গোলাপের মত সুন্দর হয়ে উঠুন, দিনে মাত্র দু'বার গোলাপের চা পান করে

গোলাপের মত সুন্দর হয়ে উঠুন, দিনে মাত্র দু'বার গোলাপের চা পান করে

আচ্ছা, আপনাকে যদি কেউ জিজ্ঞেস করে, ‘সৌন্দর্য’ (beauty) বলতে প্রথমেই কী মনে পড়ে, আমাদের মধ্যে অনেকেই উত্তর দেবেন ‘গোলাপ’(roses)! সত্যিই তো, গোলাপ এমন একটি ফুল যা সৌন্দর্যের সমনাম। আমরা নিজেদের সুন্দর করে তুলতে অনেক সময়েই গোলাপ ব্যবহার করি। কখনও চুলে গোলাপ (roses) লাগিয়ে নিজেদের সৌন্দর্য (beauty) বৃদ্ধি করার চেষ্টা করি, আবার কখনও গোলাপ জল ব্যবহার করি ত্বকের নমনীয়তা বৃদ্ধি করতে। কিন্তু আমি যদি আপনাদের বলি, আপনি যদি নিয়মিত গোলাপের চা (rose tea) পান করেন, তাহলেও আপনার সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে, তাহলে কি আপনি আমার কথা মেনে নেবেন? আপনি বিশ্বাস করুন বা নাই করুন, কথাটা সত্যি। গোলাপের চা কিন্তু আমাদের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে সাহায্য করে।

সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে কিভাবে গোলাপের পাপড়ি সাহায্য করে

আগেই বললাম, নানা প্রসাধনী ও ওষুধে গোলাপের পাঁপড়ি ব্যবহার করা হয়। অনেক খাবারে গোলাপের পাঁপড়ি ছড়ানো হয় সেটি দৃষ্টিনন্দন করে তুলতে। ত্বক সুন্দর করে তুলতে গোলাপ জল ব্যবহার করা হয় – স্নানের জলে অথবা ফেস প্যাক তৈরিতে। আবার গোলাপ দিয়ে চা (rose tea) তৈরি করেও অনেকে পান করেন। তবে গোলাপ চা কিন্তু শুধুমাত্র আমাদের বাইরের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতেই সাহায্য করে না, আমাদের সারাদিনের ধকল কাটিয়ে আমাদের শরীর-মন চনমনে করে তুলতেও সাহায্য করে।

কীভাবে তৈরি করবেন গোলাপের চা

গোলাপের চা - শুধু সৌন্দর্য বৃদ্ধি নয়, সারাদিনের ধকল কাটাতেও কার্যকরী (ছবি -ইনস্টাগ্রাম)

গোলাপের চা (rose tea) তৈরি করা খুব সহজ আর সত্যি কথা বলতে কী, খেতেও বেশ ভাল। এর জন্য যা যা উপকরণ প্রয়োজন

  • এক কাপ গোলাপের পাঁপড়ি
  • তিন কাপ জল
  • এক ইঞ্চি আদা
  • আধ ইঞ্চি দারচিনি
  • স্বাদ মত চিনি

গোলাপ চা তৈরির পদ্ধতি

প্রথমেই খুব ভাল করে গোলাপের (roses) পাঁপড়ি ধুয়ে নিন। একটি পাত্রে গোলাপের পাঁপড়ি ও জল দিয়ে কম আঁচে পাঁচ মিনিট ফোটান। পাঁচ মিনিট পর আঁচ বন্ধ করে দিন। আদা ও দারচিনি গ্রেট করে চায়ের মধ্যে দিয়ে ঢাকা দিয়ে রেখে দিন। আপনি যদি আদা বা দারচিনি পছন্দ না করেন, সেক্ষেত্রে এলাচগুঁড়োও ব্যবহার করতে পারেন। এক মিনিট ঢাকা দেওয়া অবস্থায় রেখে ছেঁকে নিন।

আপনি চাইলে অন্য পদ্ধতিতেও গোলাপের চা তৈরি করতে পারেন, তবে এই পদ্ধতিটি একটু সময় সাপেক্ষ। গোলাপের পাপড়িগুলি রোদে শুকিয়ে নিন এবং এর সঙ্গে আপনার রোজকার ব্যবহারের চা পাতা মিশিয়ে নিন। বাকি পদ্ধতি এক রকমভাবেই করতে হবে।

এত কিছু যদি করতে ইচ্ছে না করে, সেক্ষেত্রে বাজার থেকে গোলাপ চা কিনে এনে জলে ফুটিয়ে চা (rose tea) তৈরি করে খেতে পারেন। বাজারচলতি গোলাপ চায়ে সাধারনত গোলাপের পাপড়ির সঙ্গে হোয়াইট টি, শুকনো ক্যামোমাইল ফুল এবং রোজমেরি মেশানো থাকে। এই চায়ের স্বাদও খুব সুন্দর।

দিনে দু’বার করে গোলাপের চা পান করুন। এতে স্ট্রেস কমবে এবং আপনার সৌন্দর্য চোখে পড়ার মত বৃদ্ধি পাবে।

ছবি সৌজন্য - ইনস্টাগ্রাম 

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!