সক্কাল সক্কাল লেবু-জল খাওয়ার উপকারিতা অনেক, তবে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলোও জেনে রাখা ভাল

লেবু-জল খাওয়ার উপকারিতা ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া in bengali

স্বাস্থ্য সচেতন মানুষজন সক্কাল সক্কাল উঠেই ঠাকুরের নাম জপ করার মত ঢক করে এক গ্লাস উষ্ণ লেবুর জল খেয়ে নেন। কেন খাবেন না, এর উপকারিতা যে অনেক। শরীর ঝরঝরে রাখা ছাড়াও বাড়তি মেদ ঝটপট ঝরিয়ে দিতে লেবু-জলের জুড়ি নেই। তবে শুধু এটুকুই নয়, শরীর সুস্থ রাখতে আরও অনেকভাবে সাহায্য করে লেবু-জল। তবে লেবু-জল খাওয়ার পরিমান বেশি হয়ে গেলে বা দীর্ঘদিন ধরে খেলে তার কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও (benefits-and-side-effects-of-warm-lemon-water) হয় বটে।

সকালে উষ্ণ লেবু-জল খাওয়ার উপকারিতা

লেবু-জল সারাদিনের এনার্জি দেয় (ছবি - পেক্সেলস ডট কম)

১। দেহের প্রতিটি অঙ্গের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি ইমিউন সিস্টেম, নার্ভাস সিস্টেম, ত্বক, পেশী, জয়েন্ট এবং হজম ক্ষমতাকে ঠিক রাখতে শরীরের পিএইচ ব্যালেন্স ঠিক থাকাটা একান্ত প্রয়োজন। আর ঠিক এই কারণেই তো নিয়মিত লেবু-জল (benefits-and-side-effects-of-warm-lemon-water) পান করার প্রয়োজন রয়েছে।  

২। কম বয়সে হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হতে না চাইলে নিয়মিত লেবু জল খাওয়া মাস্ট! কারণ একাধিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়ে গেছে যে শরীরে ভিটামিন সি-এর মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করলে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে চলে আসতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়ার আশঙ্কাও আর থাকে না। ফলে হার্টের কোনও ধরনের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা যেমন কমে, তেমনি স্ট্রোক বা বিভিন্ন ধরনের কার্ডিওভাসকুলার ডিজিজও দূরে থাকতে বাধ্য হয়।

৩। বাঙালি যেমন খাদ্য রসিক, তেমনি পেট রোগাও বটে! আর এমন পরিস্থিতি হবে নাই বা কেন! আমারা সবাই কম-বেশি প্রতিদিনই যে এদিক-সেদিকের খাবার খেয়ে থাকে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই হজম ক্ষমতার বারোটা বেজে তো যায়ই, সেই সঙ্গে লেজুড় হয় নানাবিধ পেটের রোগও। তাই তো কব্জি ডুবিয়ে খাবার খাওয়ার পাশাপাশি লেবু-জল (benefits-and-side-effects-of-warm-lemon-water) পান করাটাও জরুরি। কারণ এমনটা করলে পাচক রসের ক্ষরণ ঠিক মতো হতে থাকে। ফলে হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটতে সময় লাগে না।

লেবু-জলের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

অতিরিক্ত লেবু-জল খেলে শরীরে ক্যালসিয়ামের ঘাটতি হতে পারে (ছবি - পেক্সেলস ডট কম)

নিয়মিত লেবু-জল (benefits-and-side-effects-of-warm-lemon-water) খেলে নানাবিধ শারীরিক উপকার পাওয়া যায় ঠিকই। কিন্তু কেউ যদি বেশি মাত্রায় এমন পানীয় খাওয়া শুরু করে, তাহলে কিন্তু বিপদ! কারণে সেক্ষেত্রে দেহের বেশ কিছু ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে। যেমন...


ক) ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ডেন্টাল অ্যান্ড ক্রেনিওফেসিয়াল রিসার্চের প্রকাশ করা এক স্টাডি অনুসারে লেবুর রস প্রকৃতিতে অ্যাসিডিক। তাই তো বেশি মাত্রায় এই পানীয়টি খাওয়া শুরু করলে দাঁতের উপরি অংশের মারাত্মক ক্ষতি হয়। এমনকি দাঁত ক্ষয়ে যাওয়ার আশঙ্কাও থাকে। তাই তো দিনে এক গ্লাসের বেশি লেবুর রস খাওয়া মোটেও উচিত নয়।

খ) শরীরে পুষ্টিকর উপাদানের ঘাটতি হওয়াটা যেমন উচিত নয়, তেমনি প্রয়োজনের অতিরিক্ত হয়ে গেলেও কিন্তু বিপদ! বেশ কিছু স্টাডিতে দেখা গেছে দিনে কেউ যদি তিন-চার গ্লাস লেবু-জল (benefits-and-side-effects-of-warm-lemon-water) পান করেন, তাহলে শরীরে ভিটামিন সি-এর মাত্রা বাড়তে শুরু করে, যার প্রভাবে প্রথমে মাথা ঘোরা, তারপর বারে বারে বমি হওয়ার মতো সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

গ) বেশি মাত্রায় লেবুর রস খাওয়া শুরু করলে শরীরে আয়রনের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে, যে কারণে শরীরের তো কোনও উপকার হয়ই না, উল্টে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গগুলির ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা যায় বেড়ে।

মূল ছবি - পেক্সেলস ডট কম

POPxo এখন চারটে  ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!

বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন #POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!