বাড়ি থেকে বিয়ের চাপ, কিন্তু আপনি বিয়ে করতে চান না! কীভাবে বোঝাবেন মা ও বাবাকে?

বাড়ি থেকে বিয়ের চাপ, কিন্তু আপনি বিয়ে করতে চান না! কীভাবে বোঝাবেন মা ও বাবাকে?

অনেক সময় ওঁদের সঙ্গে আমাদের মতের মিল হয় না। আমরা যা বলি, ওঁরা বুঝতে পারেন না। তাঁরা যা বলেন, আমরা বুঝতে পারি না। তর্কা-তর্কি, মতের অমিলের মধ্যে অনেক সময় আমাদের মধ্যে দূরত্বও তৈরি হয়। কিন্তু দিনের শেষে তাঁদের সঙ্গে কথা না বললে মন ভাল হয় না। কিংবা অফিসে সমস্যার পর সবার প্রথম তাঁদেরই ফোন করে নালিশ করতে ইচ্ছে করে। যেমন, ছোটবেলায় স্কুল থেকে ফিরে সব নালিশ করা যেত। মনে হত, তাঁরা সব ঠিক করে দেবেন। এই জন্যই বাবা মায়েরা বোধ হয় বলেন, তোরা আমাদের কাছে সবসময় ছোটই থাকবি । একসময় বাবা ও মা বিয়ের জন্য চাপ দিতে শুরু করেন, তাহলে বাবা মাকে কীভাবে বোঝাবেন? (how to convince parents)

মা ও বাবা আপনার মনের কথা বুঝবেন...

আপনি মিড টোয়েন্টিসে থাকলেই আপনার বাবা, মা আপনাকে বিয়ের চাপ দিতে থাকেন। কারণ তাঁদের মনে হয় এটাই আপনার বিয়ের বয়স। অথচ, আপনি ভাবেন বিয়ের জন্য আলাদা করে কোনও বয়স হয় না(not ready to marry)। আপনি যখন ঠিক মনে করবেন, তখনই বিয়ে করবেন। বা বিয়ে করবেন না। কিন্তু মা, বাবারা তা বোঝেন না। প্রতিদিনই অফিস থেকে বাড়ি ফেরার পর আপনাকে বিয়ের কথা শুনতে হয়, তখন আপনারও ভাল লাগে না। কথায় কথা বাড়ে, তারপরই শুরু হয় তর্ক ও অশান্তি। একটু দাঁড়ান। এটা আপনি কী করছেন? এটাই কি একমাত্র সলিউশন? একদমই না। বরং, মা ও বাবাকে বুঝিয়ে বলুন(how to convince parents)। কীভাবে সম্পূর্ণ বিষয়টা হ্যান্ডেল করবেন? তার কয়েকটা রাস্তা বলে দিচ্ছি আমরাই। বাবা মাকে কীভাবে বোঝাবেন, তা বুঝতে পারবেন আপনিও।

তাঁদের কথা শুনুন

আমাদের সবথেকে বড় সমস্যা কী জানেন? আমরা শুনি কম, বলি বেশি। এবং এই কারণেই ঝগড়া-অশান্তি ঠিক হতে চায় না। আমরা যদি শান্তভাবে অপরপক্ষের কথা শুনতামও, তাহলে হয়তো এতটা সমস্যা হত না। আপনার মা, বাবার কথা আপনি মন দিয়ে শুনুন(how to convince parents)। তাঁরা কী বলতে চায় শুনুন। তাঁদের দুটো কথার পরেই আপনিও আপনার মতামত চাপিয়ে দেবেন না। ঠাণ্ডা মাথায় তাঁদের সব কথা শুনুন, তারপর আপনিও উত্তর দিন। তাঁরা কী কারণে আপনার বিয়ে দিতে চান, সেই প্রশ্ন করুন। কী লাভ তাতে হবে, সেই প্রশ্নও করুন(not ready to marry)।

 

 

