কোয়ারেন্টাইনে পরিবারের সঙ্গে কীভাবে মন শান্ত রেখে ভাল সময় কাটাবেনin bengali | POPxo

কোয়ারেন্টাইনে পরিবারের সঙ্গে কীভাবে মন শান্ত রেখে ভাল সময় কাটাবেন, জেনে নিন

কোয়ারেন্টাইনে পরিবারের সঙ্গে কীভাবে মন শান্ত রেখে ভাল সময় কাটাবেন, জেনে নিন

বিশ্ব জুড়ে আতঙ্কের নাম করোনা ভাইরাস (corona)। আর তার সঙ্গে এখন সারা দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন, আর এই লকডাউন চলবে প্রায় এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত। এই অবস্থায় সবাই বাড়িতে রয়েছেন, কিচ্ছু করার নেই। যাদের বাইরে গিয়ে কাজ করতে হয়, তাঁরাও এই মুহূর্তে পরিস্থিতির শিকার হয়ে বাড়ি থেকেই কাজ করছেন। কোয়ারেন্টাইনের (quarantine) যেমন কিছু সুবিধে রয়েছে, ঠিক তেমনই কিছু অসুবিধেও রয়েছে। পরিবারের (family) মানুষগুলোর সঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ রয়েছে ঠিকই, কিন্তু ২৪ ঘণ্টা একসঙ্গে থাকাটাও অভ্যেস না থাকায় অনেকের পক্ষেই মুশকিল হয়ে দাঁড়াচ্ছে। তার উপরে করোনা ভাইরাসের (corona) আতঙ্কে আমাদের সবারই মনের অবস্থা খারাপ। এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে কাছের মানুষদের সঙ্গে বাক-বিতন্ডা বা মনোমালিন্যও হচ্ছে অনেকেরই; বিশেষ করে এই সমস্যা স্বামী-স্ত্রীয়ের সম্পর্কে একটা বড় প্রভাব ফেলছে। কিন্তু মাথা ঠান্ডা (calm) রেখে একসঙ্গে মিলে কীভাবে এই কঠিন অবস্থার মোকাবিলা করা যায় বলুন তো? আমরা আপনাদের কিছুটা সাহায্য করার চেষ্টা করছি…

হোম কোয়ারেন্টাইনে মন শান্ত রাখুন, পরিবারকে সময় দিন

১। সবার সব কথা এখন ধরবেন না। আপনি যেমন গৃহবন্দি (quarantine) আপনার স্বামীও (husband) কিন্তু তাই। আপনার যেমন মনের উপরে চাপ পড়ছে, আপনার স্বামীরও কিন্তু মাথায় একটাই চিন্তা ঘুরছে যে কবে এই কঠিন সময় কাটবে এবং পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে। কাজেই সম্ভব হলে ঝগড়া না করে এখন একটু সহমর্মিতা দেখান।

২। যদি কারও কথায় খুব রাগ হয়, বা কারও কোনও আচরণ পছন্দ না হয়, সেক্ষেত্রে সামনের মানুষটিকে বুঝিয়ে বলুন। হয়তো আপনি খুব গোছানো একজন মানুষ, কিন্তু আপনার স্বামী অগোছালো, সেক্ষেত্রে রেগে গিয়ে কথা না বলে তাকে বলুন জায়গার জিনিসটা জায়গায় রাখতে। এতে পরে তাঁরই সুবিধে হবে জিনিসপত্র খুঁজে পেতে।

৩। মনকে যতটা সম্ভব বশে রাখার চেষ্টা করুন। বিরক্ত লাগলেও সব সময়ে তা প্রকাশ করা উচিত নয়, বিশেষ করে এই কঠিন পরিস্থিতিতে তো নয়ই! যদি আপনার বাড়িতে কোনও বাচ্চা থাকে, তাহলে একটা কথা আপনাকে মেনে নিতেই হবে যে বাচ্চারা গৃহবন্দি (quarantine) থাকলে তারা দুষ্টুমি করবেই! কিন্তু বাচ্চা দুষ্টুমি করছে বলেই যে তাকে সপাটে দুটো চড় মারবেন, তা করার সময় বা পরিস্থিতি কিন্তু এখন নয়।

৪। আপনি যদি কর্মরতা হন এবং এই মুহূর্তে কোয়ারেন্টাইনের জন্য আপনাকে বাড়ি থেকেই কাজ করতে হয়, সেক্ষেত্রে কাজে মন দিন। দেখবেন, অন্যদিকে মন দেওয়ার বা রাগ করা ও বিরক্ত হওয়ার সময় পাবেন না। যদি আপনি গৃহবধূ হন এবং করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে আপনার গোটা পরিবার এখন বাড়িতে থাকে, সেক্ষেত্রে বাড়ির বাকিদেরও বলুন আপনাকে কাজে সাহায্য করতে।

৫। সম্ভব হলে একটু মেডিটেশন করুন। এতে মন শান্ত থাকবে এবং যখন তখন মনে বিরক্তি আসবে না। তাছাড়া কোয়ারেন্টাইনের (quarantine) ভাল দিকটাও দেখুন, পরিবারের সঙ্গে কিছুটা হলেও ভাল সময় কাটানোর কিন্তু এটা এক মোক্ষম সুযোগ। স্বামী-স্ত্রী একসঙ্গে বসে ওয়েব সিরিজ দেখুন অথবা রান্না করুন কিংবা ঘর গোছান। আর কিছুই করতে ইচ্ছে না হলে জাস্ট ল্যাদ খান!

মূল ছবি - ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

২০২০ শুরু করুন আমাদের দারুণ দারুণ প্ল্যানার আর স্টেটমেন্ট সোয়েটশার্ট দিয়ে। এগুলো সবকটাই আপনারই মতো একশ শতাংশ মজার এবং অসাধারণ! ওহ হ্যাঁ, শুধুমাত্র আপনার জন্য রয়েছে ২০ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থাও। দেরি কিসের আর, এখনই POPxo.com/shop থেকে কেনাকাটা সেরে ফেলুন আর নিজেকে আরেকটু পপ আপ করে ফেলুন!