সম্পর্কে সমস্যা দূরত্ব বাড়াচ্ছে ? কাপলস থেরাপির কথা ভেবেছেন ?

সম্পর্কে সমস্যা দূরত্ব বাড়াচ্ছে  ? কাপলস থেরাপির কথা ভেবেছেন ?

সম্পর্ক, শব্দটি সহজ কিন্তু এর শিকড় অনেক গভীর । আসলে এক একটি সম্পর্ক এক একটি জার্নি । সেই জার্নি কোনওক্ষেত্রে মাঝপথেই থেমে যায় । আবার কোনওক্ষেত্রে সেই জার্নি শুরুর আগেই শেষ হয়ে যায় । আবার জার্নিটি কোনওক্ষেত্রে সারাজীবনের । তবে এই জার্নি একলার নয় । বরং দু’জনার । দুজন মানুষ একসঙ্গে দীর্ঘ সময় থাকেন । এ পথচলায় অনেক ওঠা-পড়া, ভাঙা-গড়া থাকে । কিন্তু সব কিছু নিয়েই যে সম্পর্ক । ওই যে লিখলাম, এর শিকড় অনেক গভীর । পথ চলায় অনেক কিছু মানিয়ে নিতে সমস্যা হয় আমাদের । মনে হয়, এ পথচলায় এখানেই বিরতি থাকুক । কিন্তু বিরতির পরও যে আবার হাঁটা শুরু করা যায়, সে বিষয়ে আমরা ভেবে দেখেছি কি ?  ঠিক, একটি সম্পর্ক ঠিক রাখতে দু’জন মানুষের সমান এফর্ট প্রয়োজন । দুজনকেই সময় দিতে হয় । দুজনকেই সম্পর্কটি নিয়ে ভাবতে হয় । সম্পর্কটি এগিয়ে নিয়ে যেতে হয় । নয়তো সময়ের মতো থমকে যায় সে পথচলাও । অনেক সময় এমন হয়, পথচলা থামিয়ে দুজন উল্টো পথে হাঁটতে শুরু করেন । কিন্তু কখনও ভেবে দেখেন, একটু থেমে গিয়ে আবার দু'জনা একসঙ্গে হাঁটা শুরু করা যায় ?  বেশ যায় । নিজেদের মধ্যে সমস্যাগুলো ( problems in relationship ) মিটিয়ে নিয়ে আবার একসঙ্গে থাকা যায় । গানের ভাষায়, আরও একবার হাত ধরে দেখা যায় আজও ইচ্ছেগুলো এক ! আমাদের সাহায্য করতে পারে কাপলস থেরাপি ( couples therapy )।

 

নিজেরা অনেক সময় চেয়েও হয়তো আমরা সম্পর্কের সমস্যাগুলো ( problems in relationship ) ঠিক করে নিতে পারি না । এখানে বলে রাখি, আমি সম্পর্ক বলতে আমি সমকামী, বিপরীতকামী সব ধরণের সম্পর্কের কথাই বলছি । ভালবাসার এক বন্ধনের কথা বলছি । যাই হোক, সম্পর্কে সমস্যা যখন ইচ্ছেগুলোর থেকেও বড় হয়ে যায় । তখন বাধা তৈরি হয় । নিজেরা ঠিক করতে না পারলে আমরা থেরাপিস্টের সাহায্য নিতে পারি । একজন থেরাপিস্ট দুজন মানুষের সঙ্গে বসে, দীর্ঘ আলোচনায় সেই সমস্যা সমাধান করে দিতে পারেন । তারপর থেকে আবার এক সুন্দর পথচলা শুরু হতে পারে । কাপলস থেরাপি নিয়ে হয়তো অতটাও ওয়াকিবহাল আমরা নই । যেখানে নিজেদের মানসিক সমস্যার জন্য আমরা থেরাপিস্টের কাছে যাওয়ার আগে বারবার ভাবি । সেখানে সম্পর্কের সমস্যা মেটানোর জন্য থেরাপিস্টের কাছে যাব, একথা ভাবতে সময় লাগবে অবশ্যই । তবে বলে রাখি, কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোতেও অনেক থেরাপিস্ট কিন্তু কাপলস থেরাপি করেন । আপনার গুগলকেই একবার প্রশ্ন করে দেখুন না !

পার্টনারের সঙ্গে কাটানো প্রত্যেক মুহূর্ত উপভোগ করুন...

কাপলস থেরাপি ( couples therapy ) কী ?

