখা গেলেও চলবে না, কিন্তু লম্বা ঝুলের ব্লাউজ পরতেও আপত্তি – পরিস্থিতি যদি এমন হয়, সেক্ষেত্রে কেপ ব্লাউজ পরতে পারেন। এ’ধরনের ব্লাউজগুলো অনেকটা পঞ্চো-র মতো দেখতে হয়, ফলে কোমর বা পেটের মেদ (fat) দেখা যায় না। নানা ফ্যাব্রিকের, নানা ডিজাইনের কেপ ব্লাউজ আপনি অনলাইন বা বুটিকে পেয়ে যাবেন। প্রয়োজনে আপনি কোনও ডিজাইন বেছে নিয়ে আপনার পছন্দের দর্জির সাহায্যেও কেপ ব্লাউজ তৈরি করিয়ে নিতে পারেন।

৪। আপনি যখন পেটিকোট পরবেন, একই ধরনের পেটিকোট পরবেন না। অর্থাৎ সব ধরনের শাড়ির ফ্যাব্রিকের সঙ্গে এক রকমের পেটিকোট পরা যায় না। এছাড়াও পেটিকোটের দড়ি এক পাশে না বেঁধে, ভুঁড়ির মাঝখানে নাভি বরাবর বাঁধুন। খুব বেশি টাইট করে দড়ি বাঁধবেন না, এতে কিন্তু কোমর ও পেটের মেদ বাইরে ঝুলে থাকার আশঙ্কা থাকে।

মূল ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আমাদের এক্কেবারে নতুন POPxo Zodiac Collection মিস করবেন না যেন! এতে আছে নতুন সব নোটবুক, ফোন কভার এবং কফি মাগ, যেগুলো দারুণ ঝকঝকে তো বটেই, আর একেবারে আপনার কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে। হুমম...আরও একটা এক্সাইটিং ব্যাপার হল, এখন আপনি পাবেন ২০% বাড়তি ছাড়ও। দেরি কীসের, এখনই POPxo.com/shopzodiac-এ যান আর আপনার এই বছরটা POPup করে ফেলুন!