চুল ও ত্বকের যত্নে ক্যামেলিয়া অয়েলের নানা উপকারিতা জেনে নিন

চুল ও ত্বকের যত্নে ক্যামেলিয়া অয়েলের নানা উপকারিতা জেনে নিন

চুলের যত্নের ক্ষেত্রে চুলে নিয়মিত তেল লাগানোর (oil massage) চল বহুদিন ধরেই চলে আসছে। আগেকার যুগে হেয়ার ট্রিটমেন্ট, হেয়ার স্পা বা চুলের অন্যান্য যত্নের কোনও কনসেপ্ট ছিল না, তখন কি কেউ চুলের যত্ন নিতেন না? তারা নিয়মিত চুলে তেল লাগাতেন। চুলে তেল দিয়ে বেশ অনেকক্ষণ মাসাজ করা ছিল তাঁদের নিত্য কর্মের মধ্যে অন্যতম একটি কাজ। চুলে তেল মাসাজ (oil massage) করলে যেমন স্ক্যাল্প আর্দ্র হয়, স্ক্যাল্পের নানা ইনফেকশন দূর হয়, তেমনই চুলে পুষ্টি জোগাতে সাহায্য করে অয়েল মাসাজ, রক্তসঞ্চালন যাতে সঠিকভাবে হয় সেদিকেও খেয়াল রাখে অয়েল মাসাজ। ফলে স্ক্যাল্প ও চুলের নানা সমস্যা ধারে কাছে ঘেঁসতে পারে না এবং চুল হয় মজবুত, ঘন এবং স্বাস্থ্যোজ্জ্বল।

চুলে নারকেল তেল মাসাজ তো অনেকেই করেন, তবে কোনও দিন কি চুলে ক্যামেলিয়া অয়েল দিয়ে মাসাজ করে দেখেছেন? অবশ্য ক্যামেলিয়া অয়েল শুধুমাত্র চুলের জন্যই না, ত্বকের জন্যও দারুণ উপকারী। ত্বক ও চুলের যত্নে ক্যালেমিয়া অয়েলের উপকারিতা (beauty benefits of camellia oil) সম্পর্কে অবশ্যই জানাবো, তবে তার আগে জেনে নেওয়া যাক এই বস্তুটি আসলে কী

ক্যামেলিয়া অয়েল কী

ত্বক ও চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে ক্যামেলিয়া অয়েল বেশ গুরুত্বপূর্ণ (ছবি - পেক্সেলস ডট কমের সৌজন্যে)

বহুকাল আগে শোনা যায়, মহিলারা নাকি রূপচর্চার জন্য নানা সাধ্য সাধনা করতেন। দুধ দিয়ে স্নান করা থেকে শুরু করে চন্দন ও হলুদ বাটা মাখা, ত্বকে মধু মেখে ত্বক আর্দ্র রাখা, আরও না জানি কত কী! সে’সব কিন্তু বলা যায় গুপ্ত বিদ্যা। তবে এখন আবার অনেকেই সেই প্রাচীন পন্থায় ফিরছেন এবং ন্যাচারাল ইনগ্রেডিয়েন্ট বা আয়ুর্বেদের উপরেই আবার ভরসা করতে শুরু করেছেন; কারণ আয়ুর্বেদ হল এমন একটি উপায় যা শুধুমাত্র ভালই করে, তাও কোনওরকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই। তেমনই একটি প্রায় হারিয়ে যাওয়া রূপচর্চার উপকরণ হল ক্যামেলিয়া অয়েল (beauty benefits of camellia oil)। যদিও জাপানে এটি বহুল প্রচলিত, তবে ইদানিং আমাদের দেশেও অনেকেই ক্যামেলিয়া অয়েল ব্যবহার করছেন এর নানা উপকারিতার জন্য।

জাপানী বিউটি সিক্রেটের অন্যতম উপকরণ ক্যামেলিয়া অয়েল, এটি আসলে একটি গাছের পাতা থেকে নিঃসৃত তেল। অনেক আগে মেকআপ রিমুভার হিসেবে ক্যামেলিয়া অয়েলের ব্যবহার হত, আবার অনেকেই ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতেও ক্যামেলিয়া অয়েল ব্যবহার করতেন। ক্যামেলিয়া অয়েলে রয়েছে ফ্যাটি অ্যাসিড যা ত্বক প্রাকৃতিক ভাবে আর্দ্র রাখে, ত্বকের ইলাস্টিসিটি ধরে রাখে ফলে অকালবার্ধক্য দেখা যায় না, এবং ত্বক মোলায়েল ও মসৃণ করে তুলতে সাহায্য করে।

ত্বকের যত্নে ক্যামেলিয়া অয়েলের উপকারিতা

দুই তিন ফোঁটা ক্যামেলিয়া অয়েল হাতের তালুতে নিয়ে ভাল করে ঘষে নিন এবং মুখে মাসাজ করুন। মাসাজ করার সময়ে আপওয়ার্ড স্ট্রোক দেবেন অর্থাৎ নিচ থেকে উপরের দিকে মাসাজ করবেন। এতে রক্ত সঞ্চালন যেমন সঠিকভাবে হবে, তেমনই ত্বকে একটা আলাদা জেল্লা দেখা যাবে খুব অল্প দিনের মধ্যেই।

চুলের যত্নে ক্যামেলিয়া অয়েলের উপকারিতা

যাঁদের চুল ও স্ক্যাল্প খুব বেশি শুষ্ক এবং ফ্রিজি তারা অনায়াসে ক্যামেলিয়া অয়েল দিয়ে মাথায় মাসাজ করতে পারেন। আবার হেয়ার মাস্ক যদি ব্যবহার করেন, সেক্ষেত্রে অন্যান্য উপকরণের সঙ্গে এই তেলটি মিশিয়ে লাগাতে পারেন। শ্যাম্পু করার আগেও ক্যামেলিয়া অয়েল মাসাজ করে এক ঘন্টা পর শ্যাম্পু করলে কিছুদিনের মধ্যেই চুল মোলায়েম ও জেল্লাদার হয়ে উঠবে।

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজিহিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!