কলা, মধু, সর্ষের তেল - হাতের কাছে যা পাবেন, তাই দিয়েই তৈরি করে ফেলুন হেয়ার মাস্ক

কলা, মধু, সর্ষের তেল - হাতের কাছে যা পাবেন, তাই দিয়েই তৈরি করে ফেলুন হেয়ার মাস্ক

অনেকেই ঠিক বুঝে উঠতে পারেন না যে, বাজারচলতি কোন প্রোডাক্ট তাঁদের চুলের জন্য ভাল! তাই মনে হয় ঘরোয়া পদ্ধতিতে হেয়ার মাস্ক তৈরি করে নেওয়াটা ভাল। নানা চুলের সমস্যার জন্য রইল আলাদা-আলাদা বেশ কয়েকটি হেয়ার মাস্কের (DIY Hair Mask for Various Problems) হদিশ, যা আপনি খুব সহজে বাড়িতে তৈরি করে নিতে পারেন।

চুল পড়া রোধ করতে মধুর হেয়ার মাস্ক

মধু খুব ভাল প্রাকৃতিক কন্ডিশনারের কাজ করে

একটা ডিমের কুসুম, এক চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল এবং দুই টেবিল চামচ মধু ভাল করে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় গোড়ায় ভাল করে লাগিয়ে নিতে হবে। এরপ কিন্তু চুলের আগাতেও লাগাতে হবে। এক ঘণ্টা এই হেয়ার মাস্ক রেখে উষ্ণ জলে মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একবার করে এই মাস্কটি ব্যবহার করতে পারেন।

খুশকি তাড়াতে ক্যস্টর অয়েলের হেয়ার মাস্ক

৩ টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েল এবং এক টেবিল চামচ ব্র্যান্ডি মিশিয়ে চুলে গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত লাগিয়ে নিন। আধঘণ্টা রেখে মাইল্ড কোনও শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। কন্ডিশনার লাগাতে ভুলবেন না কিন্তু। মাসে তিন বার করুন (DIY Hair Mask for Various Problems)।

ঝলমলে চুলের জন্য লেবু ও সর্ষের তেলের হেয়ার মাস্ক

আগেকার দিনে কিন্তু অনেকেই চুলে সর্ষের তেলই মাখতেন

একটা মাঝারি আকারের লেবুর রস বার করে তাতে ২ চা চামচ সর্ষের তেল ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে। এবারে চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভাল করে মালিশ করে অন্তত আধঘণ্টা রেখে মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে ঠান্ডা জলে চুল ধুয়ে নিন। সপ্তাহে একবার করুন (DIY Hair Mask for Various Problems), চুলের জেল্লা তো বাড়বেই, সঙ্গে স্ক্যাল্পের কোনও সমস্যা থাকলে তা-ও দূর হবে।

চুল ঘন করতে পাকা কলার হেয়ার মাস্ক

দুটো পাকা কলা ছোট-ছোট টুকরো করে ভাল করে চটকে নিন। এবারে তার মধ্যে এক টেবিল চামচ নারকোল তেল এবং খুব সামান্য মধু মিশিয়ে ভাল করে চুলে লাগিয়ে নিন। আধ ঘণ্টা রেখে (যদি না শুকোয়, তা হলে আরও কিছুক্ষণ রাখতে হবে) ভাল করে উষ্ণ জল দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। মাসে একবার এই হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করুন, নিজেই ফল দেখতে পাবেন!

বোনাস টিপস

Beauty

WIPEOUT Sanitizing Wipes 25 Wipes Pack

INR 159 AT MyGlamm

ক) অ্যালোভেরা জুস, নারকেলের দুধ, নিজের ডায়েটে যোগ করুন। এমনকী, আপনার যদি মাঝে-মাঝেই স্ক্যাল্পে চুলকোয়, তা হলে অ্যালোভেরা জেল এবং নারকেলের দুধ মিশিয়ে মাস্ক হিসেবে স্ক্যাল্পে লাগাতেও পারেন। 

খ) ডায়েটের দিকে নজর দিন। কী খাচ্ছেন, সেটা জানা খুব দরকার। শুধুমাত্র নিজের টেস্টবাডকে সন্তুষ্ট করতে গিয়ে যদি শরীরের ক্ষতি করেন, সেটা কিন্তু ঠিক নয়। রোজকার খাবারে প্রচুর পরিমাণে সবুজ তরকারি, শাক, ফল, আয়রন এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার যোগ করুন। 

গ) চুলে যখন তেল লাগাবেন, ঘষে-ঘষে না লাগিয়ে বরং আঙুলের ডগা দিয়ে আলতো করে মালিশ করুন স্ক্যাল্পে। চুলের গোড়ায় বেশি ঘষলে চুলের গোড়া আলগা হয়ে যায় এবং চুল ঝরার মাত্রা অনেক বেড়ে যায়। 

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!