কাপলস থেরাপি ( couples therapy ) এক ধরণের সাইকলোজিকাল থেরাপি । এক্ষেত্রে একজন লাইসেন্সড ম্যারেজ অ্যান্ড ফ্যামিলি থেরাপিস্ট  (LMFT) ভালবাসার সম্পর্কে থাকা দুজন মানুষের সঙ্গে কথা বলেন । সম্পর্কে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেন ।

 

কাপলস থেরাপির ক্ষেত্রে যে প্রধান বিষয়গুলি মাথায় রাখতে হয় –

  • সম্পর্কে নির্দিষ্ট কোনও সমস্যায় লক্ষ্য রাখতে হয় (যৌনতা বিষয়ক সমস্যা হতে পারে বা অবিশ্বাস বা অন্য কোনও সমস্যাও হতে পারে  )
  • দুজনেরই সমান ভাবে এই থেরাপিতে অংশ নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ
  • সমাধানের দিকেও সমান ভাবে গুরুত্ব দিতে হবে

 

রিপোর্ট বলছে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই প্রত্যেক কাপল সম্পর্কে সমস্যার থেকে বেরিয়ে আসেন । সুন্দরভাবে আবার একসঙ্গে থাকা শুরু করেন । সম্পর্কে মন দেন ।

কাপলস থেরাপি থেকে আপনি কী আশা করতে পারেন ?

কাপলস থেরাপি ( couples therapy )-তে  থেরাপিস্ট প্রথমে প্রশ্ন-উত্তর পর্ব দিয়ে সেশন শুরু করতে পারেন । এরপর ধীরে ধীরে আপনার ব্যক্তিগত কথা জানতে চাইতে পারেন । সম্পর্কের শুরুর দিন কেমন ছিল । পরিবারের কথাও জিজ্ঞাসা করেন থেরাপিস্ট । তবে আপনার সম্পর্কের সমস্যা ঠিক কী, তার উপরেই বেশিরভাগ বিষয় নির্ভর করে । অনেক সময় বিভিন্ন হোম ওয়ার্কও দেন থেরাপিস্ট (therapist ) । একে অপরের সঙ্গে কথা বলার ধরণ, এমনকী সম্পর্কের প্রতি তাঁদের দৃষ্টিভঙ্গিতেও পরিবর্তন আসে ।

প্রত্যেক মুহূর্ত হোক সুন্দর

কারা কাপলস থেরাপি নিতে পারেন ?

যাঁদের সম্পর্কে সমস্যা( problems in relationship ) রয়েছে, কিন্তু সমাধান হচ্ছে না । তাঁরা তো অবশ্যই কাপলস থেরাপি নিতে পারেন । থেরাপিস্টের সাহায্য নিতে পারেন । একইসঙ্গে অন্যান্য কাপলও যেতে পারেন । যেমন -

 

  • বিপরীতকামী ও সমকামী সম্পর্কে থাকা মানুষ
  • ভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষ, যাঁরা সম্পর্কে আছেন
  • তরুণ বয়সের সম্পর্ক বা কলেজ কাপল
  • অসম বয়সের সম্পর্কে আছেন যাঁরা
  • সম্পর্কে থাকা, বা ইতিমধ্যেই এঙ্গেজড বা বিবাহিত মানুষও কাপলস থেরাপি করাতে পারেন ।

বেশিরভাগ কাপল থেরাপিস্টের কাছে যেতে দেরি করে কেন ?

অনেকক্ষেত্রেই দেখা যায়, সম্পর্কে অনেক ক্ষতি হওয়ার পরে থেরাপিস্টের কাছে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছেন যুগল । কিন্তু হয়তো তার অনেক আগে এলে সম্পর্কে এত সমস্যাই তৈরি হত না । হয়তো দুজন মানুষ একটি সম্পর্কে ছয় বছর আছেন । এবং ছয় বছরে কখনওই খুশি ছিলেন না তাঁরা । তাও কাপলস থেরাপি ( couples therapy )-র কথা ভাবেননি । বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ব্যক্তিগত সীমার গণ্ডি পের হতে হবে ভেবেই বেশিরভাগ মানুষ পিছিয়ে আসেন । বা তাঁরা কাপলস থেরাপি -র কথা ভাবলেও দুজনের সময় মেলে না বলেও যাওয়া হয়ে ওঠে না ।

একে অপরকে সময় দিন...

যেহেতু আমরা কাপলস থেরাপি নিয়ে অতটাও কথা বলি না । বা সম্পর্কের সমস্যা নিয়ে কথা বলি না । আমরা সমস্যাগুলো নিয়ে চলতেই অভ্যস্ত হয়ে যাই । কিন্তু সমস্যা নিয়ে চলার জন্য তৈরি হয় না । সমস্যার সমাধান করে সম্পর্কটি এগিয়ে নিয়ে চলা জরুরি । হয়তো আপনি আপনার মনের মানুষটিকে খুব ভালবাসেন, কিন্তু সম্পর্কে বেশ কিছু সমস্যার জন্য কথা বলাও প্রায় বন্ধ হয়ে গিয়েছে । তা আর হতে দেবেন না । কথা বলেই দেখুন থেরাপিস্টের সঙ্গে । কাপলস থেরাপি নিন  । হয়তো সম্পর্কের মানে আবার খুঁজে পেতে পারেন  । চায়ের কাপ হাতে একসঙ্গে গল্প করে আবার কেটে যাবে বিকেল । পথচলায় মিলে যাবে ইচ্ছেগুলো...

POPxo এখন চারটে ভাষায়!ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!
বাড়িতে
থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!