ভারী স্তন নিয়েও ফ্যাশন করা সম্ভব, কিন্তু কীভাবে? আপনার জন্য রইল সাজেশন

ভারী স্তন নিয়েও ফ্যাশন করা সম্ভব, কিন্তু কীভাবে? আপনার জন্য রইল সাজেশন

বহু মহিলার (women) ভারী স্তনের (big boobs) প্রত্যাশা থাকে। তার জন্য কৃত্রিম পদ্ধতিও ব্য়বহার করেন অনেকে। আবার অনেকে সাধারণ ভাবেই ভারী স্তনের অধিকারী হন। সেক্ষেত্রে কোন ধরনের পোশাক পরবেন, কীভাবে ফ্যাশন করবেন, তা নিয়ে দ্বিধা থাকে অনেকেরই। আপনার ভারী স্তন হলেও কিন্তু আপনি ফ্যাশনেবল (fashion) হয়ে উঠতে পারেন। শুধু পোশাক কেনার আগে, পোশাক পরার আগে সাধারণ কয়েকটি বিষয় মনে রাখতে হবে। তাহলে আপনার চেহারা নিয়ে আর লজ্জায় পরতে হবে না। দেখুন তো, এই সাজেশন দৈনন্দিন জীবনে আপনার কাজে লাগে কিনা। 

 

১) সঠিক মেটিরিয়াল ব্যবহার করুন

ভারী স্তন নিয়েও আসলে সঠিক ভাবে ফ্যাশন করা সম্ভব। প্রথমেই দরকার সঠিক মেটিরিয়াল। অর্থাৎ কোন ধরনের কাপড়ের তৈরি পোশাক পরছেন, তা গুরুত্বপূর্ণ। সুতির পোশাক পরতে পারেন। কিন্তু মসলিন বা লিনেনের কাপড়ের পোশাক পরলে অবশ্যই ভেতরে একটা কাপড় লাগিয়ে নিন। যদি শিফন পরেন, অবশ্যই পিওর শিফন ব্যবহার করুন। যে কোনও ধরনের মেটিরিয়ালই পিওর ব্যবহার করলেই তা আপনার চেহারার জন্য ভাল হবে।

২) ভি শেপের জামা

ফ্যাশনেবল হয়ে ওঠা আপনার চয়েস। ছবি ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে।

 আপনার ভারী স্তন হলে ভি শেপের জামা ট্রাই করতে পারেন। এই শেপের ব্লাউজও আপনাকে মানাবে। শুধু শার্টের ক্ষেত্রে দেখে নেবেন বোতাম কোথায় রয়েছে। স্তনের উপর যদি ডিজাইনার বোতাম থাকে, অনেক সময় দেখতে ভাল লাগে না। নর্মাল শার্টের ক্ষেত্রে বোতাম লাগিয়ে নিলেই আর কোনও সমস্যা নেই।

৩) সঠিক অন্তর্বাস

যে কোনও চেহারার মহিলার ক্ষেত্রেই সঠিক অন্তর্বাস খুব জরুরি। আর ভারী স্তন হলে এ বিষয়ে তো আলাদা করে নজর দিতেই হবে। আপনার এমনিতেই ভারী স্তন। ফলে পুশ আপ ব্রা একেবারেই প্রয়োজন নেই। বরং যে ব্রা স্তনকে সঠিক সাপোর্ট দেবে, তেমন কিছু বেছে নিন। ব্লাউজের সঙ্গে একরকম। শার্টের সঙ্গে একরকম, আবার কামিজের সঙ্গে অন্য রকম ব্রা পরতে হবে। একই অন্তর্বাস পরে সব পোশাক ট্রাই করতে গেলেই সমস্যা হতে পারে।

৪) শেপলেস পোশাক বাদ দিতে হবে

যে পোশাকই পরুন, তার শেপ থাকা চাই। অর্থাৎ আপনার চেহারার সঙ্গে পোশাক ফিট করতে হবে। ব্লাউজ, কামিজ, শার্ট, যে কোনও ওয়েস্টার্ন আউটফিট হোক না কেন, সঠিক ফিটিংস জরুরি। সেটা না হলে, ভারী স্তন আরও শেপলেস লাগবে। ফলে শেপলেস পোশাক আপনার আলমারি থেকে এখনই বাদ দিন। 

৫) টাইট পোশাক নয়

ফিটিংস পোশাক আর টাইট পোশাকের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। সে সম্পর্কে আপনার স্পষ্ট ধারণা থাকা প্রয়োজন। ফিটিংস পোশাক মানেই তা শরীরে টাইট হয়ে চেপে বসবে, এমনটা নয়। ফলে পোশাক টাইট হয়ে গেলে সেটা অল্টার করাতে হবে বা বাদ দিতে হবে। ফিটিংস করতে গিয়ে পোশাক টাইট হয়ে গেলে কিন্তু ভারী স্তন নিয়ে দেখতে আরও খারাপ লাগবে। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!