পরিবেশ দূষণের কারণে চুলের মারাত্মক ক্ষতি হয়! তাই এই নিয়মগুলি মেনে চলা জরুরি

পরিবেশ দূষণের কারণে চুলের মারাত্মক ক্ষতি হয়! তাই এই নিয়মগুলি মেনে চলা জরুরি

কলকাতা শহরে যে হারে দূষণের মাত্রা বাড়ছে, তাতে শরীরের ক্ষতি তো হচ্ছেই। সেই সঙ্গে চুলের স্বাস্থ্যেরও অবনতি ঘটছে। কিন্তু বায়ু দূষণের সঙ্গে চুলের ভাল-মন্দের কী সম্পর্ক? দূষণ এবং ধুলোবালির মাত্রা বাড়ার কারণে স্ক্যাল্পের ক্ষতি তো হচ্ছেই, পাশাপাশি চামড়ার ভিতরে টক্সিক উপাদানের মাত্রাও বাড়ছে, যে কারণে প্রদাহের মাত্রা বেড়ে গিয়ে হেয়ার ফল সহ ছোট-বড় নানা সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে উঠছে। বিশেষ করে দূষিত বায়ুর কারণে খুশকির সমস্যা তো রোজের সঙ্গী হয়ে উঠেছে। তাই তো নিয়ম করে চুলের (Hair) যত্ন নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই জেনে নিন এমন পরিস্থিতিতে চুলের সৌন্দর্য ধরে রাখার নানা নিয়ম।

প্রায় দিনই শ্যাম্পু করতে ভুলবেন না

pixabay

প্রতিদিনই কি বাড়ির বাইরে যান? তাহলে দিন দুয়েক অন্তর অন্তর শ্যাম্পু করা মাস্ট! আর মাসে একবার পার্লারে গিয়ে deep cleansing করতেই হবে! তাতে চুলের গোড়ায় জমে থাকা সব ময়লা ধুয়ে যাবে। সেই সঙ্গে স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্যেরও উন্নতি ঘটবে। ফলে চুল পড়ার হার তো কমবেই, সঙ্গে চুলের সৌন্দর্য কমে যাওয়ার আশঙ্কাও আর থাকবে না। এক্ষেত্রে আরও একটা বিষয় মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন। সপ্তাহে যেহেতু বার তিনেক শ্যাম্পু করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে, তাই এমন শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হবে, যাতে স্ক্যাল্পের আর্দ্রতা কমে না যায়। তাহলে কী করণীয়? আপনার স্ক্যাল্প শুষ্ক না তৈলাক্ত, তা বুঝে নিয়ে সেই মতো শ্যাম্পু নির্বাচন করতে হবে। আজকাল বাজারে অনেক ধরনের Silicon-free শ্যাম্পু বিক্রি হয়। সেগুলির মধ্যে কোনও একটা ব্যবহার করলেও মন্দ হয় না। ইচ্ছা হলে অ্যান্টি-পলিউশন শ্যাম্পুও ব্যবহার করতে পারেন। শ্যাম্পু করার পরে চুলে কন্ডিশনার লাগাতে ভুলবেন না!

বাড়ির বাইরে গেলে চুল ঢেকে নিন

pixabay

দূষণের কারণে যাতে চুলের কোনও ক্ষতি না হয়, তা সুনিশ্চিত করতে আরও একটা কাজ করতে পারেন। এবার থেকে বাড়ির বাইরে গেলে স্কার্ফ বা ওড়না দিয়ে চুল ঢেকে নিন। ওয়েস্টার্ন পোশাকের সঙ্গে ফ্যাশনেবল টুপি পরলেও মন্দ লাগে না। মোট কথা চুল ঢেকে রাখতে ভুলবেন না! তাতে সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির কারণে চুলের সৌন্দর্য কমে যাওয়ার আশঙ্কা যেমন কমবে, তেমনই দূষণের প্রভাবে স্ক্যাল্পেরও আর কোনও ক্ষতি হবে না। আজকাল বাজারে এমন কিছু হেয়ার লোশন বিক্রি হয় যাতে 'SPF' রয়েছে। এমন প্রসাধনী ব্যবহার করলেও উপকার পাবেন।

আরও পড়ুন: জলের জন্য নষ্ট হচ্ছে চুল? খর জল বা হার্ড ওয়াটার থেকে চুল বাঁচিয়ে রাখুন সহজ উপায় মেনে

চুলের যত্নে হেয়ার মাস্কের কোনও বিকল্প নেই

pixabay

এই শহরের বাতাসে যে হারে ধূলিকণা, কার্বন মনোক্সাইড, সালফার ডাই অক্সাইড এবং নাইট্রোজেন ডাই অক্সাইডের মাত্রা বাড়ছে, তাতে চুলের ক্ষতি তো হবেই! তাই তো এমন পরিস্থিতিতে চুলের সৌন্দর্য ধরে রাখতে হলে নিয়ম করে হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করতেই হবে। কিন্তু তাই বলে বাজার চলতি হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করলে চলবে না। তাহলে? চামচ দুয়েক বেকিং সোডার সঙ্গে সম পরিমাণ জল মিশিয়ে তৈরি পেস্ট, চুলের গোড়ায় লাগিয়ে মিনিট পাঁচেক মাসাজ করুন। সময় হলেই উষ্ণ গরম জল দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। এরপরে ইচ্ছা হলে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিয়ে কন্ডিশনার লাগাতে পারেন। সপ্তাহে দিন দুয়েক এই ভাবে চুলের যত্ন নিলে আর কোনও চিন্তা থাকবে না।

মাত্রাতিরিক্ত প্রসাধনীর ব্যবহার বন্ধ করুন

pixabay

মাঝে মধ্যেই চুলে রং করেন নাকি? সেই সঙ্গে হেয়ার জেল লাগানোর অভ্যাসও রয়েছে? তাহলে তো চিন্তার বিষয়! কারণ, এই ধরনের প্রসাধনীতে নানা রকমের কেমিক্যাল মজুত থাকে, যা এমনিতেই চুলের হাল বেহাল করে দেয়। তার উপর বায়ু দূষণ (Pollution) তো রয়েছেই। সব মিলিয়ে চুলের বারোটা বাজতে সময় লাগে না। এই কারণেই তো বেশি মাত্রায় প্রসাধনী ব্যবহার করতে বারণ করেন বিশেষজ্ঞরা।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

২০২০ শুরু করুন আমাদের দারুণ দারুণ প্ল্যানার আর স্টেটমেন্ট সোয়েটশার্ট দিয়ে। এগুলো সবকটাই আপনারই মতো একশ শতাংশ মজার এবং অসাধারণ! ওহ হ্যাঁ, শুধুমাত্র আপনার জন্য রয়েছে ২০ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থাও। দেরি কিসের আর, এখনই POPxo.com/shop থেকে কেনাকাটা সেরে ফেলুন আর নিজেকে আরেকটু পপ আপ করে ফেলুন!