পার্টনার অন্য শহরে ? এই বিষয়গুলো মেনে চললে সম্পর্ক থাকবে সুন্দর

পার্টনার অন্য শহরে ? এই বিষয়গুলো মেনে চললে সম্পর্ক থাকবে সুন্দর

কাজের সূত্রে একে অপরের থেকে দূরে রয়েছেন, তাই না ? অফিসের চাপে সময় বের করতে পারছেন না । হয়তো সম্প্রতি বা বেশ কয়েক মাস হল আপনি অন্য শহরে চলে এসেছেন বা আপনার বয়ফ্রেন্ড অন্য শহরে চলে গিয়েছেন ( long distance relationship ) । একে অপরকে দেখতে চাওয়ার ইচ্ছে হলেও , তা  হয়ে উঠছে না । বা একসঙ্গে কাটানো সন্ধ্যাগুলোর কথা মনে পড়ছে খুব । মিস করছেন, অথচ দূরত্বই এখন প্রধান হয়ে উঠেছে । এমন কিছু সমস্যা তৈরি হচ্ছে, যা আগে ছিল না । একথা আমরা যতই মানতে নারাজ থাকি, কিন্তু দূরত্ব অনেক সমস্যা তৈরি করে । আর সেকথা মাথায় রাখতে হয় আমাদের । মন-মালিন্য, অভিমান হতে পারে । অল্প বিষয়ে ভুল বোঝাবুঝি হতে পারে কিন্তু কোনওভাবেই হাত যেন না ছেড়ে যায় আপনার ও আপনার সঙ্গীর ( keep long distance relationship alive )। যদি সঙ্গী দূরে থাকে, তবে কয়েকটি বিষয় আমাদের মেনে চলতে হবে । আর সেই নিয়মগুলি মেনে চললে অবশ্যই সম্পর্ক থাকবে সুন্দর, লং ডিসট্যান্স রিলেশনশিপ ( long distance relationship ) হলই বা !

যোগাযোগ

একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগে যেন কোনও কমতি না হয় । হ্যাঁ, অফিসের সময় মিলতে না পারে । বা কাজের চাপও খুব বেশি থাকতে পারে । তাও অন্তত কিছু সময় বের করে হলেও আপনার সঙ্গীর খোঁজ নিন । তাহলে আপনার সঙ্গীরও ভাল লাগবে । আর আপনারও দেখবেন মন ভাল হয়ে যাবে । যেন আপনার সঙ্গী কোনওভাবেই না মনে করেন, আপনি তাঁকে ভুলে যাচ্ছেন । আবার অত্যাধিক কথাবার্তাও ভাল না, তবে এক একদিন নিয়ম ভাঙা যেতেই পারে । কারণ, ভালবাসায় সবকিছু চলে  ( keep long distance relationship alive ) । 

সময় দিন একে অপরকে

আমরা আমাদের কাছের মানুষকে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ যা দিতে পারি, তা হল সময় । সারাদিনের ব্যস্ততার মধ্যেও তাঁর জন্য একটু সময় বের করে ফোন করুন বা ভিডিয়ো কল করুন । দিনে অন্তত একবার ভিডিয়ো কল করার চেষ্টা করুন । তিনি কী বাজার করলেন, তিনি আজ কী করছেন এইসব খুঁটিনাটি প্রশ্নও করুন । স্বাস্থ্যের খোঁজ নিন । তাঁর ভাল লাগবে ।

প্রত্যাশা একটু কমিয়ে ফেলতে হবে

কাছে থাকলে আমাদের একরকম প্রত্যাশা তৈরি হয় সঙ্গীর থেকে । সেই প্রত্যাশা নিয়েই আমরা কখনও দূরে চলে আসি বা আমাদের সঙ্গী দূরে চলে যায় । সম্পর্কে দূরত্ব এলে, দুজনের মধ্যে তৈরি হওয়া প্রত্যাশা অনেকক্ষেত্রে পূরণ না হতে পারে । অনেক ইচ্ছেও পূরণ না হতে পারে, তা বুঝতে হবে । একটু খারপ লাগবে অবশ্যই, কিন্তু দূরত্বের কথা মাথায় রাখতে হবে । সেই অনুযায়ী নিজেদের চাহিদা, ইচ্ছেকে নতুন করে গড়তে হবে । 

একে অপরকে কাজের ফাঁকেও সময় দিন

সারপ্রাইজ, সারপ্রাইজ, সারপ্রাইজ...আমি কি সারপ্রাইজের কথা মিস করলাম ?

কোনও বিশেষ দিনে তাঁকে উপহার পাঠিয়ে দিন, সঙ্গে কোনও মেসেজ দিন । সেই মেসেজে স্মৃতির কথাও থাকতে পারে । বা ছুটি পেলে তাঁর কাছে চলে যান, অন্তত কয়েকদিনের জন্যে হলেও । এতে আপনার সঙ্গীও যেমন খুব খুশি হবে । একে অপরের সঙ্গে সম্পর্ক ভাল থাকবে ।

 

অভিমান ঠিক আছে, কিন্তু বোঝাপড়াই সব

হ্যাঁ, দূরত্ব বাড়লে অনেক ছোট বিষয়ে হয়তো মান-অভিমান হতে পারে । সম্পর্কে অভিমান বিষয়টি বেশ মিষ্টি । কিন্তু একে অপরকে বুঝুন । তাঁর সমস্যাটা বুঝুন । একে অপরের কথা শুনুন । বুঝিয়ে দিন, আপনি তাঁর পাশে আছেন ।

 

ভার্চুয়ালি হলেও পাশে থাকুন

দূরে থাকলেও আমাদের জীবনের সমস্যা আমাদের ছেড়ে যাবে না । অনেক কঠিন সময়ের মুখোমুখি আমাদের হতে হবে । আপনার সঙ্গীরও হয়তো কঠিন কোনও সমস্যা হতে পারে । সেইসময় ভার্চুয়ালি হলেও তাঁর পাশে থাকুন । ফোনে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখুন । যেন, তাঁর মনে হয় আপনি তাঁর হাত ধরেই আছেন । কোনওভাবেই যেন তিনি একা না বোধ করেন ।

বিশ্বাস সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ

একটি সম্পর্কের ভিতই বিশ্বাস । দূরে থাকলে আপনার সঙ্গীকে যেমন অবিশ্বাস করবেন না । তেমন, আপনার সঙ্গীর বিশ্বাসও ভাঙবেন না ।

আপনারা ভাল থাকুন । কারণ, দূরত্ব শুধুই কিলোমিটারে বেড়েছে । আপনাদের মন দুটো একসঙ্গেই আছে পাশাপাশি...

POPxo এখন চারটে ভাষায়!ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!
বাড়িতে
থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!