বিয়ের আগে নিজের কোন সিক্রেটগুলো অবশ্যই হবু সঙ্গীকে বলবেন?

বিয়ের আগে নিজের কোন সিক্রেটগুলো অবশ্যই হবু সঙ্গীকে বলবেন?

ভালবাসা, সম্পর্ক বা বিয়ে- সবটাই নির্ভর করে বিশ্বাসের উপর। একে অপরের প্রতি বিশ্বাস না থাকলে যে কোনও সম্পর্কের ভিত আলগা হয়ে যেতে বাধ্য। তাই গোড়া থেকেই একে অপরকে বিশ্বাস করতে হবে। আর বিয়ে করে যখন সারা জীবনের জন্য একজন সঙ্গী (spouse) বেছে নিচ্ছেন, তাঁকে তো বিশ্বাস করতেই হবে।

আপনি যেমন তাঁকে বিশ্বাস করবেন, ঠিক তেমনই তিনিও আপনাকে বিশ্বাস করতে পারেন, এমন কিছু কাজ তো আপনাকে করতেই হবে। হতে পারে আপনারা নিজেরাই একে অপরকে পছন্দ করেছেন। আবার হয়তো পরিবারের সদস্যরা আপনাদের মধ্যে আলাপ পরিচয় ঘটিয়ে দিয়েছেন। মোট কথা একসঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত যখন নিয়েছেন, প্রথম দিন থেকেই বিশ্বাসের ভিত মজবুত করুন।

ভালবাসার সম্পর্কে অসৎ হবেন না। তাই প্রথম দিকেই আপনার যদি কোনও সিক্রেট থাকে, তা সঙ্গীর কাছে স্পষ্ট করে দিন। কোন সিক্রেটটা (Secrets) বলবেন, আর কোনটা বলবেন না, এটা নিয়ে অনেকের মধ্যেই অনেক সময় কনফিউশন তৈরি হয়। আসুন, আপনাকে কিছুটা হেল্প করার চেষ্টা করছি আমরা। 

সম্পর্ক হোক এমনই সহজ এবং সুন্দর। ছবি ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে।

১) নেশা: আমাদের প্রত্যেকেরই কিছু না কিছু নেশা থাকে। কারও বই পড়ার নেশা। কারও রান্নার। কারও বা বেড়াতে যাওয়ার নেশা। এগুলো কোনওটাই সেই অর্থে ক্ষতিকর নয়। তাই এ ব্যপারে সঙ্গীর সঙ্গে মেলামেশা বাড়লে তিনি নিজেই জেনে যাবেন। কিন্তু খারাপ নেশাও তো থাকে। তার মধ্যে অবশ্যই পড়বেন ধূমপান, মদ্যপান। এমনকি সেক্স অ্যাডিকশনও রয়েছে অনেকেরই। এ সব ক্ষেত্রে যাঁর সঙ্গে বাকি জীবনটা কাটাবেন ঠিক করেছেন, তাঁকে আগে থাকতে জানিয়ে রাখুন।

২) অসুস্থতা: আমাদের অনেকেরই বহু পুরনো কিছু রোগ থাকে। অনেকেরই তা জিনগত। যা আপনাকে তো বটেই, আপনার পরিবারকেও সমস্যায় ফেলে। যে মানুষটিকে নিয়ে আপনি পরিবার তৈরি করবেন, আপনার এই ধরনের কোনও শারীরিক অসুস্থতা থাকলে তা তাঁর প্রথম দিন থেকেই জেনে রাখা ভাল। কোনও মানসিক অসুস্থতা থাকলে তাও জানাতে ভুলবেন না।

৩) আর্থিক অবস্থা: টাকা নিয়ে মিথ্যে বিবাহিত সম্পর্কের উপর খুব খারাপ প্রভাব ফেলে। আপনার আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে আপনার পার্টনারের স্পষ্ট ধারণা থাকা প্রয়োজন। না! নিজের মাইনের সংখ্যাটা জানানোর পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে না। সেটা জানাবেন কিনা আপনার সিদ্ধান্ত। কিন্তু আপনার যদি কোনও ঋণ থাকে, সেই তথ্য বা মাসে কোন খাতে আপনার কত খরচের দায়িত্ব সে সম্পর্কে সঙ্গীকে আগে থেকে জানিয়ে রাখুন। 

৪) ক্রিমিনাল হিস্ট্রি: দেখুন, ভুল মানুষ মাত্রেই হয়। আপনিও হয়তো অতীতে এমন কোনও ভুল করেছেন। অর্থাৎ আপনার হয়তো ক্রিমিনাল হিস্ট্রি রয়েছে। এই কথা হবু সঙ্গীর কাছে লুকোবেন না। আপনার সব সত্য়িটা জেনে তিনি যদি আপনাকে ভালবাসতে পারেন, সেটাই তো আসল, তাই না? 

মূল ছবি সৌজন্যে ইনস্টাগ্রাম।

POPxo এখন চারটে ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!