ওয়াক্সিংয়ের সময় কী করলে ব্যথা কম হবে?

ওয়াক্সিংয়ের সময় কী করলে ব্যথা কম হবে?

ওয়াক্সিং (waxing) বিউটি রুটিনের কমন বিষয়। একটা বয়সের পর প্রায় সব মহিলাই ওয়াক্স করান। কেউ ফুল বডি করান। কেউ বা প্রয়োজন অনুযায়ী হাত বা পায়ের অংশে করিয়ে নেন। আবার কারও বা পছন্দ বিকিনি ওয়াক্স।

কিন্তু অনেকের কাছেই বিষয়টা খুব যন্ত্রণাদায়ক। ওয়াক্স করানোর সময় বেশ লাগে। সে আপনি নিজেই করুন বা পার্লারে গিয়ে প্রফেশনালের সাহায্য নিন, ব্যথা হওয়াটাও খুব সাধারণ। এই সমস্যায় পড়েন অনেকেই।

কয়েকটি সহজ বিষয় মনে রাখলে হয়তো আপনার ওয়াক্সিং পর্ব যন্ত্রণামুক্ত হতে পারে। তার জন্য কী কী করতে হবে, তা নিয়েই আজ আলোচনা করার চেষ্টা করলাম আমরা। হয়তো আপনার কাজে লাগতে পারে। এই টিপস ফলো করে উপকার পেলেন কিনা, আমাদের অবশ্যই কমেন্টে জানান।

সঠিক প্রফেশনাল বেছে নেওয়া জরুরি। ছবি ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে।

১) সকলেই কিন্তু ওয়াক্স করাতে দক্ষ নন। ফলে সঠিক প্রফেশনাল বেছে নেওয়া জরুরি। আপনার হেয়ার রিমুভিং সেশন যাতে যন্ত্রণাদায়ক না হয়, তার পিছনে সবথেকে বেশি কার্যকরী হবেন আপনার প্রফেশনাল। আপনি যে পার্লারে এতদিন ওয়াক্স করাচ্ছেন, সেই চেনা প্রফেশনালের কাছে যাওয়াই সবথেকে ভাল। যদি লকডাউনের কারণে পার্লার বন্ধ থাকে, বাড়িতে কাউকে ডেকে এনে ওয়াক্স করাতে চান, তাহলে বুকিংয়ের আগে অনলাইনে তাঁর রিভিউ দেখে নিন।

২) যদি ওয়াক্স করাতে আপনি অভ্যস্ত হন, তাহলে শেভ করবেন না। ওয়াক্স করেই হেয়ার রিমুভ করুন। কারণ ওয়াক্স করলে ত্বকের টেক্সচার এক রকম থাকে। শেভ করলে তা বদলে যায়। ফলে মাঝে শেভিং করিয়ে ফের ওয়াক্স করাতে গেলে তাতে ব্যথা লাগতে পারে অনেক বেশি। কারণ শেভ করলে ত্বকের লোম অনেক মোটা হয়ে যায় এবং তাড়াতাড়ি বাড়ে। তা ওয়াক্স করে তুলতে ব্যাথা লাগে।

৩) ওয়াক্স করানোর আগে ব্যাথা কমানোর জন্য ভাল করে স্ক্রাব করিয়ে নিতে পারেন। যদি পার্লারে সম্ভব হয়, তাহলে তো ভালই। আর তা না হলে নিজেই বাড়িতে ভাল করে ত্বকের স্ক্রাব করে নিন। এতে ত্বকের মরা কোষ উঠে যাবে। ফলে সহজে লোম তোলা যাবে। স্মুথ ওয়াক্সিংয়ের জন্য আগে স্ক্রাবিং মাস্ট।

 

ওয়াক্স করানোর আগে ব্যাথা কমানোর জন্য ভাল করে স্ক্রাব করিয়ে নিতে পারেন। ছবি ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে।

৪) ওল্ড স্কুল ওয়াক্স ছেড়ে নতুন কিছু ট্রাই করতে পারেন। মিল্ক বা চকোলেটের মতো ওয়াক্স বাজারে পাওয়া যায়। এগুলি অনেক বেশি ক্রিমি হওয়ায় ব্যাথা কম লাগে। ফলে এতদিন যে ওয়াক্স ব্যবহার করছেন, তাতে ব্যথা লাগলে ওয়াক্স পাল্টে দেখতে পারেন।

৫) বিকিনি ওয়াক্স করাতে চাইলে অবশ্যই পিরিয়ডের পরের সময়টা বেছে নিন। পিরিয়ড শেষ হওয়ার অন্তত পাঁচদিন পরে ওয়াক্স করান। কখনও আগে করাবেন না। এতে ব্যথা আরও বেড়ে যেতে পারে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!