Beauty

Treat Love Care Brightening Foundation

INR 995 AT MyGlamm

নিজের কাছে স্পষ্ট থাকুন

আপনি যখন বাবা, মা'কে বোঝাবেন আপনি কেন বিয়ে করতে চান না(not ready to marry)। তার আগে নিজের কাছে স্পষ্ট থাকুন, নিজের কাছে অন্তত যেন আপনার বিয়ে না করার কারণগুলি স্পষ্ট থাকে। আপনি সেই বিষয়ে নিজের কাছে স্পষ্ট থেকে তবেই সেই কারণগুলো বাবা,মা'কে বলুন। যেন আপনার কারণগুলিতে আপনি একদম দৃঢ় থাকেন, কোনও বিরুদ্ধ মতই আপনাকে টলাতে না পারে। সেদিকে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন। বাবা মাকে কীভাবে বোঝাবেন, তা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন।

আপনার মা আপনার কথা অবশ্যই বুঝবেন...

ধৈর্য্য রাখুন ও সম্পূর্ণ বিষয়টি গুছিয়ে বলুন

আপনার বাবা, মায়ের মত শুনেছেন। এবার আপনি আপনার মত জানান। তাঁদের সঙ্গে মুখোমুখি আলোচনায় বসুন(how to convince parents)। প্রয়োজনে তিন কাপ চা বা কফি করে নিয়ে বসুন। চা খেতে খেতে কথা বলুন। কেন আপনি বিয়ে করতে চাইছেন না, তা স্পষ্ট করে বুঝিয়ে বলুন আপনার বাবা ও মা'কে। এই সময় সেইসব বিষয়গুলো স্পষ্ট করুন, যেগুলো আপনি আগের থেকে ঠিক করে রেখেছিলেন।

এই সময় সব থেকে বেশি প্রয়োজন ধৈর্য্য রাখা। ধৈর্য্য হারিয়ে চিৎকার করে ফেলবেন না। আপনার বাবা ও মা বুঝতে চাইবেন না, আপনি ধৈর্য্য রেখে তাঁদের বোঝাবেন।

মা'কে আপনার ইচ্ছে বুঝিয়ে বলুন...

সময়ের উপর ছেড়ে দেবেন না

অনেকেই মনে করেন, সময়ের সঙ্গে আস্তে আস্তে সব ঠিক হয়ে যাবে। জাস্ট গো উইথ দ্য ফ্লো। বিশ্বাস করুন, এই কথাটা আমি সবচেয়ে বেশি অপছন্দ করি। কারণ, জলের স্রোতে শুধু মরা মাছ ভেসে যায়। জীবন্ত মাছ সাঁতরে জলের স্রোতের বিপরীতে যাওয়ার চেষ্টা করে। আপনিও জীবন্ত। আপনি সময়ের সঙ্গে সেই স্রোতে ভেসে যাবেন না। (how to convince parents)সমস্যা এখনই সমাধান করুন, তাতে আপনাকে স্রোতের বিপরীতে চলতে হলেও চলতে পারে।

আপনার ইচ্ছের কথা জানান

আপনি কেন বিয়ে করতে চাইছেন না, এই প্রশ্নই আপনার বাবা ও মা আপনাকে বারবার করবেন। আপনি তার সঠিক উত্তর দিন। আপনার কী কী ইচ্ছে রয়েছে, যা বিয়ে করলে হয়তো পূরণ হবে না। এবং এই মুহূর্তে কোন বিষয়ে আপনার বেশি গুরুত্ব দেওয়া উচিত, সেই সব গুছিয়ে বলুন। আশা করি সেই সমস্যা মিটে যাবে।

মূল ছবি সৌজন্য - DDLJ

POPxo এখন চারটে ভাষায়!ইংরেজি, হিন্দি, মারাঠি আর বাংলাতেও!
বাড়িতে থেকেই অনায়াসে নতুন নতুন বিষয় শিখে ফেলুন। শেখার জন্য জয়েন করুন
#POPxoLive, যেখানে আপনি সরাসরি আমাদের অনেক ট্যালেন্ডেট হোস্টের থেকে নতুন
নতুন বিষয় চট করে শিখে ফেলতে পারবেন। POPxo App আজই ডাউনলোড করুন আর জীবনকে আরও একটু পপ আপ করে ফেলুন!