চুলে বা মুখে কখনও কালো জিরার তেল লাগিয়ে দেখেছেন? এর কত উপকার জানেন?

চুলে বা মুখে কখনও কালো জিরার তেল লাগিয়ে দেখেছেন? এর কত উপকার জানেন?

যে কোনও পদের স্বাদ বাড়াতে কালো জিরার যে কোনও বিকল্প নেই, সে কথা তো কম-বেশি সবারই জানা আছে। কিন্তু এই কালো জিরা থেকে তৈরি তেল যে রূপচর্চাতেও কাজে আসে সে বিষয়ে কেউ খোঁজই রাখেন না। শুনলে অবাক হবেন, ত্বকের দেখভালে তো বটেই, চুলের সৌন্দর্য ধরে রাখতেও এই প্রাকৃতিক উপাদানটির জুড়ি মেলা ভার। শুধু কী তাই, শরীরের যত্নেও এই তেলটি নানা ভাবে কাজে আসে। মাথা যন্ত্রণার কারণে হাল বেহাল? কপালে অল্প করে কালো জিরার তেল লাগিয়ে মিনিট খানেক মালিশ করুন। দেখবেন, নিমেষেই কষ্ট কমে যাবে! এমনকী, ওজন কমাতে, ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবং কিডনির খেয়াল রাখতেও কালো জিরার তেলকে কাজে লাগানো যেতে পারেন। গরম জলে অল্প করে এই তেল এবং মধু মিশিয়ে খেলে নাকি দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বাড়ে। তাই বুঝতেই পারছেন কালো জিরার তেল (Black Seed Oil) মহৌষধির থেকে কম কিছু না! কিন্তু এই প্রাকৃতিক উপাদানটি ত্বক এবং চুলের যত্নে কীভাবে কাজে আসে?

ত্বকের সংক্রমণ এবং ব্রণর প্রকোপ কমায়

pixabay

কালো জিরার তেলে মজুত রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান, যা ত্বকের ভিতরে প্রবেশ করা মাত্র রোগ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়াগুলিকে মেরে ফেলে। ফলে ব্রণর প্রকোপ তো কমেই, সেই সঙ্গে ত্বকের সংক্রমণের মতো সমস্যার খপ্পরে পড়ার আশঙ্কাও আর থাকে না। এত উপকার পেতে কীভাবে এই তেল মুখে লাগাতে হবে? অল্প পরিমাণে কালো জিরার তেলের সঙ্গে পরিমাণ মতো জল মিশিয়ে সেই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে মিনিট খানেক মালিশ করুন। নিয়মিত এই ভাবে ত্বকের পরিচর্যা করলে দেখবেন ব্রণর পিছু ছাড়াতে সময়ই লাগবে না। তবে ভুলেও এই তেল সরাসরি মুখে লাগালে চলবে না। তাতে ত্বকের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

ত্বকের বয়স কমবে

pixabay

নিয়মিত এই তেল মুখে লাগিয়ে মালিশ করলে ত্বকের ভিতরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের মাত্রা বাড়াতে শুরু করবে। তাতে কী উপকার মিলবে? এতে ত্বকের ভিতরে জমে থাকা টক্সিক উপাদানগুলি মারা যাবে। সেই সঙ্গে বলিরেখাও মিলিয়ে যেতে শুরু করবে, যে কারণে ত্বকের (Skin) সৌন্দর্য বাড়তে সময়ই লাগবে না। আর যদি নিয়ম করে কালো জিরার তেল খেতে পারেন, তাহলে তো কোনও কথাই নেই! এক কাপ গরম জলে এক চামচ তেল মিশিয়ে খাওয়া শুরু করলে রক্তে মিশে থাকা দূষিত উপাদানগুলি শরীর থেকে বেরিয়ে যেতে বাধ্য হয়। ফলে ছোট-বড় নানা রোগ-ব্যাধির প্রকোপ তো কমেই, সেই সঙ্গে ত্বকের স্বাস্থ্যেরও উন্নতি ঘটে।

আরও পড়ুন: আয়ুর্বেদিক উপায়ে পান উজ্জ্বল, নিখুঁত ও সুন্দর ত্বক

চুল পড়ার হার কমায়

pixabay

অল্প বয়সেই ময়দান খালি হয়ে যাওয়ার ভয়ে কি রাতের ঘুম উড়েছে? তাহলে তো কালো জিরার তেলের উপর ভরসা না রেখে কোনও উপায় নেই। তাতে কি সত্যিই উপকার মিলবে? আলবাত! কেন জানেন? এতে উপস্থিত Nigellone এবং Thymoquinone নামে উপাদান চুলের গোড়ায় প্রদাহের মাত্রা কমায়, সঙ্গে hair follicle-এর শক্তি বাড়াতেও নানা ভাবে সাহায্য করে। ফলে চুল পড়ার হার কমতে সময় লাগে না। শুধু কী তাই, নিয়মিত এই তেল স্ক্যাল্পে লাগিয়ে মিনিট পাঁচেক মালিশ করলে নতুন চুল (Hair) গজানোর সম্ভাবনাও বাড়ে।

খুশকির সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে

pixabay

এই তেলে এমন কিছু উপকারী উপাদান রয়েছে, যা অল্প দিনেই স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়। আর স্ক্যাল্প যখন সুস্থ হয়ে ওঠে, তখন খুশকির সমস্যা কমতেও সময় লাগে না। শুধু তাই নয়, নিয়মিত এই তেল চুলে লাগিয়ে মাসাজ করলে নাকি অকালে চুল সাদা হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও কমে।

আরও পড়ুন: খুশকি, চুল পড়া, অকালপক্কতার মতো সমস্যা থেকে রেহাই পেতে নিয়মিত সরষের তেল মালিশ করুন চুলে!

সোরিয়াসিস এবং eczema চিকিৎসায় কাজে আসে

pixabay

এমন ধরনের ত্বকের সমস্যায় আক্রান্ত হওয়া মাত্র ডার্মাটোলজিস্টের পরামর্শ নিতে ভুলবেন না। তবে কিছু দিন কালো জিরার তেল লাগিয়েও দেখতে পারেন। এতে রয়েছে নানা ধরনের অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল উপাদান, যা অল্প দিনেই সংক্রমণের প্রকোপ কমায়। ফলে এমন ধরনের ত্বকের রোগের খপ্পর থেকে নিস্তার পাওয়ার সম্ভবনা বাড়ে। ত্বককে আর্দ্র রাখতেও এই তেলটির জুড়ি মেলা ভার। তাই তো এই মরসুমে নিয়মিত কালো জিরার তেল হাতে-মুখে লাগিয়ে মালিশ করলে ড্রাই স্কিনের সমস্যা থেকে যে মুক্তি মিলবেই, তাতে কোনও সন্দেহ নেই!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!