লকডাউনের মধ্যে পর্ন সাইটে বেড়েছে দর্শক!

লকডাউনের মধ্যে পর্ন সাইটে বেড়েছে দর্শক!

করোনা (coronavirus) আতঙ্কে গোটা বিশ্ব। গত ২২ মার্চ থেকে ভারতে চলছে লকডাউন (lockdown)। এখনও পর্যন্ত যা খবর, এই লকডাউন চলবে আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত। অনেকেই বাড়ি থেকে কাজ করছেন। কিন্তু অনেকের কাজের ধরন যেমন, তাতে বাড়ি থেকে কাজ করা সম্ভব নয়। ফলে নিতান্তই গৃহবন্দি পরিস্থিতি। এর মধ্যেই নাকি পর্ন সাইটে দর্শক স্বাভাবিকের তুলনায় অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে! এমন তথ্য় উঠে আসছে বিভিন্ন গবেষণায়। 

সূত্রের খবর, গত ১৬-১৭ মার্চ পর্নহাবে (Porn) ট্রাফিক বেড়ে গিয়েছিল প্রায় ৩১.৫ শতাংশ। রাত পেরোতে তা কমতে শুরু করলেও আবার পরদিন গড়ের তুলনায় বেড়ে যায় ২৬.৪ শতাংশ। বিভিন্ন পর্ন সাইটের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গড়ে প্রায় ২৩ শতাংশ ট্রাফিক বেড়ে গিয়েছে বিভিন্ন সাইটের। সমীক্ষকদের একটা বড় অংশের মতে, এর একটা বড় দর্শক রয়েছে ভারত থেকেও। 

পর্নহাব তাদের প্রিমিয়াম সার্ভিস বিনামূল্যে করে দিয়েছে। এতেই নাকি দর্শক সংখ্যা এতটা বেড়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। সম্প্রতি পর্নহাব নিজেদের টুইটার হ্যান্ডল থেকে একটি পোস্ট করা হয়েছে। সেখানে জানানো হয়েছে আগামী ২৩ এপ্রিল পর্যন্ত পর্নহাবের সমস্ত প্রিমিয়াম কনটেন্ট (যা দেখতে টাকা দিয়ে সাবস্ক্রাইব করতে হয়) বিনামূল্যে দেখতে পাওয়া যাবে। গ্রাহকদের বিনামূল্যে পর্ন দেখার সুযোগ করে দিয়ে তাঁদের গৃহবন্দি দশা উপভোগ করতে বলেছে ওই সংস্থা। একই সঙ্গে ঘরে থাকার অনুরোধও জানিয়েছে ওই সংস্থা। তথ্য বলছে, গত ২৪ মার্চ থেকে বিভিন্ন পর্ন সাইটে দর্শকের সংখ্যা ক্রমশই ঊর্দ্বমুখী। 

যে দেশে যত আগে করোনা ছড়িয়েছে, সেই দেশে নাকি তত বেশি ট্রাফিক বেড়েছে পর্ন সাইটে। পর্ন হাবের সূত্র অনুযায়ী, গত ১১ মার্চ সারা পৃথিবীতে পর্ন সাইটে সবথেকে বেশি ট্রাফিক ছিল ইটালিতে। অন্যান্য কাজের দিনের তুলনায় সে দিন ইটালিতে ট্রাফিক বেড়েছিল ১৩.৮%।

করোনা ভাইরাসের চেন ভাঙতে গেলে সোশ্যাল ডিসট্যান্স অর্থাৎ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাই একমাত্র পথ বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। আর এটা করতে গেলে গৃহবন্দি থাকা ছাড়া উপায় নেই। সে কারণেই লকডাউনের সিদ্ধান্ত। আর এতে মানুষের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ কমেছে। দিনভর বাড়ির ভিতর নিজেকে ব্যস্ত রাখতে হচ্ছে। আর সে কারণেই পর্ন সাইটে এত দ্রুত দর্শক বেড়েছেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে অনেক চিকিৎসকের মতে, এর খারাপ দিকও রয়েছে। স্বাভাবিক অবস্থায় পর্ন সাইট দেখার অভ্যেস হয়তো অনেকেরই রয়েছে। প্রাথমিক ভাবে এর কিছু নেগেটিভ দিক রয়েছে। আর এই পরিস্থিতিতে যদি পর্ন দেখার মাত্রাতিরিক্ত অভ্যেস হয়ে যায়, তা ভবিষ্য়তে সমস্যা তৈরি করতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

সুতরাং আপনিও যদি এই তালিকায় থাকেন, তাহলে এখন থেকেই সাবধান হয়ে যাওয়া ভাল। সুস্থ থাকুন। ভাল থাকুন। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!