ব্যক্তিগত সম্পর্কের টানাপোড়েনে না ভুগে জিজ্ঞেস করুন কোনও বিশেষজ্ঞকে

ব্যক্তিগত সম্পর্কের টানাপোড়েনে না ভুগে জিজ্ঞেস করুন কোনও বিশেষজ্ঞকে

আমি এমন এক ধরনের মানুষ যে বিশ্বাস করে, যে প্রশ্নের উত্তর আপনি কোথাও পাবেন না, সে প্রশ্নের উত্তর আপনি ‘গুগল’-এ অবশ্যই পাবেন। তা সে ‘ব্রেকাপের ধাক্কা কীভাবে সামলে উঠবেন’ থেকে শুরু করে ‘প্রথমবার কীভাবে চুমু খাবেন’ – স-অ-ব! তবে, যদি একটু ভেবে দেখেন তাহলে বুঝতে পারবেন যে ইন্টারনেটে যারা প্রশ্ন (questions) করেন এবং যারা উত্তর দেন, তাঁরা কিন্তু আমার আপনার মতোই রক্ত-মাংসের মানুষ! আমরা যতই ‘আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স’ নিয়ে লাফালাফি করি না কেন, প্রশ্নের উত্তর তো আমার বা আপনার মতো কোনও মনুষ্য মস্তিষ্কপ্রসূতই। ইন্টারনেটে ‘সম্পর্ক’ নিয়ে প্রচুর প্রশ্ন প্রতিদিন খোঁজা হয় এবং নানা অদ্ভুত অদ্ভুত উত্তর আপনি পাবেন যা আমাদের সবার জীবনে ইমপ্লিমেন্ট করা অতটাও সহজ নয়। POPxo অ্যাপেও (POPxo App) এমন নানা প্রশ্ন আসে। এরকমই কিছু প্রশ্ন এবং তার প্র্যাক্টিকাল উত্তর নিয়েই আজকের প্রতিবেদন।

POPxo অ্যাপে (POPxo App) পাঠকদের করা সেরা প্রশ্ন ও তার প্র্যাক্টিকাল উত্তর

প্রেম না কেরিয়ার

দোটানায় আমরা অনেকেই ভুগি, কোনও বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়াই ভাল (ছবি - শাটারস্টকের সৌজন্যে)

প্রশ্ন ১। আমার বয়ফ্রেন্ড দেশের বাইরে সেটল করতে চাইছে। সবকিছু ঠিক থাকলে ও চায় যে আমিও ওর সঙ্গে বাইরে চলে যাই। কিন্তু আমার এখানে কেরিয়ার একদম সেটলড। আমি আমার এত ভাল কেরিয়ার মাঝপথে ছেড়ে দিতে চাই না, আবার আমার বয়ফ্রেন্ডের (boyfriend) সঙ্গেও থাকতে চাই। কিন্তু পরিস্থিতি এই মুহূর্তে এমন যে আমাকে যে-কোনও একটা বেছে নিতে হবে। প্রেম নাকি কেরিয়ার – কোনটা বাছা উচিত?

উত্তর – লেডি গাগা-র নাম তো আপনি নিশ্চয়ই শুনেছেন? তিনি একবার বলেছিলেন যে সম্পর্কে যদি এমন কোনও পরিস্থিতি কোনওদিন আসে, যখন আপনাকে দুটো প্রিয় জিনিসের মধ্যে থেকে যে-কোনও একটা বেছে নিতে হয়, সেক্ষেত্রে প্রেম না, কেরিয়ারকেই বাছুন; কারণ কেরিয়ার আপনাকে ভাত দেবে! তবে আমরা আপনাকে এমন কঠিন কিছু করতে একেবারেই উদ্বুদ্ধ করব না। আপনি সম্ভব হলে আপনার বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে বসে ভাল করে কথা বলুন, তাকে বুঝিয়ে বলুন যে এই মুহূর্তেই আপনার পক্ষে তার সঙ্গে দেশের বাইরে চলে যাওয়া সম্ভব নয়। এতে তার উপরে একটা বড় অর্থনৈতিক চাপ পড়তে পারে। মোটকথা, বলটা ওর কোর্টেই দিন!

স্মৃতিগুলো কিছুতেই পিছু ছাড়ে না

প্রাক্তনের পিছুটান রেখে কী লাভ? (ছবি - শাটারস্টকের সৌজন্যে)

প্রশ্ন ২। আমাদের ব্রেকআপ হয়েছে বেশ কিছুদিন। আমার প্রাক্তনকে আমি সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্লক করেছি, কিন্তু আবার আনব্লকও করেছি। কিছুতেই ওকে ভুলতে পারছি না। আমাদের সম্পর্কটা ঠিক হওয়ার নয়, কিন্তু আমি খুব অসহায় বোধ করছি। কী করব?

উত্তর – যাকে এক কালে ভাল বেসেছিলেন, তাকে হঠাৎ করে ভুলে যাওয়া সহজ নয়। কিন্তু আপনাকে এই পরিস্থিতি থেকে বেরোতেই হবে। আপনি যখন জানেন যে এই সম্পর্কের কোনও ভবিষ্যৎ নেই, তখন তো শুধু শুধু স্মৃতি আঁকড়ে বসে লাভ নেই! নিজেকে কোনও কাজে ব্যস্ত করে ফেলুন। বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা দিন। তেমন হলে কোথাও বেড়িয়ে আসুন।

প্রথম বিবাহবার্ষিকী সত্যিই স্পেশ্যাল

প্রশ্ন ৩। আমাদের বিবাহবার্ষিকী সামনেই। যদিও এখনও এক মাস সময় আছে, কিন্তু আগে থেকেই কিছু প্ল্যান করতে চাই। কীভাবে আমাদের প্রথম বিবাহবার্ষিকী মেমোরেবল করে তুলবো?

উত্তর – প্রথমেই আপনাদের দু’জনকেই অভিনন্দন! সারাটা দিন একসঙ্গে কাটাতে পারেন। একে অন্যের জন্য রান্না করে বা নিজেদের প্রিয় সিনেমা দেখে। যদি বাড়িতে না থাকতে চান, সেক্ষেত্রে আপনাদের প্রথম যেখানে দেখা হয়েছিল, সেখানে গিয়ে বেশ কিছুটা সময় কাটাতে পারেন এবং স্মৃতিচারণ করতে পারেন। সম্পর্ক কিন্তু এভাবেই মজবুত হয়!

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!