কোয়ারেন্টাইনে যদি অন্তর্বাসও ত্যাগ করে ফেলেন, তাহলে মুশকিল!

কোয়ারেন্টাইনে যদি অন্তর্বাসও ত্যাগ করে ফেলেন, তাহলে মুশকিল!

বেশ কিছুদিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা মিম দেখতে পাচ্ছি যার মূল কথা হল, ‘কোয়ারেন্টাইনে (quarantine) নাকি মহিলারা ব্রা পরছেন না!’। আচ্ছা, যদি কারও মনে হয় যে তিনি সারাদিন অন্তর্বাস (bra) পরে থাকবেন, তাহলে থাকুন না; আবার যদি কারও মনে হয় যে তিনি কিছুদিন অন্তর্বাস পরবেন না, তাহলেও তা সম্পূর্ণ তার ইচ্ছে। আমি বা আপনি বলার কে! হ্যাঁ, মানছি, অনেকেই বলেন যে সারাক্ষণ ব্রা পরে থাকা উচিত না, রক্তচলাচল তাতে বাধাপ্রাপ্ত হয়, কিন্তু বলুন তো, যদি দিনের পর দিন আপনি অন্তর্বাস না পরেন সেক্ষেত্রে আপনার স্তনের আকার কীরকম বিগড়ে যেতে পারে… চলুন আজ না হয় ব্রা পরা এবং না পরার দ্বন্দ্ব মিটিয়ে নেওয়া যাক।

নিয়মিত অন্তর্বাস পরার সুবিধে

  • অনেকেরই স্তন খুব ভারী হয়। সেক্ষেত্রে নিয়মিত অন্তর্বাস পরলে স্তনের ভারীভাব বোঝা যায় না। আবার এমন অনেক পোশাক রয়েছে যার নীচে ব্রা না পরলে দেখতে খুব একটা ভাল লাগে না।
  • যদি আপনার স্তন ভারী হয়, সেক্ষেত্রে আপনি যদি নিয়মিত অন্তর্বাস পরেন তাহলে স্তনের গঠন ঠিক থাকে।
  • আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন যাঁদের স্তনের আকার খুবই বড়। স্তন বড় ও ভারী হলেও কিন্তু অনেক সময় পিঠে ব্যথা হয়। নিয়মিত অন্তর্বাস পরলে এই সমস্যা অনেকটাই দূর হয়।

অন্তর্বাস না পরার সুবিধে

  • যদিও আমাদের সমাজে এমন একটা অদ্ভুত ধারণা আছে যে ব্রা না পরলে মহিলাদের স্তন বড্ড বেশি খারাপ দেখতে লাগে, তবে এই ধারণা এখন ভাঙার সময় এসেছে। শারীরিক গঠন, ত্বকের রং – এসব নিয়ে আজকাল আর কেউ এত বেশি মাথা ঘামায় না। ফলে আপনি নিয়মিত অন্তর্বাস পরবেন নাকি পরবেন না, তা সম্পূর্ণভাবে আপনার উপরে নির্ভর করছে।
  • নিয়মিত অন্তর্বাস পরার ফলে আমাদের স্তনের নীচে অনেকসময়ে ঘাম জমে যায় এবং একটা খসখসে ব্যাপার তৈরি হয়। তবে আপনি যদি মাঝেমধ্যে ব্রা না পরেন, সেক্ষেত্রে এই সমস্যাটি অনেকটাই কম হয়।
  • অনেকের ধারণা আছে ব্রা না পরলে স্তন নীচের দিকে ঝুলে যায় এবং স্যাগিং হয়। ধারনাটি সম্পূর্ণ ভুল। যখন আপনার পিঠে মেদ জমতে শুরু করে, স্তনের মধ্যে স্যাগিং তখন থেকেই দেখা যায়। এর সঙ্গে ব্রা পরা বা না পরার কোনও সম্পর্ক নেই। আপনি যদি চান আপনার স্তন সুডৌল থাকুন, সেক্ষেত্রে আপনি কিছু ব্যায়াম ও মাসাজ করতে পারেন।

অন্তর্বাসের কি কোনও বিকল্প আছে?

অন্তর্বাসের বিকল্প হিসেবে ব্রালেট পরতে পারেন দিশার মতো (ছবি - ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে)

  • অন্তর্বাসে বিকল্প তো নিশ্চয়ই আছে। অনেকেই এখন ব্রা না পরে তার বদলে ব্রালেট বা সিমলেস ব্রা পড়েন। যদিও অনেকের মনে একটা অদ্ভুত ধারণা আছে যে ব্রালেট তাঁরাই পরতে পারেন যাঁদের স্তন ভারী নয়। না, যদি আপনি সঠিক ব্রালেট কেনেন, তাহলে যদি আপনার স্তন ভারীও হয়, সেক্ষেত্রেও আপনি ব্রালেট পরলে কোনও সমস্যা হবে না।
  • আবার সিমলেস ব্রা হল এমন এক ধরনের অন্তর্বাস, যাতে কোনও সেলাই থাকে না। কাজেই ব্যথা লাগা বা বুকে পিঠে দাগ পড়ার কোনও আশঙ্কাও থাকে না।
  • এছাড়াও অনেকেই ক্যামিসল পরেন। এখন অনেক ধরনের ক্যামিসলও পাওয়া যায় যাতে ইন-বিল্ট ব্রা কাপ থাকে। ফলে স্তনের শেপ নষ্ট হওয়ার কোনও আশঙ্কাও থাকে না আবার এই অন্তর্বাসগুলো যথেষ্ট আরামদায়কও হয়।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!