গবেষণা বলছে, শারীরিক মিলনে লিপ্ত মহিলাদের মেনোপজ দেরিতে হয়!

গবেষণা বলছে, শারীরিক মিলনে লিপ্ত মহিলাদের মেনোপজ দেরিতে হয়!

হ্যালো লেডিজ, আপনাদের জন্য আমাদের কাছে এক জবর খবর আছে! একটি সাম্প্রতিক গবেষণায় জানা গিয়েছে যেসব মহিলারা নিয়মিত শারীরিক মিলনে (sexual activities) লিপ্ত তাঁদের নাকি মেনোপজ (menopause) অন্যান্য মহিলাদের তুলনায় বেশ দেরিতে হয়। না, আমরা কিন্তু একথা বলছি না, বিজ্ঞানীদের একদল বলছেন। আসল ব্যাপারটা ঠিক কী, একটু খুলে বলি বরং!

লন্ডনের দ্য রয়াল সোসাইটি ওপেন সায়েন্স-এর একদল গবেষক এই চমকপ্রদ তথ্যটি খুঁজে বার করেছেন যে, অন্যান্য মহিলাদের তুলনায় যারা নিয়মিত শারীরিক মিলনে অভ্যস্ত, তাঁদের মেনোপজ (menopause) বেশ দেরিতে হয়। তাঁরা এই গবেষণা চালিয়েছেন প্রায় তিন হাজার মহিলার উপরে যাদের বয়স ৪২ থেকে ৫২ বছরের মধ্যে। এইসব মহিলাদের নানা অভ্যাস যেমন ধূমপান বা মদ্যপান, কবে প্রথম তাঁদের ঋতুস্রাব হয়েছিল, তাঁদের জীবনযাত্রা কীরকম – এসবের উপরে বিশদে গবেষণা করে জানা গিয়েছে যেসব মহিলারা সপ্তাহে অন্তত বেশ কয়েকবার শারীরিক মিলনে লিপ্ত হন, তাঁদের মধ্যে ২৮% মহিলার মেনোপজ দেরিতে হয়েছে।

আর আপনার যদি মনে হয় যে শারীরিক মিলন (sexual activities) বলতে ঠিক কী বোঝানো হচ্ছে, তাহলে আপনাকে বলে রাখি, গবেষকরা জানিয়েছেন, ইন্টারকোর্স থেকে শুরু করে ওরাল সেক্স বা মাস্টারবেশন – সব কিছুই শারীরিক মিলনের আওতায় পড়ে!

দ্য রয়াল সোসাইটি ওপেন সায়েন্স-এর গবেষকদের মতে, যেসব মহিলারা সপ্তাহে একবার করে সেক্স করেন (যে কোনোও রকমভাবেই হোক) তাঁরা বেশ বয়সে গিয়ে মেনোপজের (menopause) অভিজ্ঞতা লাভ করেন, সেই সব মহিলাদের তুলনায় যারা মাসে একবার শারীরিক মিলনে লিপ্ত হন। শুধু তাই না, গবেষকরা এও বলেছেন যে যে সব মহিলারা তাঁদের সারা জীবনকালে কোনওদিন কোনও রকমভাবেই শারীরিক মিলনে লিপ্ত হননি, বা গর্ভবতী হননি, সেক্ষেত্রে তাঁদের নিজেদের শারীরিক সিস্টেম ওভল্যুশন নিজে থেকেই বন্ধ করে দেয়! অর্থাৎ ঋতুস্রাবের (period) পর মহিলাদের জরায়ু থেকে যে এগ বা ডিম্ব নিঃসৃত হওয়ার কথা থাকে, সেটি আর তৈরিও হয় না এবং নিঃসৃতও হয় না; ফলে ঋতুস্রাব (period) তাড়াতাড়ি বন্ধ হয়ে যায়।

ওভল্যুশনের সময়ে মহিলাদের শরীর এমনিতেই খুব বেশি সংবেদনশীল হয়ে যায় নানারকমের জীবাণুসংক্রমণ হওয়ার আশঙ্কা থাকে, ফলে যদি কোনওরকম sexual activities না থাকে, শরীরের সিস্টেম ডিম্বাণুর উপর থেকে ফোকাস সরিয়ে নেয়।

আরও পড়ুনঃ সন্তানের জন্মের পরেই কি সেক্স লাইফ শেষ হয়ে যায়? জেনে নিন সত্য-মিথ্যা

আপনি যদি না জানেন যে মেনোপজ ব্যাপারটা ঠিক কী, খায় না মাথায় দেয়, তাহলে আমরা আপনাকে জানাচ্ছি যে বিষয়টি কী, কেন হয় ইত্যাদি।

মহিলাদের ঋতুস্রাব হওয়া খুবই সাধারণ একটি ব্যাপার এবং মেনোপজ হল ঋতুস্রাব একেবারে বন্ধ হয়ে যাওয়া। অর্থাৎ একটা বয়সের পরে যেমন মেয়েদের ঋতুস্রাব শুরু হয়, ঠিক একইভাবে একটা বয়সের পরে মহিলাদের ঋতুস্রাব সারাজীবনের মতো বন্ধ হয়ে যায়। এই প্রক্রিয়াটিকেই বলা হয় মেনোপজ। সাধারণত, ৪৫ থেকে ৫৫ বছরের মধ্যে যেকোনোও সময়ে মেনোপজ হতে পারে। প্রতিবার ঋতুস্রাবের আগে আমাদের ডিম্বাশয় থেকে ডিম্বাণু নিঃসৃত হয় যা পুরুষের শুক্রাণুর সঙ্গে মিলিত হলে একজন নারী গর্ভবতী হতে পারেন। কিন্তু যদি কোনও মহিলা শারীরিক মিলনে লিপ্ত না হন অথবা প্রয়োজনের তুলনায় খুবই কম sexual activities থাকে সেক্ষেত্রে শরীর আপনাআপনিই সিদ্ধান্ত নিয়ে নেয় ডিম্বাণু নিঃসরণ না করার এবং ঋতুস্রাব নিজে থেকেই সময়ের আগে বন্ধ হয়ে যায়।

এবার আপনিই সিদ্ধান্ত নিন, যে আপনি আপনার শরীরের সঙ্গে ঠিক কী করতে চান!

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

২০২০ শুরু করুন আমাদের দারুণ দারুণ প্ল্যানার আর স্টেটমেন্ট সোয়েটশার্ট দিয়ে। এগুলো সবকটাই আপনারই মতো একশ শতাংশ মজার এবং অসাধারণ! ওহ হ্যাঁ, শুধুমাত্র আপনার জন্য রয়েছে ২০ শতাংশ ছাড়ের ব্যবস্থাও। দেরি কিসের আর, এখনই POPxo.com/shop থেকে কেনাকাটা সেরে ফেলুন আর নিজেকে আরেকটু পপ আপ করে ফেলুন!