শুধু কোজাগরী পূর্ণিমায় না, মা লক্ষ্মীর কৃপা পেতে নিয়মিত করুন এই আচারগুলি

শুধু কোজাগরী পূর্ণিমায় না, মা লক্ষ্মীর কৃপা পেতে নিয়মিত করুন এই আচারগুলি

আগামিকাল তো লক্ষ্মী পুজো। বাঙালিদের মধ্যে এই পুজোও কিন্তু বেশ ধুমধাম করেই পালন করা হয়। কোনও বাড়িতে নিরামিষ খিচুড়ি ভোগ আবার কোনও কোনও বাড়িতে জোড়া ইলিশের থালা সাজিয়ে মা লক্ষ্মীর আরাধনা (laxmi puja rituals for peace harmony and money) করা হয়। তবে বেশিরভাগ বাঙালি বাড়িতেই কিন্তু কোজাগরী পূর্ণিমা ছাড়াও প্রতি বৃহস্পতিবারে মা লক্ষ্মীর পুজো করা হয়, সে ঘটা করেই হোক বা শুধুমাত্র পাঁচালি পড়েই হোক। সে’কারণেই হয়ত বৃহস্পতিবার লক্ষ্মীবার নামেও পরিচিত, তবে সেটা শুধুমাত্র বাঙালিদের মধ্যে।

'কো জাগতী' বা কে জাগে? হ্যাঁ, এটাই নাকি বলে পেঁচা উড়তে থাকে আকাশে। লক্ষ্মীপুজোর রাতে। যে গৃহস্থ সাড়া দেয়, তাঁর ঘরে দেবীকে আসার জন্য খবর পাঠায় প্যাঁচা। তখন বাহনের পিঠে চেপে মা এসে ঢোকেন ঘরে। এটা কোজাগরী লক্ষ্মীপুজোর বহু পৌরাণিক ব্যখ্যার মধ্যে একটি। যাঁর অর্থ, সম্পত্তি নেই, তিনি তা পাওয়ার আশায় জেগে থাকেন। আর যাঁর রয়েছে, তিনি তা না হারানোর আশায় নাকি জেগে থাকেন। বাঙালি বাড়িতে এই একটা পুজো সাধারণত হয়েই থাকে।

নাম লক্ষ্মী হলেও আসলে কিন্তু দেবী খুবই চঞ্চলা (laxmi puja rituals for peace harmony and money), এক জায়গায় নাকি তিনি বেশিক্ষণ থাকতে পারেন না, বিশেষ করে যদি আদরযত্ন ঠিকভাবে না করা হয়। কাজেই মা লক্ষ্মী যাতে আপনার সংসারে চিরতরে থাকেন এবং আপনার পরিবারকে সুখসমৃদ্ধি ও ধন-ধান্যে ভরিয়ে রাখেন, সে ব্যবস্থা কিন্তু আপনাকেই করতে হবে। শাস্ত্র বিশারদদের মতে, প্রতি বৃহস্পতিবার লক্ষ্মী পুজো করার সময়ে যদি কিছু কিছু নিয়ম পালন করা যায়, তাহলে নাকি অভিমানী দেবী সদয় হন এবং সে’পরিবারের একজন হয়ে ওঠেন। কী-কী সেসব নিয়ম, এই বেলা বরং জেনে নিন!

সংসারে মা লক্ষ্মীর কৃপাদৃষ্টি পাওয়ার জন্য কোজাগরী পূর্ণিমা বাদেও এই নিয়মগুলো পালন করুন প্রতি বৃহস্পতিবারে

১। প্রতি বৃহস্পতিবার লক্ষ্মীর ঘট প্রতিষ্ঠা করার সময়ে অবশ্যই একটি ধানের ছড়াও মা লক্ষ্মীর (laxmi puja rituals for peace harmony and money) সামনে রাখবেন, এতে মা প্রসন্ন হন এবং সংসারে স্থায়ী হন।

২। যদিও প্রতিটি বাঙালি বাড়িতেই যেখানে কোজাগরী লক্ষ্মী পুজো হয়, মা লক্ষ্মীর পায়ের ছাপ আঁকা হয় আলপনা হিসেবে, তবে যদি প্রতিদিন দেবীর পায়ের ছাপের আলপনা আঁকতে পারেন তাহলে খুবই ভাল। প্রতিদিন সম্ভব না হলে অন্তত বৃহস্পতিবার করে বা পূর্ণিমায় লক্ষ্মী পুজো করার আগে চালের গুঁড়ো দিয়ে দেবীর পায়ের ছাপ আঁকুন ঘরের মেঝেতে।

৩। ঠাকুরঘরে শাঁখ রাখুন এবং বৃহস্পতিবারে লক্ষ্মী পুজো (laxmi puja rituals for peace harmony and money) করার সময়ে শাঁখ বাজান। লক্ষ্মীর আসনে বা সামনে রাখুন পাঁচটি কড়িও।

৪। যদি আপনার বাড়িতে দক্ষিণাবর্ত শাঁখ থাকে তাহলে মা লক্ষ্মীর কৃপাদৃষ্টি নাকি সর্বদা আপনার ও আপনার পরিবারের উপরেই থাকবে বলে মনে করেন শাস্ত্র বিশারদরা। একটি পরিষ্কার রূপোর পাত্রে উজ্জ্বল লাল বা হলুদ বা সাদা কাপড়ের উপর এই দক্ষিণাবর্ত শাঁখ রাখুন। যদি রূপোর থালা না থাকে সেক্ষেত্রে অবশ্য মাটির সড়াতেও রাখতে পারেন। এই শাঁখ কিন্তু বাজাতে নেই।

৫। প্রতিদিন স্নান করে যদি গায়ত্রী মন্ত্রের এক মালা অর্থাৎ ১০৮ বার জপ করা যায় তাহলে নাকি মা লক্ষ্মী প্রসন্ন (laxmi puja rituals for peace harmony and money) হন। প্রতিদিন সম্ভব না হলে প্রতি বৃহস্পতিবারে লক্ষ্মী পুজো করার আগে স্নান করে এক মালা গায়ত্রী মন্ত্র জপ করুন। সংসারে সুখসমৃদ্ধির সঙ্গে ধন-ধান্যের কোনও অভাব কোনওদিন হবে না।

মূল ছবি - ইনস্টাগ্রামের সৌজন্যে 

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!